রোনালদোর ঝলকে জুভেন্টাসকে গুঁড়িয়ে দিল রিয়াল

জুভেন্টাসের ঘরের মাঠে গিয়ে অনিন্দ্য সুন্দর ফুটবলের পসরা সাজিয়ে বসলেন ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। গোল করলেন দুটি, করালেন আরেকটি। চ্যাম্পিয়ন্স লিগের কোয়ার্টার ফাইনালের প্রথম লেগে জুভেন্টাসকে দাঁড়াতেই দিল না রিয়াল মাদ্রিদ।
Ronaldo
বাইসাইকেল কিকে গোল দিলেন রোনালদো।

জুভেন্টাসের ঘরের মাঠে গিয়ে অনিন্দ্য সুন্দর ফুটবলের পসরা সাজিয়ে বসলেন ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। গোল করলেন দুটি, করালেন আরেকটি। চ্যাম্পিয়ন্স লিগের কোয়ার্টার ফাইনালের প্রথম লেগে জুভেন্টাসকে দাঁড়াতেই দিল না রিয়াল মাদ্রিদ।

মঙ্গলবার ৩-০ গোলের জয়ে সেমিফাইনালে এক পা দিয়েই রাখল রিয়াল। ফিরতে লেগে জুভদের কাজটা হয়ে গেল প্রায় অসম্ভব। পুরো ম্যাচ জুড়ে রোনালদোর পায়ের জাদুতে মোহিত জুভেন্টাসের দর্শকরাও দাঁড়িয়ে অভিবাদন জানিয়েছেন।

জুভেন্টাসের আলিয়েন্স স্টেডিয়ামের খেলার শুরুতেই সাফল্য রিয়ালের। তিন মিনিটের সময় স্বাগতিকদের জালে বল পাঠান রোনালদো। বা দিক থেকে মার্সেলোর বাড়ানো ক্রস দারুণ দক্ষতায় ঠোকা মেরে জিয়ানলুইজো বুফনকে ফাঁকি দেন রোনালদো।

প্রথমার্ধে গোল ওই একটিই। দ্বিতীয়ার্ধে ফিরে আরও ধারালো রিয়ালের আক্রমণ। ব্যতিব্যস্ত জুভেন্টাস ডিফেন্স পরাস্ত হলে তটস্থ বুফনে বাধা পাচ্ছিল রিয়াল। ৬৩ মিনিটে গিয়ে সে বাধাও থাকেনি। দানি কারভাহালের ক্রস থেকে চোখ ধাঁধানো এক বাইসাইকেল কিকে দলের ও নিজের দ্বিতীয় গোল করেন রোনালদো। এই গোলের পর প্রতিপক্ষের ভরা গ্যালারীও মুগ্ধতায় দাঁড়িয়ে সম্মান জানায় রোনালদোকে। প্রতিউত্তর দিয়েছেন সময়ের এই সেরা ফুটবলারও। এই নিয়ে প্রথম খেলোয়াড় হিসেবে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে টানা ১০ ম্যাচে গোল করার কৃতিত্ব দেখালেন তিনি। 

এক মিনিট পর জুভেন্টাসের মরার উপর খাড়ায় ঘাঁ। কারভাহালকে বাজে ফাউল করে দ্বিতীয় হলুদ কার্ড দেখে মাঠ ছাড়েন পাওলো দিবালা। ১০ জনের জুভেন্টাস বাকিটা সময় ছিল আরও অসহায়। এর মিনিট সাতেক পর বা প্রান্ত দিয়ে নিজেদের মধ্যে বল দেওয়া নেওয়া করে বক্সে ঢুকে যান মার্সেলো আর রোনালদো। রোনালদোর  পাস ধরে বুফনকে পরাস্ত করে বল জালে পাঠান ব্রাজিলিয়ান মার্সেলো।

Ronaldo
দর্শকদের অভিনন্দনের জবাব দিচ্ছেন রোনালদো (ফাইল ছবি)
হ্যাটট্রিকের সামনে থাকা রোনালদো পরে হারিয়েছেন আরও দুই সুযোগ। ৮৯ মিনিটে তার জোরালো শট ঠেকিয়ে দেন বুফন। যোগ করা সময়ে গোলকিপারের সামনে ফাঁকায় বল পেয়েছিলেন তিনি। কিন্তু তার নেওয়া শট চলে যায় বারের অনেক উপর দিয়ে।

এর এক মিনিট পর গাঞ্জালো হিগুয়েইনের শট প্রতিহত করেন রিয়ালের গোলকিপার। খেলার প্রথমার্ধেও একাধিক সুযোগ নষ্ট করেছেন এই আর্জেন্টাইন স্ট্রাইকার।

১২ এপ্রিল ফিরতি লেগে রিয়লের মাঠ সান্তিয়াগো বার্নাবুতে খেলতে যাবে জুভেন্টাস। নাটকীয় কিছু না হলে এবারও চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষে চারে উঠা  রিয়াল মাদ্রিদের জন্য কেবল সময়ের ব্যাপার।

Comments