‘চীনা রাষ্ট্রদূত একটি দেশের প্রতিনিধিত্ব করেন, তারা যা চায় তা বলতেই পারেন’

কোয়াডে বাংলাদেশের অংশগ্রহণ নিয়ে চীনা রাষ্ট্রদূতের মন্তব্য বিষয়ে পরাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন বলেছেন, ‘স্বাভাবিকভাবেই তিনি (চীনা রাষ্ট্রদূত) একটি দেশের প্রতিনিধিত্ব করেন। তারা যা চায়, সেটা তারা বলতেই পারেন। হয়তো তারা সেটা (বাংলাদেশ কোয়াডে অংশগ্রহণ করুক) চায় না।’
পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন। ফাইল ছবি

কোয়াডে বাংলাদেশের অংশগ্রহণ নিয়ে চীনা রাষ্ট্রদূতের মন্তব্য বিষয়ে পরাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন বলেছেন, ‘স্বাভাবিকভাবেই তিনি (চীনা রাষ্ট্রদূত) একটি দেশের প্রতিনিধিত্ব করেন। তারা যা চায়, সেটা তারা বলতেই পারেন। হয়তো তারা সেটা (বাংলাদেশ কোয়াডে অংশগ্রহণ করুক) চায় না।’

আজ মঙ্গলবার ইউএনবির প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, পরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘বাংলাদেশ নিরপেক্ষ ও সামঞ্জস্যপূর্ণ বৈদেশিক নীতি বজায় রেখেছে এবং সেই নীতিমালা অনুযায়ী কোনো বিষয়ে কী করা উচিত, সে সিদ্ধান্ত নেবে।’

সাংবাদিকদের তিনি বলেছেন, ‘আমরা স্বাধীন ও সার্বভৌম দেশ। আমাদের পররাষ্ট্র নীতি বিষয়ে আমরাই সিদ্ধান্ত নেব। কিন্তু, হ্যাঁ, যেকোনো দেশই তাদের অবস্থান সম্পর্কে জানাতে পারে।’

পররাষ্ট্রমন্ত্রী আরও বলেন, ‘কোয়াডের পক্ষ থেকে এখনো বাংলাদেশের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়নি। ওই (চীনা রাষ্ট্রদূতের) মন্তব্যটি স্বতপ্রণোদিত। জনগণের স্বার্থ বিবেচনা করে আমরা আমাদের পররাষ্ট্র নীতি বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেব’, বলেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

এর আগে, গতকাল যুক্তরাষ্ট্র, জাপান, ভারত ও অস্ট্রেলিয়ার কৌশলগত জোট ‘কোয়াড’ এ যোগ না দিতে বাংলাদেশের প্রতি আহ্বান জানিয়ে চীনের রাষ্ট্রদূত লি জিমিং বলেন, ‘কোয়াডে অংশ নিলে বাংলাদেশ-চীন সম্পর্ক “যথেষ্ট খারাপ” হবে।’

আরও পড়ুন:

কোয়াডে অংশগ্রহণ বাংলাদেশ-চীন সম্পর্ক ‘যথেষ্ট খারাপ’ করবে: চীনা রাষ্ট্রদূত

Comments

The Daily Star  | English

'Why did they kill my father?'

Slain MP’s daughter demands justice, fair investigation

45m ago