সেঞ্চুরি দিয়ে ছন্দে ফিরলেন মোসাদ্দেক

চোখের ইনফেকশনে ছিটকে পড়েছিলেন জাতীয় দল থেকে। সুস্থ হয়ে বিপিএলে ফিরলেও ফিরে পাননি ছন্দ। মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত ছন্দটা পেলেন বিসিএলে। পূর্বাঞ্চলের বিপক্ষে দক্ষিণাঞ্চলের হয়ে হাঁকিয়েছেন সেঞ্চুরিল।
মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত
ফাইল ছবি

চোখের ইনফেকশনে ছিটকে পড়েছিলেন জাতীয় দল থেকে। সুস্থ হয়ে বিপিএলে ফিরলেও ফিরে পাননি ছন্দ। মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত ছন্দটা পেলেন বিসিএলে। পূর্বাঞ্চলের বিপক্ষে দক্ষিণাঞ্চলের হয়ে হাঁকিয়েছেন সেঞ্চুরিল। আরও এক সেঞ্চুরি করেছেন অভিজ্ঞ তুষার ইমরানও। তাতে পূর্বাঞ্চলের রান পাহাড়ের ভালোই জবাব দিচ্ছে দক্ষিণাঞ্চল। 

বৃহস্পতিবার বিকেএসপিতে পূর্বাঞ্চলের ৫৪৬ রানের জবাবে ৫ উইকেটে ৩১৮ রান তুলে তৃতীয় দিন শেষ করেছে দক্ষিণাঞ্চল।

তাদের ইনিংসের শুরুটা অবশ্য এত সমস্যাসঙ্কুল। ৫৯ রানে তিন উইকেট হারিয়ে দিশেহারা দলকে পথ দেখান তুষার ও মোসাদ্দেক। চতুর্থ উইকেটে তাদের ২১৮ রানের জুটিতে গতি পায় দক্ষিণের ইনিংস। অলক কাপালীর বলে বোল্ড হওয়ার আগে তুষার করেন ১০৫ রান। প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে এটি তার ২৫তম সেঞ্চুরি। বাংলাদেশের প্রথম কোন ব্যাটসম্যান হিসেবে ১০ হাজার রানে পৌঁছাতে তুষারের দরকার আর মাত্র ৩৫ রান। 

তুষারের পর বেশিক্ষণ টেকেননি মোসাদ্দেকও। কিন্তু তার আগেই সেঞ্চুরি তুলে নেন এই ডানহাতি ব্যাটসম্যান। ১১০ রান করে সোহাগ গাজীর বলে আউট হয়েছেন তিনি। দিনের বাকিটা সময় আর কোন বিপর্যয় হতে দেননি আল-আমিন জুনিয়র আর নুরুল হাসান সোহান। 

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

ইসলামি ব্যাঙ্ক পূর্বাঞ্চল: প্রথম ইনিংস ৫৪৬ 

প্রাইম ব্যাঙ্ক দক্ষিণাঞ্চল: প্রথম ইনিংস ৩১৮/৫ (তৃতীয় দিন শেষে) (মোসাদ্দেক ১১০, তুষার ১০৫, আল-আমিন ১৭*, নুরুল ব্যাটিং ১৩* ; গাজী ৩/৬৫) 

Comments