সামনের আট-দশ বছর লিটন অনেক কিছু দিবে: মুশফিক

টেস্টে মুশফিকুর রহিমের কাছ থেকে উইকেটরক্ষকের ভার কমিয়ে দেওয়া হয়েছে লিটন দাসকে। উইকেটের পেছনে বরাবরই তুখোড় লিটন। সম্প্রতি ব্যাট হাতেও রাখছেন অবদান। তরুণ এই উইকেটকিপার ব্যাটসম্যানের উপর অগাধ আস্থা মুশফিকের।
Mushfiqur Rahim
ফাইল ছবি: ফিরোজ আহমেদ

টেস্টে মুশফিকুর রহিমের কাছ থেকে উইকেটরক্ষকের ভার কমিয়ে দেওয়া হয়েছে লিটন দাসকে। উইকেটের পেছনে বরাবরই তুখোড় লিটন। সম্প্রতি ব্যাট হাতেও রাখছেন অবদান। তরুণ এই উইকেটকিপার ব্যাটসম্যানের উপর অগাধ আস্থা মুশফিকের।

টেস্টে দলের সেরা ব্যাটসম্যানদের একজন হওয়ায় তার উপর থেকে কিপিংয়ের ভার কমিয়ে দেয় টিম ম্যানেজম্যান্ট। মুশফিকের নিজের অবশ্য উইকেট কিপিংটা বরাবরই উপভোগ্য,

‘আমি সব সময়ই এনজয় করি। কিপিং করলে পিছন থেকে সব কিছু বোঝা যায়। প্রথম ইনিংসে ব্যাটিং না করলে, আগেই উইকেট বোঝা যায়। সে দিক থেকে বলবো হ্যাঁ, একটু নতুনত্ব আছে। আমি এটা নিয়ে খুশি।’

মুশফিকের জায়গায় উইকেট কিপিং করা লিটনের উইকেটের পেছনের দক্ষতা প্রশংসিত। সম্প্রতি ব্যাট হাতেও ভরসা যোগাচ্ছেন। দক্ষিণ আফ্রিকায় দলের বিপর্যয়ে ৭০ রানের ইনিংসের পর চট্টগ্রাম টেস্ট বাঁচাতে শেষ দিনে মুমিনুল হকের সঙ্গে গড়েন ১৮০ রানের জুটি। সেঞ্চুরি থেকে ছয় রান দূরে আউট হন তিনি, 

‘লিটন ব্যাটিং ভালো করছে। কিপিংও ভালো হচ্ছে। আমি মনে করি, ইনশাল্লাহ— সামনের আট দশ বছর সে বাংলাদেশ ক্রিকেটকে অনেক কিছু দিবে।’

চট্টগ্রাম টেস্টের প্রথম ইনিংসে পাঁচশোর বেশি রান করেও এক পর্যায়ে ব্যাকফুটে চলে গিয়েছিল বাংলাদেশ। সেখান থেকে ড্র করতে পারাও ইতিবাচক মনে করছেন মুশফিক,

‘শেষ টেস্ট থেকে আমরা অনেক ইতিবাচক দিক নিয়ে আসতে পেরেছি।  আমাদের অতীত পরিসংখ্যানে বেশ কিছু টেস্ট আমরা এই পজিশন থেকে হেরেছি।  এটা আমাদের অনেক বড় প্রাপ্তি, আমরা টেস্ট ম্যাচটি ড্র করেছি। এটা আমাদের খুবই দরকার ছিল। এখানে লিটন ও মুমিনুলের জুটিটা অসাধারণ ছিল। আমি মনে করি চট্টগ্রামের টেস্টের পর টিম আরও বেশি উৎসাহ পাবে।’

Comments

The Daily Star  | English

Create right conditions for Rohingya repatriation: G7

Foreign ministers from the Group of Seven (G7) countries have stressed the need to create conditions for the voluntary, safe, dignified, and sustainable return of all Rohingya refugees and displaced persons to Myanmar

3h ago