শীর্ষ খবর
উদ্বোধন করলেন মুখ্য সচিব কবি কামাল চৌধুরী

কলকাতায় বাংলাদেশি বইয়ের স্থায়ী বিক্রয় কেন্দ্রের যাত্রা শুরু

কলকাতার পাঠক এবার তাঁদের শহরের বই-পাড়া নামে খ্যাত কলেজ স্ট্রিটে বাংলাদেশের বইয়ের স্থায়ী বিক্রয় কেন্দ্র পেলেন। বাংলাদেশের পাঠক সমাবেশ এবং ভারতের প্লাটিনাম পাবলিশার্স যৌথভাবে বিক্রয় কেন্দ্রটি পরিচালনা করবে।
Books sale center Kolkata
১৬ নভেম্বর, ২০১৭ কলকাতার কলেজ স্ট্রিটে ফিতা কেটে বাংলাদেশি বইয়ের স্থায়ী দোকানের উদ্বোধন করেন বাংলাদেশ সরকারের মুখ্য সচিব ড. কামাল আব্দুল নাসের চৌধুরী (মাঝে)। ছবি: স্টার

কলকাতার পাঠক এবার তাঁদের শহরের বই-পাড়া নামে খ্যাত কলেজ স্ট্রিটে বাংলাদেশের বইয়ের স্থায়ী বিক্রয় কেন্দ্র পেলেন। বাংলাদেশের পাঠক সমাবেশ এবং ভারতের প্লাটিনাম পাবলিশার্স যৌথভাবে বিক্রয় কেন্দ্রটি পরিচালনা করবে।

আজ (১৬ নভেম্বর) দুপুরে ফিতা কেটে বাংলাদেশি বইয়ের স্থায়ী এই দোকানের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন বাংলাদেশ সরকারের মুখ্য সচিব ড. কামাল আব্দুল নাসের চৌধুরী, যিনি পরিচিত কবি কামাল চৌধুরী নামেও।

এসময় তাঁর সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন কলকাতার বাংলাদেশ উপ-দূতাবাসের ডেপুটি হাইকমিশনার তৌফিক হাসান, কলকাতা বইমেলার সম্পাদক ত্রিদিব চট্টোপাধ্যায়, গিল্ডের সভাপতি সুধাংশু দে, বাংলাদেশ জ্ঞান ও সৃজনশীল প্রকাশক সমিতির সভাপতি মাজহারুল ইসলাম এবং পাঠক সমাবেশের কর্ণধার শহিদুল ইসলাম বিজু।

অনুষ্ঠানে সংক্ষিপ্ত বক্তব্য দিতে গিয়ে উদ্বোধক কামাল চৌধুরী বলেন, “কলকাতায় আমাদের বইয়ের চাহিদা রয়েছে। কিন্তু, বাংলাদেশের বই এখানে ঠিকভাবে পাওয়া যায় না। যদিও বাংলাদেশের প্রকাশকরা আপ্রাণ চেষ্টা করছেন এখানে বইমেলা করে আমাদের দেশের ঐতিহ্য-সংস্কৃতিকে পরিচিত করতে। লেখক, শিল্পী-সাহিত্যিকদের পরিচয়ের অন্যতম মাধ্যম বইমেলা।”

এ ক্ষেত্রে বাংলাদেশ সরকারের ইতিবাচক আগ্রহের কারণও ব্যাখ্যা করেন তিনি। মুখ্য সচিব বলেন, “বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিজেও একজন লেখক, তিনিও চান বাংলাদেশের লেখা, শিল্প-সাহিত্যকে শুধু বাংলাদেশে নয় সারা বিশ্বে ছড়িয়ে দিতে। আমরা সে লক্ষ্য নিয়েই এই ধরণের বেসরকারি উদ্যোগকে স্বাগত জানাচ্ছি এবং সহযোগিতা করছি।”

আপাতত বাংলাদেশের স্থায়ী এই বইয়ের দোকানে এক হাজার শিরোনামে বই পাওয়া যাবে। আস্তে আস্তে বইয়ের সংখ্যা আরো বাড়বে, দ্য ডেইলি স্টারকে জানালেন স্টল কর্মকর্তা পিন্টু ঘোষ।

কলেজ স্ট্রিট মার্কেটের বিপরীতে সন্তোষ মিষ্টান্ন ভাণ্ডারের গলির ৩১/১ কলেজ রো-তে বাংলাদেশি বইয়ের স্থায়ী দোকানের উদ্বোধনের পরই দেখা গিয়েছে লম্বা লাইন। রবিবার ছাড়া সপ্তাহের বাকি দিন অফিস সময়ে খোলা থাকবে এই দোকান।

Comments

The Daily Star  | English

Ushering Baishakh with mishty

Most Dhakaites have a sweet tooth. We just cannot do without a sweet end to our meals, be it licking your fingers on Kashmiri mango achar, tomato chutney, or slurping up the daal (lentil soup) mixed with sweet, jujube and tamarind pickle.

1h ago