শীর্ষ খবর

নারায়ণগঞ্জে ১৩০ ফুট উঁচু বিদ্যুতের টাওয়ারে যুবক, ৭ ঘণ্টা পর উদ্ধার

এক লাখ ৩২ হাজার ভোল্টের ১৩০ ফুট উঁচু বৈদ্যুতিক টাওয়ার। তার নিচে মানুষের ভিড়। সবার চোখ ওপরের দিকে বিদ্যুতের টাওয়ারে। আর টাওয়ারের চূড়ায় বসে আছে এক যুবক। চিৎকার করে নিচ থেকে লোকজন তাকে নেমে আসার অনুরোধ করছে। কিন্তু কে শোনে কথা!
১৩০ ফুট উঁচু বিদ্যুতের টাওয়ারে যুবক
নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ উপজেলা কাঁচপুর বাসস্ট্যান্ড এলাকায় ১৩০ ফুট উঁচু বিদ্যুৎ সঞ্চালন লাইনের টাওয়ারে চড়ে বসেছিলেন জাকির। ছবি: সংগৃহীত

এক লাখ ৩২ হাজার ভোল্টের ১৩০ ফুট উঁচু বৈদ্যুতিক টাওয়ার। তার নিচে মানুষের ভিড়। সবার চোখ ওপরের দিকে বিদ্যুতের টাওয়ারে। আর টাওয়ারের চূড়ায় বসে আছে এক যুবক। চিৎকার করে নিচ থেকে লোকজন তাকে নেমে আসার অনুরোধ করছে। কিন্তু কে শোনে কথা! খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিস ও বিদ্যুতের বিভাগের কর্মীরা সেখানে যায়। তারা প্রায় ৬ ঘণ্টা ধরে চেষ্টা চালিয়ে অক্ষত অবস্থায় ওই যুবককে নিচে নামিয়ে আনেন।

শুক্রবার বিকেলে নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ উপজেলা কাঁচপুর বাসস্ট্যান্ড এলাকায় ওই ঘটনা ঘটে। ওই যুবকের নাম জাকির (২৫)। স্থানীয়দের দাবি সে মানসিক ভারসাম্যহীন (পাগল)। তাকে কাঁচপুর এলাকার রাস্তার পাশে প্রায়ই ঘুমন্ত অবস্থায় দেখা যায়।

প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাত দিয়ে ঘটনাস্থলে যাওয়া সোনারগাঁ থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) ফয়সাল আহমেদ জানান, জাকির হোসেন (২৫) নামের ওই যুবক মানসিক ভারসাম্যহীন। স্থানীয়রা বেলা ১১টার দিকে জাকিরকে ওই টাওয়ারে ওঠাতে দেখে। উঠতে উঠতে টাওয়ারের চূড়ায় উঠে যায় সে। ১২টার দিকে ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা আসেন। এসময় তারা হ্যান্ড মাইকের মাধ্যমে টাওয়ার থেকে নেমে আসার আহ্বান জানালেও তিনি নামেনি। তাকে বিভিন্ন ধরনের প্রলোভন দেখালেও কর্ণপাত করেনি। পরে তাকে ওই টাওয়ার থেকে নামাতে তাসলিমা নামের আরে এক মানসিক ভারসাম্যহীন নারীকে ডেকে আনা হয়। তাসলিমাও হ্যান্ড মাইকের মাধ্যমে জাকিরকে ডেকে টাওয়ার থেকে নেমে আসার জন্য একাধিকবার অনুরোধ করে। কিন্তু কারো কথাতেই কর্ণপাত করেনি জাকির।

তিনি আরও জানান, স্থানীয় বিদ্যুৎ কার্যালয়ে জানালো হলে ওই টাওয়ারের বিদ্যুৎ সঞ্চালন বন্ধ করে দেওয়া হয়। বিকাল ৪টায় বিদ্যুৎ বিভাগের তিন কর্মী গিয়ে দুই ঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে সন্ধ্যা ৬টায় জাকিরকে নামিয়ে আনেন।

নারায়ণগঞ্জ ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের উপ সহকারী পরিচালক মামুনুর রশিদ জানান, জাকির সম্পূর্ণ সুস্থ। নিচে নামিয়ে আনার পর কিছু না বলেই সে চলে যায়।

তিনি আরও বলেন, নারায়ণগঞ্জে এ নিয়ে কয়েকবার এ ধরনের ঘটনা ঘটল। এর পুনরাবৃত্তি বন্ধ করতে বেষ্ঠনী দিয়ে টাওয়ারে ওঠার পথ বন্ধ করে দেওয়া দরকার। তা না হলে বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটতে পারে।

ডিপিডিসির হরিপুর জোনের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. ফাহিম তানভীর জানান, ১৩০ ফুট উচ্চতাবিশিষ্ট বৈদ্যুতিক টাওয়ার দিয়ে ১ লাখ ৩২ হাজার ক্ষমতাসম্পন্ন ভোল্টের বিদ্যুৎ সঞ্চালন করা হচ্ছে। খবর পেয়ে টাওয়ারে বিদ্যুৎ সঞ্চালন বন্ধ রাখা হয়েছিল। ওই পাগল কীভাবে উঠলো সেটা বুঝতে পারছি না।’

প্রসঙ্গত ২০১৬ সালের ৫ ফেব্রুয়ারি ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জে শিমরাইল মোড়ে বাসস্ট্যান্ড এলাকায় ২ লাখ ৩০ হাজার ভোল্টের সঞ্চালন লাইনের ১৩৩ ফুট উঁচু বৈদ্যুতিক টাওয়ারে পারুল আক্তার (২২) নামের মানসিক ভারসাম্যহীন নারী উঠে পড়েছিল। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা সোয়া দুই ঘণ্টা পর পারুলকে টাওয়ার থেকে অচেতন অবস্থায় নামিয়ে আনেন। এর আগে ২০১০ সালের ৬ এপ্রিল আয়েশা আক্তার তমা নামে এক তরুণী সিদ্ধিরগঞ্জের কদমতলী নাভা-ভুঁইয়া এলাকার আরেকটি সঞ্চালন লাইনের ১২০ ফুট উঁচু বৈদ্যুতিক টাওয়ারে উঠে পড়ে। তাকেও ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা ছয় ঘণ্টা পর নামিয়ে আনেন।

Comments