[ভিডিও] থাইল্যান্ডে খুদে ফুটবলারদের উদ্ধারকাজে ১ ডুবুরি নিহত

থাইল্যান্ডের উত্তরে চিয়াং রাই প্রদেশে একটি বিপদসংকুল গুহায় বেড়াতে এসে আটকে পড়া ১২ খুদে ফুটবলার ও তাদের কোচকে উদ্ধার করার জন্যে অভিযান চালাতে গিয়ে এক ডুবুরির মৃত্যু হয়েছে। চলতি বর্ষায় সেখানে ব্যাপক বৃষ্টিপাতের কারণে উদ্ধার কাজ বাধাপ্রাপ্ত হচ্ছে।
Thai children stuck in cave
থাইল্যান্ডের উত্তরে চিয়াং রাই প্রদেশের বিপদসংকুল থাম লুয়াং গুহায় বেড়াতে গিয়ে আটকা পড়া ১২ খুদে ফুটবলার ও তাদের কোচ। ছবি: সংগৃহীত

থাইল্যান্ডের উত্তরে চিয়াং রাই প্রদেশে একটি বিপদসংকুল গুহায় বেড়াতে এসে আটকে পড়া ১২ খুদে ফুটবলার ও তাদের কোচকে উদ্ধার করার জন্যে অভিযান চালাতে গিয়ে এক ডুবুরির মৃত্যু হয়েছে। চলতি বর্ষায় সেখানে ব্যাপক বৃষ্টিপাতের কারণে উদ্ধার কাজ বাধাপ্রাপ্ত হচ্ছে।

দেশটির নৌবাহিনীর চৌকস এসইএএল-এর এক সাবেক সদস্য সামারন পুনন যিনি চিয়াং রাইয়ের থাম লুয়াং গুহায় উদ্ধার অভিযানে ছিলেন গতরাতে (৫ জুলাই) তিনি গুহার ভেতর অক্সিজেনের সিলিন্ডার রেখে আসার পর মারা যান।

এসইএএল ইউনিটের পক্ষ থেকে আজ (৬ জুলাই) সাংবাদিকদের বলা হয়, “গুহার ভেতরের অবস্থা খুবই খারাপ।” ইউনিটের একজন কর্মকর্তা আপাকরন জানান, “সামারন অক্সিজেনের সিলিন্ডারটি গুহার মুখে রেখে ফিরে আসার সময় অচেতন হয়ে পড়েন। তার সঙ্গে যিনি ছিলেন তিনি প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়ার চেষ্টা করেন। কিন্তু, সামারন কোনো সাড়া দিচ্ছিলেন না।”

সামারনের জীবন বৃথা যেতে দেওয়া হবে না বলে উল্লেখ করে তিনি বলেন, “আমরা উদ্ধার কাজ চালিয়ে যাবো।”

তবে একজন উদ্ধারকর্মীর মৃত্যুর খবরে স্বেচ্ছাসেবিরা বেশ বিমর্ষ হয়ে পড়েন।

Thai Cave
থাইল্যান্ডের উত্তরে চিয়াং রাই প্রদেশের বিপদসংকুল থাম লুয়াং গুহার প্রাফিক্স। ছবি: সংগৃহীত

চিয়াং রাইয়ের গভর্নর নারংসাক অসত্তানাকোরন জানান যে উদ্ধারকারীরা পাঁচ কিলোমিটার দীর্ঘ অক্সিজেনের পাইপলাইন স্থাপনের চেষ্টা করছেন। তিনি আশা করেন, ছেলেরা শিগগিরই ফিরে আসবে।

সাংবাদিকদের নারংসাক বলেন, “আপনারা দেখছেন যে আমরা উদ্ধারকারীদের সংখ্যা বাড়িয়েছি। আমরা গুহাটি অক্সিজেন দিয়ে ভরে দিবো।”

আরও পড়ুন: থাইল্যান্ডে গুহায় আটকে পড়া খুদে ফুটবলারদের উদ্ধারে লাগতে পারে কয়েক মাস

আন্তর্জাতিক উদ্ধারকর্মীরা শিশুদের বের করে আনার বিষয়ে বিকল্পপথের চিন্তা করছেন। আগামী সপ্তাহ থেকে থাইল্যান্ডে বর্ষা মওসুম পুরোপুরি শুরু হওয়ার আগেই আটকদের উদ্ধারের বিষয়টিও ভাবা হচ্ছে। তা না হলে উদ্ধারকাজ ব্যাহত হবে বলেও আশঙ্কা করেন তারা।

নারংসাক বলেন, “আমরা বেশ কয়েকটি বিকল্প ব্যবস্থা নেওয়ার কথা ভাবছি। এর মধ্যে, যেটি সুবিধাজনক হবে আমরা সেটিই গ্রহণ করবো।”

Comments

The Daily Star  | English

PM visits areas devastated by Cyclone Remal

Prime Minister Sheikh Hasina today visited the most affected areas in the country's south by Cyclone Remal

24m ago