হত্যার উদ্দেশ্যে হামলা হয়েছে: ঢাবি উপাচার্য

​ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য মোহাম্মদ আখতারুজ্জামান বলেছেন, গত রাতে তার বাসভবনে হামলা ও ভাঙচুরের সাথে কোটা সংস্কার আন্দোলনের কোনো সম্পর্ক নেই। তাকে হত্যার উদ্দেশ্যে হামলা চালানো হয়েছিল।
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের বাসভবনে হামলা
শিক্ষার্থীদের সাথে পুলিশের সংঘর্ষের এক পর্যায়ে গত রাতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের বাসভবনের ফটক ভেঙে ভেতরে ঢুকে ভাঙচুর চালানো হয়। ছবি: প্রবীর দাশ

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য মোহাম্মদ আখতারুজ্জামান বলেছেন, গত রাতে তার বাসভবনে হামলা ও ভাঙচুরের সাথে কোটা সংস্কার আন্দোলনের কোনো সম্পর্ক নেই। তাকে হত্যার উদ্দেশ্যে হামলা চালানো হয়েছিল।

আজ সোমবার সকাল পৌনে ১০টার দিকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে উপাচার্যের কার্যালয়ে প্রেস ব্রিফিংয়ে এসব কথা বলেন তিনি।

প্রথম আলোর খবরে জানানো হয়, উপাচার্য বলেন, “আমি উদ্যোগ নিয়ে শিক্ষার্থীদের কোটার বিষয়টি সরকারের উচ্চপর্যায়ে আলোচনার ব্যবস্থা করেছি। শিক্ষার্থীদের বক্তব্য তাঁদের জানানো হয়েছে। এরপরও আমার বাসায় তাণ্ডব পরিচালিত হয়েছে।”

তিনি আরও বলেন, “শিক্ষার্থীদের বক্তব্য সরকারকে জানানো হয়েছে। এরপরও আমার বাসায় তাণ্ডব পরিচালিত হয়েছে। এটি ভাষায় প্রকাশ করার মতো নয়। সেখানে আমার পরিবার ছিল। তাদের জীবন ঝুঁকিতে ছিল। সবাইকে মেরে ফেলার চেষ্টা ছিল।” এসময় শিক্ষার্থীরাই তাকে রক্ষা করেছেন বলে যোগ করেন তিনি।

সরকারি চাকরিতে বিদ্যমান কোটা সংস্কারের দাবিতে দুপুর আড়াইটা থেকে আন্দোলনকারী সাধারণ শিক্ষার্থীরা প্রায় পাঁচ ঘণ্টা শাহবাগ অবরোধ করে রাখার পর একশনে নামে পুলিশ। সন্ধ্যা থেকে গভীর রাত পর্যন্ত আন্দোলনকারীদের লক্ষ্য করে শত শত টিয়ার শেল ও রাবার বুলেট ছোড়ে পুলিশ। জলকামান থেকে গরম পানিও ছিটানো হয়। ছাত্ররা বিক্ষিপ্তভাবে পুলিশকে প্রতিরোধের চেষ্টা করে।

রাত পৌনে ২টার দিকে ছাত্ররা ফটক ভেঙে উপাচার্যের বাসভবনে ঢুকে পড়েন। এসময় তারা উপাচার্যের কাছে জানতে চায় ক্যাম্পাসে গুলি কেন?, পুলিশ কেন? এক পর্যায়ে ছাত্ররা বাসভবনের ভেতরে ঢুকে ভাঙচুর করে ও তিনটি গাড়িতে আগুন ধরিয়ে দেন বলে প্রত্যক্ষদর্শী ও ফায়ার সার্ভিস সূত্রে গেছে।

Comments

The Daily Star  | English

Create right conditions for Rohingya repatriation: G7

Foreign ministers from the Group of Seven (G7) countries have stressed the need to create conditions for the voluntary, safe, dignified, and sustainable return of all Rohingya refugees and displaced persons to Myanmar

6h ago