চোরের ভূমিকায় শাবনূর!

প্রায় পাঁচ বছর পর দর্শকদের সামনে আসছেন ঢালিউডের জনপ্রিয় নায়িকা শাবনূর। তিনি আসছেন ‘পাগল মানুষ’ নামের একটি ছবির মাধ্যমে।
Shabnoor
অভিনেত্রী শাবনূর। ছবি: সংগৃহীত

প্রায় পাঁচ বছর পর দর্শকদের সামনে আসছেন ঢালিউডের জনপ্রিয় নায়িকা শাবনূর। তিনি আসছেন ‘পাগল মানুষ’ নামের একটি ছবির মাধ্যমে। আগামী ১২ জানুয়ারি ছবিটি মুক্তি পাবে সারাদেশে। গত ২০১২ সালে ছবিটির কাজ শুরু করেছিলেন পরিচালক এম এম সরকার। হঠাৎ মারা যান তিনি। তাঁর বাকি কাজ শেষ করেন পরিচালক বদিউল আলম খোকন। ‘পাগল মানুষ’ মুক্তির আগে ছবিটিসহ বিভিন্ন বিষয়ে কথা বললেন শাবনূর। সঙ্গে ছিলেন- জাহিদ আকবর

 

স্টার অনলাইন: ‘পাগল মানুষ’ ছবিটির শুটিং ২০১২ সালে শুরু হয়েছিল। এখন ২০১৮ সাল। অবশেষে মুক্তি পাচ্ছে ছবিটি। কীভাবে দেখছেন বিষয়টিকে?

শাবনূর: বিষয়টি অনেক আনন্দদায়ক এ কারণে যে, অবশেষে ছবিটি মুক্তি পাচ্ছে। কিন্তু দুঃখের বিষয় হলো পরিচালক এখন আমাদের পাশে নেই। তিনি মারা গেছেন। আমাকে তিনি অনেক ভালোবাসতেন, পছন্দ করতেন। একটি জমজমাট গল্পের ছবি হলো ‘পাগল মানুষ’। দর্শকদের হলে আসতে হবে। তারা হলে না এলে কীভাবে হবে। সবাইকে অনুরোধ করছি হলে আসার জন্য।

স্টার অনলাইন: সিনেমায় শাবনূরের অগণিত ভক্ত রয়েছে। তাঁর একটি ছবি মুক্তি পাচ্ছে দীর্ঘদিন পর। তবে তাঁর ভক্তরা কি মুখিয়ে রয়েছে ছবিটি দেখার জন্যে?

শাবনূর: আমার ভক্তরা যাঁরা অনেকদিন হলে আসেন না তাঁদেরকে অনুরোধ করবো ছবিটি দেখার জন্য। কেননা, ২০১৩ সালে আমার শেষ ছবি ‘কিছু আশা কিছু ভালোবাসা’ মুক্তি পেয়েছিলো।

স্টার অনলাইন: ‘পাগল মানুষ’ ছবিটি দর্শকরা দেখবেন কেনো?

শাবনূর: তাঁরা এটি দেখবেন কারণ আমি সবসময় ভিন্ন ধরনের গল্পে অভিনয় করেছি। এটিও সে রকম একটি ছবি। এর পরিচালক সবসময় ভালো গল্পের ছবি বানিয়েছেন। ছবিটি তৈরির শেষের পথে পরিচালক মারা যান। ছবিটি নিয়ে আমি আশাবাদী।

স্টার অনলাইন: ‘পাগল মানুষ’ তৈরির কাজ অনেক আগে শুরু হয়েছে কিন্তু মুক্তি পাচ্ছে এখন। কোন প্রভাব পড়বে কি সিনেমাটিতে? এর কোন ছন্দপতন হয়েছে কি?

শাবনূর:  আমি কিন্তু একবারেই আমার পুরো কাজটা শেষ করেছি। পরে কী হয়েছে তা জানি না। ছবিটিকে বাড়ানো হয়েছে না কমানো হয়েছে বলতে পারি না।

স্টার অনলাইন: আপনি এটি কি হলে গিয়ে দেখবেন?

শাবনূর: অবশ্যই আমি হলে গিয়ে ছবিটি দেখবো। আমি শুধু নিজের অভিনীত ছবি দেখি না। অন্যদের ছবিও হলে গিয়ে দেখি। বড় পর্দায় ছবি দেখার মজাই আলাদা।

স্টার অনলাইন: ছবিতে নিজের চরিত্র সম্পর্কে একটু জানতে চাই।

শাবনূর: এই চলচ্চিত্রে একজন চোরের ভুমিকায় দেখা যাবে আমাকে। যে কী না সীমান্ত এলাকায় কাপড়সহ অনেককিছু চুরি করে। এর জন্য নানানরকম ফন্দি করে। বাকিটা পর্দায় দেখতে হবে।

স্টার অনলাইন: আপনি ছবি পরিচালনা করবেন এমন কথা শোনা গিয়েছিলো। বিষয়টি কতো দূর?

শাবনূর: অবশ্যই পরিচালনা করবো। ফুল যখন ফুটবে তখন সবাই তা দেখতে পাবেন। এর সুবাস সবাই পাবেন। শুধু পরিচালনা নয়, বছরখানেক পরে ছবি প্রযোজনার সঙ্গেও নিজেকে জড়াবো। আমার ইচ্ছার পুরণ অবশ্যই করবো।

স্টার অনলাইন: ছোটপর্দায় কিছু করার পরিকল্পনা রয়েছে কি?

শাবনূর:  ছোট পর্দায় কাজ করার এখন কোন পরিকল্পনা নেই। কখনো যদি কাজ করি তবে নিজেই প্রযোজনা করে কিছু একটা করবো। তবে কেউ কি বড় জায়গা থেকে ছোট জায়গায় যেতে চান? তাই বলছি, আপাতত এ নিয়ে তেমন কোন ইচ্ছে নাই।

স্টার অনলাইন: অনেকেই বলছেন ২০১৮ সালে আমাদের চলচ্চিত্র ঘুরে দাঁড়াবে। আপনার কী অভিমত?

শাবনূর: চলচ্চিত্রে ঘুরে দাঁড়ানোর কিছু নেই। ভালো কাজ করলে ভালো ফল পাবেন, মন্দ কাজ করলে মন্দ ফল। এটি সবখানেই। পরীক্ষায় ভালো লিখলে ফলাফল ভালো হবে। কিছু না লিখলে গোল্লা পাবেন। চলচ্চিত্র সবসময় ভালো ছিলো। ভালো কাজ হলে অবশ্যই এর মোড় ঘুরবে।

Comments

The Daily Star  | English

Lifts at public hospitals: Horror abounds

Shipon Mia (not his real name) fears for his life throughout the hours he works as a liftman at a building of Sir Salimullah Medical College, commonly known as Mitford hospital, in the capital

2h ago