চা-বিরতির আগে মুশফিককে হারিয়ে চাপে বাংলাদেশ

পাল্লেকেলেতে দ্বিতীয় টেস্টের তৃতীয় দিনের চা বিরতি পর্যন্ত বাংলাদেশের রান ৪ উইকেটে ২১৪।

শ্রীলঙ্কার টিপিক্যাল তৃতীয় দিনের উইকেটে প্রথম ঘণ্টার পরই মিলল টার্ন আর বাউন্স। স্পিনাররা তাতে তৈরি করলেন একের পর এক সুযোগ। লাঞ্চের আগে জোড়া আঘাতের পর লাঞ্চ থেকে ফিরে কাবু নব্বুইর ঘরে থাকা তামিম ইকবাল।  শুরুতে ক্যাচ দিয়ে বাঁচা মুমিনুল হক আর মুশফিকুর রহিমের জুটিতে কঠিন পরিস্থিতি পার করে ফেলেছিল বাংলাদেশ। কিন্তু চা-বিরতির ঠিক আগে আবার ঘটেছে বিপদ। 

পাল্লেকেলেতে দ্বিতীয় টেস্টের তৃতীয় দিনের চা বিরতি পর্যন্ত বাংলাদেশের রান ৪ উইকেটে  ২১৪।  এই সেশনে খেলা হয়েছে ৩৪.৪ ওভার। তাতে ২ উইকেট হারিয়ে বাংলাদেশ যোগ করে আরও ১১৫ রান। অভিষিক্ত বাঁহাতি প্রবিন জয়াবিক্রমা ৭৪ রানে পেয়েছেন ৩ উইকেট, অফ স্পিনার রমেশ মেন্ডিস ৭৪ রানে পান ১ উইকেট।

লাঞ্চের পর নেমে শুরুতেই উইকেট হারাতে পারত বাংলাদেশ। লঙ্কান স্পিনারদের টার্ন আর বাউন্সে বারবারই তৈরি হচ্ছিল সুযোগ। মুমিনুল হক একবার শর্ট স্কয়ার লেগ দিয়ে মারতে গিয়ে বাঁচলেন। পরে ১১ রানে পেলেন পরিষ্কার জীবন।

জয়াবিক্রমার বলে ১১ রানে থাকা মুমিনুলের সহজ ক্যাচ পড়ে যায় শর্ট মিড অনে। শুরুতে দ্যুতিময় ব্যাট করা তামিম স্পিন আসতেই অস্বস্তিতে পড়ে গিয়েছিলেন। অস্বস্তি কাটাতে লাঞ্চের আগেই অস্থির হয়ে ক্রিজ থেকে বেরিয়ে আসতে দেখা যায় তাকে। ঝুঁকিপূর্ন সব চেষ্টায় বিপদ হতে পারত।  লাঞ্চের পর সেই সাহস আর করেননি। কিন্তু ধুঁকতে ধুঁকতে এগুতে থাকেন।

৭০ পর্যন্ত তার ইনিংস এগিয়েছেন দারুণ সাবলীল ছন্দময় গতিতে। এরপরে পুরো উল্টো ছবি। রান আনতে বেশ কষ্ট হচ্ছিল। অনেকটা সময় নিয়ে নব্বুইর ঘরে গিয়েও থমকে যান।

আর সেখান থেকে নড়া হয়নি তার। জয়াবিক্রমার দারুণ টার্ন করে বেরিয়ে যাওয়া এক বলে ক্যাচ দেন স্লিপে। সিরিজে দ্বিতীয় বারের মতো নব্বুইর ঘরে থামে তামিমের ইনিংস। তিন ইনিংসেই সেঞ্চুরির আশা জাগিয়ে পাওয়া হলো না তার।

এরপরে মুশফিকুর রহিমকে নিয়ে প্রতিরোধ গড়েন অধিনায়ক মুমিনুল। স্পিনারদের টার্ন-বাউন্স বুঝে নিয়েই সতর্ক হয়ে খেলতে থাকেন তারা। তবে রানের গতি পড়তে দেননি। লঙ্কান মূল দুই স্পিনার জয়াবিক্রমা আর রমেশ দুইজনই অনভিজ্ঞ। চাপটা হালকা হতেই কিছুটা আলগা বলও দিতে থাকেন তারা।

চা-বিরতির ঠিক আগেই লঙ্কানরা আদায় করে নেয় সাফল্য। ৬৩ রানের জুটির পর জয়াবিক্রমার বলে এলবিডব্লিউ হন মুশফিক। তার ভেতরে ঢোকা বলে মুশফিক ব্যাকফুটে খেলে পরাস্ত হয়েছিলেন।  মাঠের আম্পায়ার জোরালো আবেদনে সাড়া দিলে শেষ পর্যন্ত রিভিউ নিয়ে মুশফিককে ফেরায় শ্রীলঙ্কা।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

(তৃতীয় দিনের চা-বিরতি পর্যন্ত)

শ্রীলঙ্কা প্রথম ইনিংস:১৫৯.২ ওভারে ৪৯৩/৭ (ইনিংস ঘোষণা)

বাংলাদেশ প্রথম ইনিংস:  ৬১.৪ ওভারে ২১৪/৪(তামিম ব্যাটিং ৯, সাইফ ২৫, শান্ত ০, মুমিনুল ব্যাটিং ৪৭*, মুশফিক ৪০   ; লাকমাল ০/২৫  , বিশ্ব ০/১৯, ম্যাথিউস ০/৭ , রমেশ ১/৭৪, জয়াবিক্রমা ৩/৭৪ )

 

Comments

The Daily Star  | English

Dhaka traffic still light as offices, banks, courts reopen

After five days of Eid and Pahela Baishakh vacation, offices, courts, banks, and stock markets opened today

43m ago