খেলা

শুরুতেই ৩ উইকেট হারিয়ে চাপে বাংলাদেশ

প্রথম সেশন থেকেই উইকেটে টার্ন আর বাউন্স। বল ঘুরছে লাটিমের মতো। চার বছর পর দলে ফেরার আব্দুর রাজ্জাকের জন্য মঞ্চটা এরচেয়ে ভালো হতে পারত না

শ্রীলঙ্কাকে ২২২ রানে গুটিয়ে দিয়েও স্বস্তিতে নেই বাংলাদেশ। ব্যাট করতে নেমেই পড়েছে ৩ উইকেট। প্রথম ওভারে বোলার সুরাঙ্গা লাকমালের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফেরত যান তামিম ইকবাল। খানিক পর ফেরেন আগের টেস্টে জোড়া সেঞ্চুরি করা মুমিনুল। বেশ দৃষ্টিকটূভাবে রান আউট হয়েছেন মুমিনুল। ইমরুল কায়েসের ঠেলে দেওয়া বল থেকে রান নিতে গিয়ে খুব আলসে ভঙ্গিতে ক্রিজে ঢুকছিলেন তিনি। চতুর লঙ্কান ফিল্ডাররা স্টাম্প ভেঙ্গে বিদায় করে দেন তাকে। ৪ রানেই ২ উইকেট হারায় বাংলাদেশ। চারে নামা মুশফিকও ব্যার্থ। লাকমালের বলে বল ছেড়ে দিয়ে বোল্ড হয়েছেন তিনি। ১২ রানেই ৩ উইকেট হারিয়ে ভীষণ চাপে বাংলাদেশ।  



রাজ্জাক-তাইজুলের তোপে ২২২ রানে অল আউট শ্রীলঙ্কা 

আব্দুর রাজ্জাক ও তাইজুল ইসলামের ঘূর্ণিতে ঢাকা টেস্টের আড়াই সেশনেই শ্রীলঙ্কাকে ২২২ রানে অল আউট করে দিয়েছে বাংলাদেশ। রাজ্জাক ৬৩ রানে ৪ ও তাইজুল ৮৩ রানে নেন ৪ উইকেট। বাকি দুই উইকেট গেছে মোস্তাফিজুর রহমানের পকেটে। শ্রীলঙ্কানদের হয়ে আসে দুই ফিফটি। ওপেনার কুশল মেন্ডিস ৬৮ রান করে আউট হওয়ার পর শেষ ব্যাটসম্যান হিসেবে ৫৬ রান করে আউট হন রোশান সিলভা। 



চা-বিরতির ঠিক আগে আকিলা ধনঞ্জয়াকে আউট করেছেন মোস্তাফিজুর রহমান। তার কাটারে ভড়কে গিয়ে কাভারে ক্যাচ দেন আকিলা। লাফিয়ে পড়ে দারুণ মুন্সিয়ানায় তা হাতে জমান মুশফিকুর রহিম। শ্রীলঙ্কা ৮ উইকেটে ২০৫ রান নিয়ে চা-বিরতিতে। 



প্রতিরোধ ভাঙলেন তাইজুল

১১০ রানে ৬ উইকেট পড়ার পর দিলরুয়ান পেরেরাকে নিয়ে প্রতিরোধ গড়েছিলেন রোশান সিলভা। সপ্তম উইকেটে তাদের ৫২ রানের জুটি ভাঙেন তাইজুল ইসলাম। 

৫৫ বলে ৩২ রান করা দিলরুয়ান তাইজুলের বলে ইনসাইড এজ হয়ে সিলি পয়েন্টে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন। তিনি অবশ্য ফিরতে পারতেন আরও আগেই। ১৮ রানে মোস্তাফিজের বলে তার দেওয়া ক্যাচ স্লিপে ফেলে দেন সাব্বির রহমান। 

১৬২ রানে ৭ উইকেট হারিয়েছে শ্রীলঙ্কা।

Abdur Razzak
রাজ্জাক- তাইজুল ঘূর্ণিতে কাঁপছে শ্রীলঙ্কা 

লাঞ্চের পর খেয়েদেয়ে যেন আরও সিনাটান আব্দুর রাজ্জাকের। শ্রীলঙ্কার হয়ে প্রথম সেশন কেবল রান করে যাচ্ছিলেন কুশল মেন্ডিস। ফিফটি করে এগুচ্ছিলেন আরও বিপদজনক গতিতে। ৬৮ রান করা মেন্ডিস ফিরেছেন রাজ্জাকের দারুণ এক ডেলিভারিতে। অফ স্টাম্পের বাইরে পিচ করে একটু টার্ন করে বল আঘাত হাতে মেন্ডিসের অফ স্টাম্পে। 

পরের ওভারে এসেই তাইজুল ইসলামের লো হয়ে যাওয়া বলে বোল্ড নিরোশান ডিকভেলা। মাত্র ১১১ রানেই ৬ উইকেট নাই শ্রীলঙ্কার। 



প্রথম সেশন রাজ্জাকের

প্রথম সেশন থেকেই উইকেটে টার্ন আর বাউন্স। বল ঘুরছে লাটিমের মতো। চার বছর পর দলে ফেরার আব্দুর রাজ্জাকের জন্য মঞ্চটা এরচেয়ে ভালো হতে পারত না। উইকেটের সুবিধা দারুণ কাজে লাগিয়ে প্রথম সেশনেই ৩ উইকেট তুলে নিয়েছেন রাজ্জাক। ৪ উইকেটে ১০৫ রান তুলে লাঞ্চে গেছে টস জিতে ব্যাটিং নেওয়া শ্রীলঙ্কা।

দিনের দ্বিতীয় ওভারেই বল হাতে পান রাজ্জাক। সাফল্য আনতেও সময় নেননি। ১৪ রানেই আঘাত হানেন। ওপেনার দিমুথ কুরনারত্নকে বুদ্ধিদীপ্ত বলে লাইন মিস করে স্টাম্পিং বানান। ৫ ওভারের প্রথম স্পেলে ওই একটাই সাফল্য।

দ্বিতীয় স্পেলে ফিরে প্রথম দুই বল থেকেই দুই উইকেট। আগ্রাসী দানুশকা গুনাথিলাকা তার বলে মিড অফে ক্যাচ দিয়ে ফেরার পর লঙ্কান অধিনায়ক দিনেশ চান্দিমালকে দারুণ এক বলে বোল্ড করে দেন রাজ্জাক। প্রথম স্পেলে ৭ ওভার বল করে ২৪ রানে ৩ উইকেট পেলেন তিনি।

উইকেটে ভাষা পড়ে দ্রুত রান তুলার মতিগতি নিয়ে নেমেছে শ্রীলঙ্কাও। আগের ম্যাচে প্রায় ডাবল সেঞ্চুরি পাওয়া কুশল মেন্ডিস অপরাজিত আছেন ৬৪ রানে। 

রাজ্জাকের পর পর উইকেট 



দ্বিতীয় স্পেলে ফিরেই দানুশকা গুনাথিলেকাকে মুশফিকুর রহিমের দারুণ ক্যাচে পরিনত করেন রাজ্জাক। আগ্রাসী গুনাথিলেকা রাজ্জাককে মিড অফ দিয়ে উড়াতে গিয়ে ধরা পড়েন মুশফিকের হাতে। পরের বলে দুর্দান্ত এক ডেলিভারিতে দিনেশ চান্দিমালকে বোকা বানান রাজ্জাক। শ্রীলঙ্কা অধিনায়ক প্রথম বলেই বোল্ড হয়ে ফেরত যান। হ্যাটট্রিকের সুযোগ তৈরি করা রাজ্জাকের আঘাতে ৯৬ রানে চার উইকেট হারায় শ্রীলঙ্কা 



বিপদজনক ধনঞ্জয়াকে ফেরালেন তাইজুল

১৪ রানে প্রথম উইকেট হারানোর পর নেমে আগ্রাসী শুরু করেছিলেন আগের ম্যাচের সেঞ্চুরিয়ান ধনঞ্জয়া ডি সিলভা। দিচ্ছিলেন বড় কিছুর আভাস। মেহেদী হাসান মিরাজের জায়গায় বল করতে এসে শুরুতে এলোমেলো ছিলেন তাইজুল। খানিক পর পান ছন্দ। তার দারুণ এক ডেলিভারিতে কুপোকাত ধনঞ্জয়া। টার্ন ও বাউন্সে ভড়কে যাওয়া ধনঞ্জয়া সাব্বিরের হাতে ক্যাচ দেন স্লিপে। ৬১ রানে দ্বিতীয় উইকেট হারায় শ্রীলঙ্কা।

রাজ্জাকের আঘাত

চার বছর পর দলে ফেরা শুরুটা দারুণ হলো আব্দুর রাজ্জাকের। লঙ্কান ওপেনার দিমুথ করুনারত্নকে ফিরিয়ে দিয়েছেন তিনি। রাজ্জাককে এগিয়ে এসে মারতে গিয়ে লাইন মিস করে স্টাম্পিং হয়েছেন আগের ম্যাচেও রান না পাওয়া করুনারত্নে। 



বোলিংয়ে বাংলাদেশ, একাদশে রাজ্জাক-সাব্বির

চট্টগ্রামে টস জিতেছিল বাংলাদেশ, ঢাকায় জিতল শ্রীলঙ্কা। অনুমিতভাবেই টস জিতে ব্যাট করছে সফরকারীরা। চার বছর পর টেস্টে প্রত্যাবর্তন হয়েছে বাঁহাতি স্পিনার আব্দুর রাজ্জাকের। প্রথম টেস্টের দলে না থাকা সাব্বির রহমানও ফিরেছেন একাদশে।

সানজামুল ইসলামের জায়গায় বাংলাদেশ একাদশে একটা পরিবর্তন নিশ্চিতই ছিল। মোসাদ্দেক হোসেন সৈকতের জায়গায় সাব্বিরকে খেলানোয় বদল হয়েছে দুটি। এছাড়া বাংলাদেশ খেলছে একই কম্বিনেশন নিয়ে। তিন বিশেষজ্ঞ স্পিনারের সঙ্গে পেসার কেবল মোস্তাফিজুর রহমান।

লঙ্কান একাদশেও বদল দুটি। অভিষেক হয়েছে অফ স্পিনার আকিলা ধনঞ্জয়ার। লাকসান সান্দাকানের জায়গায় নেমেছেন তিনি। পেসার লাহিরু কুমারাকে বসিয়ে ব্যাটসম্যান দানুশকা গুনাথিলেকাকে খেলাচ্ছে শ্রীলঙ্কা।

বাংলাদেশ দল: তামিম ইকবাল, লিটন দাস, ইমরুল কায়েস, মুমিনুল হক, মুশফিকুর রহিম, মাহমুদউল্লাহ, সাব্বির রহমান, মেহেদী হাসান মিরাজ, তাইজুল ইসলাম, মুস্তাফিজুর রহমান, আবদুর রাজ্জাক।

শ্রীলঙ্কা দল: দিমুথ করুনারত্নে, ধনঞ্জয়া ডি সিলভা, কুসল মেন্ডিস, দিনেশ চান্দিমাল, রোশেন সিলভা, নিরোশান ডিকভেলা, দিলরুয়ান পেরেরা, রঙ্গনা হেরাথ, সুরঙ্গা লাকমল, আকিলা ধনঞ্জয়া, দানুশকা গুনাথিলাকা।

Comments

The Daily Star  | English

This was BNP-Jamaat's bid to destroy economy: PM

Prime Minister Sheikh Hasina today said she had an apprehension that the BNP-Jamaat nexus might unleash destructive activities across the country to cripple the country's economy after they failed to foil the last national election

21m ago