রোচ, মেয়ার্সের তোপের পরও ওয়েস্ট ইন্ডিজের কঠিন লক্ষ্য

সেন্ট লুসিয়ায় দ্বিতীয় টেস্ট জিতে সিরিজে সমতা ফেরাতে হলে ৩২৪ রানের লক্ষ্য পেয়েছে ক্যারিবিয়ানরা। বিশাল রান তাড়ায় নেমে বিনা উইকেটে ১৫ রান তুলে দিন শেষ করেছে তারা।
kemar roach
ছবি: আইসিসি

দক্ষিণ আফ্রিকার দ্বিতীয় ইনিংসে শুরু থেকেই আঘাত হানতে থাকলেন কেমার রোচ। তার সঙ্গে যোগ দিলেন কাইল মেয়ার্স। প্রোটিয়ারা গুটিয়ে গেল দুইশোর আগেই। তবু প্রথম ইনিংসে বড় ব্যবধানে পিছিয়ে থাকায় কঠিন চ্যালেঞ্জ ওয়েস্ট ইন্ডিজের সামনে।

সেন্ট লুসিয়ায় দ্বিতীয় টেস্ট জিতে সিরিজে সমতা ফেরাতে ৩২৪ রানের লক্ষ্য পেয়েছে ক্যারিবিয়ানরা। হাতে দুই দিন থাকায় ড্রয়ের সম্ভবনাও নেই বললেই চলে।  বিশাল রান তাড়ায় নেমে বিনা উইকেটে ১৫ রান তুলে দিন শেষ করেছে তারা। এর আগে রোচ, মেয়ার্সের তোপে সফরকারী দক্ষিণ আফ্রিকা গুটিয়ে যায় ১৭৪ রানে।  এলগারের দলকে আটকে ৫৪ রানে ৪ উইকেট রোচের, মেয়ার্স ২৪ রানে নেন ৩ উইকেট।

প্রথম ইনিংসে ২৯৮ রান করেছিল প্রোটিয়ারা। জবাবে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ১৪৯ রানে অলআউট হলে ঠিক ১৪৯ রানের লিডই পান ডিন এলগাররা।

বড় লিড নিয়ে স্বাগতিকদের কঠিন লক্ষ্য দেওয়া তাই ছিল খুব সহজ। সেই পথে তাদের যাত্রা কঠিন করে দেন রোচ, মেয়ার্স।

প্রথম ওভারেই এইডেন মার্ক্রামকে ফেরান রোচ। আগের ইনিংসে রান পেয়েছিলেন এলগার। ৮ম ওভারে তাকেও ফিরিয়ে দেন তিনি। কিগান পিটারসেনকে বোল্ড করে শুরু মেয়ার্সের।

খানিক পর কাইল ভেরানিকে উইকেটের পেছনে ক্যাচ বানান তিনি। জেসন হোল্ডার এসে আগের ইনিংসে ৯৬ রান করা কুইন্টেন ডি কককে কোন রান করার আগেই কট বিহাইন্ড করলে ৫৪ রানেই ৬ উইকেট হারিয়ে বসে সফরকারীরা।

এই অবস্থা থেকে রাসি ফন ডার ডুসেনের ব্যাটে ঘুরে দাঁড়ায় তারা, কাগিসো রাবাদাকে নিয়ে ডুসেন ৮ম উইকেটে আনেন ৭০ রান। ৪৮ বলে ৪০ করা রাবাদাকে আউট করে এই জুটি ভাঙ্গেন রোচ। আনরিক নরকিয়া, লুঙ্গি এনগিদিরা দ্রুত আউট হয়ে গেলেও ৭৫ রানে অপরাজিত রয়ে যান ডুসেন। তার সৌজন্যেই চ্যালেঞ্জিং পুঁজি পেয়ে যায় দক্ষিণ আফ্রিকা।

তৃতীয় দিন শেষে ম্যাচের এই পরিস্থিতিতে ম্যাচে ফল হওয়ার সম্ভাবনাই প্রবল। উইকেট, পরিস্থিতির বাস্তবতায় সেই ফলটা প্রোটিয়াদের দিকেই হেলে আছে আপাতত। 

 

 

Comments

The Daily Star  | English

BNP doing politics over Khaleda Zia’s illness: Quader

Awami League General Secretary Obaidul Quader today said BNP leaders are doing politics over the illness of party chief Khaleda Zia

9m ago