খেলা

‘আমাদের সম্ভাবনাই অনেক বেশি’

ত্রিদেশীয় সিরিজ জিততে জোর প্রস্তুতি চলছে বাংলাদেশের। ঘরের মাঠে কাপ রেখে দিতে আত্মবিশ্বাসী ক্রিকেটাররা। মাশরাফি, তামিমের পর সাকিবও শ্রীলঙ্কা, জিম্বাবুয়ের তুলনায় নিজেদের সম্ভাবনাই দেখছেন অনেক বেশি।
ত্রিদেশীয় সিরিজ
বৃহস্পতিবার অনুশীলন শেষে কোচিং স্টাফদের সঙ্গে আলাপ করছেন টেকনিক্যাল ডিরেক্টর খালেদ মাহমুদ। ছবি: একুশ তাপাদার

ত্রিদেশীয় সিরিজ জিততে জোর প্রস্তুতি চলছে বাংলাদেশের। ঘরের মাঠে কাপ রেখে দিতে আত্মবিশ্বাসী ক্রিকেটাররা। মাশরাফি, তামিমের পর সাকিবও শ্রীলঙ্কা, জিম্বাবুয়ের তুলনায় নিজেদের সম্ভাবনাই দেখছেন অনেক বেশি।

বৃহস্পতিবার শেরে বাংলা স্টেডিয়ামের দুই সেন্টার উইকেটে অনুশীলন করেছে বাংলাদেশ দল। ম্যাচ আবহে ব্যাটসম্যান আর বোলাররা ঝালিয়ে নিয়েছেন নিজেদের।

ত্রিদেশীয় সিরিজে বাংলাদেশের দুই প্রতিপক্ষ শ্রীলঙ্কা আর জিম্বাবুয়েরও চেনা এই কন্ডিশন। তবু ওয়ানডের সহ-অধিনায়ক সাকিব আল হাসান পরিণত দল হওয়ায় পাল্লা ভারি বাংলাদেশের,  ‘দুইটা দলই আমাদের খেলোয়াড় এবং কন্ডিশন সম্পর্কে ভালো জানে তাই আমার মনে কঠিন প্রতিদ্বন্দ্বিতাই হবে। তবে যেহেতু আমরা অনেক ভালো একটা দলে পরিণত এখন তাই আমাদের ভালো করার সম্ভাবনাই অনেক বেশি।’

বিসিবি প্রধান নাজমুল হাসান দুই অধিনায়ক মাশরাফি মর্তুজা ও সাকিব আল হাসানের গুরুত্ব বোঝাতে বলেছিলেন, এবার তারাই কোচ। সাকিব অবশ্য ব্যাপারটা দেখছেন আট-দশটা সিরিজের মতই, ‘আসলে এগুলো নিয়ে কেউ খুব বেশি চিন্তা করে বলে মনে হয় না। আমাদের সবারই আলাদা আলাদা রোল আছে। আর সবাই সবার রোল সম্পর্কে খুবই ভালোভাবে অবগত । ওই রোল গুলোই সবাই প্লে করার চেষ্টা করবে।’

মধ্য জানুয়ারিতে দিবারাত্রীর ওয়ানডে ম্যাচে কুয়াশার কারণে টস হতে পারে বড় ফ্যাক্টর। তবে সাকিবের নজর কেবল মাঠের ক্রিকেটে, ‘আসলে এখন বলা মুশফিল। পিচ কেমন হবে, আবহাওয়া কেমন থাকবে এসব আসলে চিন্তার বিষয় হওয়া উচিৎ না। যেটা হবে দুই দলের জন্য একই থাকবে। সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ যেটা ভালো খেলতে হবে। ভালো খেললে প্রতিপক্ষ যেই থাক, কিংবা যে সুবিধাই পাক আসলে আমাদের সঙ্গে পারাটা কষ্ট হবে।’

দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে সব ফরম্যাটেই নাজেহাল হয়েছে বাংলাদেশ। তবুও এবার ঘরের মাঠে দলে খুব বেশি পরিবর্তনের আভাস নেই। ওই ঘুরেফিরে দুএকটা জায়গা নিয়ে চলছে হিসেব নিকেশ, ‘দল নির্বাচনের আগ পর্যন্ত এই আলোচনা প্রতিদিনই হতে থাকে। একটা দুইটা জায়গা নিয়ে সবসময়ই আলোচনা হতে থাকে। দল নির্বাচনের আগ পর্যন্ত এটা চলতেই থাকবে।’

Comments

The Daily Star  | English
Impact of poverty on child marriages in Rasulpur

The child brides of Rasulpur

As Meem tended to the child, a group of girls around her age strolled past the yard.

14h ago