সাতক্ষীরায় করোনা উপসর্গ নিয়ে ৩ ঘণ্টার ব্যবধানে ৩ জনের মৃত্যু

করোনার উপসর্গ নিয়ে তিন ঘণ্টার ব্যবধানে সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তিন জনের মৃত্যু হয়েছে। আজ মঙ্গলবার সকালে হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. কুদরত-ই-খোদা দ্য ডেইলি স্টারকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।
Corona Dead Body
স্টার অনলাইন গ্রাফিক্স

করোনার উপসর্গ নিয়ে তিন ঘণ্টার ব্যবধানে সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তিন জনের মৃত্যু হয়েছে। আজ মঙ্গলবার সকালে হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. কুদরত-ই-খোদা দ্য ডেইলি স্টারকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

হাসপাতালে সূত্র জানিয়েছে, গতকাল সন্ধ্যা সোয়া ৭টা থেকে রাত সোয়া ১০টার মধ্যে তাদের মৃত্যু হয়। এ নিয়ে সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে করোনা উপসর্গ নিয়ে ২১৭ জন ও কোভিড-১৯ পজিটিভ শনাক্ত ৩৩ জনের মৃত্যু হলো।

গত রাতে মারা যাওয়া তিন জন হলেন— সাতক্ষীরার কালীগঞ্জ উপজেলার সাহেবআটি গ্রামের আব্দুস সামাদ (৭০), কলারোয়া উপজেলার বাটরা গ্রামের ফরিদা বেগম (৫৫) ও সাতক্ষীরা সদর উপজেলার পদ্মশাখরা গ্রামের সুফিয়া খাতুন (৫৫)।

আব্দুস সামাদ গত শুক্রবার রাত ১টার দিকে জ্বর, সর্দি, কাশি, গলা ব্যথা ও শ্বাসকষ্ট নিয়ে সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আইসোলেশন ইউনিটে ভর্তি হয়েছিলেন। শারীরিক অবস্থার অবনতি হওয়ায় গতকাল তাকে হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) স্থানান্তর করা হয়। চিকিৎসাধীন অবস্থায় গতকাল রাত সোয়া ১০টার দিকে তার মৃত্যু হয়।

একই উপসর্গ নিয়ে কলারোয়া উপজেলার বাটরা গ্রামের ফরিদা বেগম শনিবার রাত ৮টার দিকে সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের করোনা ইউনিটে ভর্তি হন। রোববার তাকে আইসিইউতে নেওয়া হয়। গতকাল রাত সাড়ে ৯টার দিকে তার মৃত্যু হয়। বৃহস্পতিবার হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন সুফিয়া খাতুন। গতকাল সন্ধ্যা সোয়া ৭টায় তার মৃত্যু হয়।

ডা. কুদরত-ই-খোদা আরও বলেন, ‘এ পর্যন্ত হাসপতালে করেনা উপসর্গ নিয়ে ২১৭ জন ও কোভিড-১৯ পজিটিভ ৩৩ জনের মৃত্যু হয়েছে।’

Comments