‘চেয়েছি দলকে ভালো কিছু দিতে’

লিটনকে ওপেন করতে নামানো বাম-ডান কম্বিনেশন ভেবে। আর সেই ভাবনা পুরোপুরি কাজে লাগিয়ে লিটন তুলেন ঝড়।
Liton Das
১৯ বলে ৪৩ রানের ঝড় তুলে সুরটা বেধে দেন লিটন দাস। ছবি: এএফপি

তামিম ইকবালের সঙ্গে লিটন দাসকে ওপেন করতে দেখে অনেকেরই চোখ কপালে উঠেছিল। সবচেয়ে ভড়কে গিয়েছিল শ্রীলঙ্কানরা। যদিও ঘরোয়া ক্রিকেটে নিয়মিতই ওপেন করে থাকেন লিটন। লিটনকে ওপেন করতে নামানো বাম-ডান কম্বিনেশন ভেবে। আর সেই ভাবনা পুরোপুরি কাজে লাগিয়ে লিটন তুলেন ঝড়।

ম্যাচ শেষেই অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ জানান, লঙ্কান অফ স্পিনার আকিলা ধনঞ্জয়াকে সামলাতে ডানহাতি লিটনকে পাঠানো হয়। লিটন নিজে জানান দল এই পরিকল্পনা করে রেখেছিলো একদিন আগে, ‘আমি আগের দিনই জানতাম যে আমি ওপেন করব। ওপেন করা আমার জন্য নতুন কিছু নয়। জাতীয় দলে হয়ত খুব একা সুযোগ পাইনি ওপেন করার। তবে আমি অভ্যস্তই ওপেনিংয়ে। জানতাম কিভাবে ব্যাট করতে হবে। সেভাবেই চেষ্টা করেছি।’

তামিমের সঙ্গে প্রথমবার টি-টোয়েন্টিতে ওপেন করতে নামা লিটনের ব্যাটে ছিল রাজসিক নান্দনিকতা। অনিন্দ্য সুন্দর ফ্লিক, দারুণ সব লফটেড ড্রাইভে মাতোয়ারা করে ফেলেন লিটন। খেলেন ১৯ বলে ৪৩ রানের ইনিংস। যাতে ২ চারের সঙ্গে আছে ইনিংস সর্বোচ্চ ৫টি ছক্কা। পাওয়ার প্লেতেই বাংলাদেশ পেয়ে যায় ৭৪ রান। সবচেয়ে বড়া কথা পেয়ে যায় ২১৫ রান টপকে জয়ের ভীত, এই ভীতে দাঁড়িয়েই মুশফিকুর রহিম খেলেন ৩৫ বলে ৭২ রানের ইনিংস। লিটন বললেন কেবল দলের চাহিদা পূরণের কথা ভেবেই নাকি খেলেছেন অমন। আউট না হলে গড়তে পারতেন আরও বড় কোন কীর্তি। সে নিয়েও আক্ষেপ ঝরল তার কণ্ঠে, ‘তামিম ভাইয়ের সঙ্গে আমার কথা হয়েছিল যে পাওয়ার প্লে কাজে লাগাতে হবে। সফল যে হবই, তা তো বলা যায় না। চেয়েছি দলকে ভালো কিছু দিতে। হয়তো আমি আরও বেশি সময় থাকলে জেতাটা আরও সহজ হতো। ভুল করেছি। তার পরও জিতেছে দল, এটাই বড় কথা।’

 

Comments

The Daily Star  | English

Trade at centre stage between Dhaka, Doha

Looking to diversify trade and investments in a changed geopolitical atmosphere, Qatar and Bangladesh yesterday signed 10 deals, including agreements on cooperation on ports, and overseas employment and welfare.

3h ago