তেজগাঁও শিল্পাঞ্চলে গণস্বাস্থ্যের বিনা মূল্যে ভ্রাম্যমাণ চিকিৎসা সহায়তা

রাজধানীর নিম্ন ও সল্প আয়ের মানুষদের নিয়মিত বিনা মূল্যে চিকিৎসা সেবা ও খাদ্য সহায়তা দিয়ে যাচ্ছে গণস্বাস্থ্য কেন্দ্র। এ কর্মসূচির অংশ হিসাবে আজ বৃহস্পতিবার রাজধানীর তেজগাঁও, তেজতুরী বাজার ও শিল্পাঞ্চলে ভ্রাম্যমাণ চিকিৎসা সহায়তা পরিচালনা করে গণস্বাস্থ্য কেন্দ্র।
রিকশা ও ভ্যানচালক, ফেরিওয়ালা, ফুটপাতের ছোট দোকানদাররা এসময় চিকিৎসা সুবিধা পান। ছবি: সংগৃহীত

রাজধানীর নিম্ন ও সল্প আয়ের মানুষদের নিয়মিত বিনা মূল্যে চিকিৎসা সেবা ও খাদ্য সহায়তা দিয়ে যাচ্ছে গণস্বাস্থ্য কেন্দ্র। এ কর্মসূচির অংশ হিসাবে আজ বৃহস্পতিবার রাজধানীর তেজগাঁও, তেজতুরী বাজার ও শিল্পাঞ্চলে ভ্রাম্যমাণ চিকিৎসা সহায়তা পরিচালনা করে গণস্বাস্থ্য কেন্দ্র।

রিকশা ও ভ্যানচালক, ফেরিওয়ালা, ফুটপাতের ছোট দোকানদাররা এসময় চিকিৎসা সুবিধা পান। সকাল ১০টা থেকে শুরু হয়ে ভ্রাম্যমাণ চিকিৎসা সেবা চলে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত।

এ কর্মসূচি সমন্বয় করেন গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের গণমাধ্যম উপদেষ্টা জাহাঙ্গীর আলম মিন্টু। চিকিৎসা সেবা প্রদান করেন গণস্বাস্থ্যের ভ্রাম্যমাণ চিকিৎসা সেবা’র প্রধান সমন্বয়কারী অধ্যাপক ডা. শওকত আরমান, শিশু বিশেষজ্ঞ ডা. কামাল আহমেদ, স্বাস্থ্যকর্মী রাসেল, রুহুল আমিন, আঁখি, কেয়া, মৌসুমী, স্বর্ণালী এবং লিজা প্রমুখ।

গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের মিডিয়া উপদেষ্টা জাহাঙ্গীর আলম মিন্টু বলেন, ‘রিকশাচালক, ভ্যানচালক, হকার ও ফুটপাতের স্বল্প আয়ের যারা গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রে “গণ স্বাস্থ্যবীমা” করেছেন, তাদের এলাকায় গিয়ে সপ্তাহে একদিন বিনা মূল্যে অভিজ্ঞ ডাক্তারগণ চিকিৎসা সেবা প্রদান করবেন। যাদের গণস্বাস্থ্য বীমা নেই, তারা মাত্র ২০ টাকা ডাক্তারের চিকিৎসা ফি দিয়ে চিকিৎসা সেবা নিতে পারবেন।’

গণস্বাস্থ্যের ‘গণ স্বাস্থ্যবীমা’ বাংলাদেশের চিকিৎসা অঙ্গনে একটি যুগান্তকারী মাইলফলক উল্লেখ করে জাহাঙ্গীর আলম মিন্টু বলেন, ‘যেসব স্বল্প আয়ের মানুষ পরিবার নিয়ে কষ্টে জীবনযাপন করছেন, সেসব পরিবার মাসে মাত্র ২০০ টাকা চাঁদার মাধ্যমে গণস্বাস্থ্য কর্তৃক সম্পূর্ণ স্বাস্থ্যসেবা পাবেন। তাদের জন্য সাপ্তাহিক সহনীয় স্বল্প টাকার কিস্তিতে সোলার বিদ্যুৎচালিত রিকশা ও ভ্যান গাড়ি বিতরণ করা হবে।’

তিনি বলেন, ‘গত ২৫ মে গণস্বাস্থ্য নগর হাসপাতালে এই কর্মসূচি উদ্বোধনকালে গণস্বাস্থ্যের ট্রাস্টি ও প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী

তার বক্তব্যে বলেন, রিকশাচালক, ভ্যানচালক, ফেরিওয়ালা ও ফুটপাতের দোকানদারদের ছেলে-মেয়েদের বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশুনার ব্যবস্থা করব।’

গণস্বাস্থ্য ঢাকা কেন্দ্রে ২০ হাজার স্বল্প আয়ের মানুষের মধ্যে বিশেষ গণ স্বাস্থ্যবীমা ও খাদ্য সহায়তা কর্মসূচি বাস্তবায়ন করবে বলেও জানান জাহাঙ্গীর আলম মিন্টু।

কলেজ ছাত্রদের সামাজিক সংগঠন ‘খুশির ঠিকানা’র সহযোগিতায় এই কর্মসূচি বাস্তবায়ন করা হয়। এসময় উপস্থিত ছিলেন খুশির ঠিকানার উপদেষ্টা শেখ রুনা এবং সংগঠনের নাইম আহসান (সহন), নাইম তালুকদার, শাহাজালাল সিয়াম, রাফি বানি, কে এম ইলমুন, ইসলাম আলভী প্রমুখ।

Comments