পেনাল্টির সিদ্ধান্ত নিয়ে নাখোশ ক্রোয়েশিয়া কোচ

আত্মঘাতী গোলে পিছিয়ে পড়লেও ইভান পেরিসিচের গোলে ভালোভাবেই ম্যাচে ফিরে এসেছিল ক্রোয়েশিয়া। কিন্তু প্রথমার্ধের শেষ দিকে ভিএআরের সাহায্য নিয়ে ওই পেরিসিচের বিপক্ষেই হ্যান্ডবলের কারণে পেনাল্টির বাঁশি বাজান রেফারি, যেটি থেকে গোল করে দলকে এগিয়ে নেন গ্রিজম্যান। আর এই পেনাল্টির সিদ্ধান্ত নিয়েই খুশি হতে পারেননি ক্রোয়েশিয়ান কোচ জলাতকো ডালিচ।
ক্রোয়েশিয়া কোচ জলাতকো দালিচ
ক্রোয়েশিয়া কোচ জলাতকো দালিচ।

আত্মঘাতী গোলে পিছিয়ে পড়লেও ইভান পেরিসিচের গোলে ভালোভাবেই ম্যাচে ফিরে এসেছিল ক্রোয়েশিয়া। কিন্তু প্রথমার্ধের শেষ দিকে ভিএআরের সাহায্য নিয়ে ওই পেরিসিচের বিপক্ষেই হ্যান্ডবলের কারণে পেনাল্টির বাঁশি বাজান রেফারি, যেটি থেকে গোল করে দলকে এগিয়ে নেন গ্রিজম্যান। আর এই পেনাল্টির সিদ্ধান্ত নিয়েই খুশি হতে পারেননি ক্রোয়েশিয়ান কোচ জলাতকো ডালিচ।

ম্যাচ শেষে বিজয়ী ফ্রান্সকে ডালিচ অভিনন্দন জানিয়েছেন ঠিকই, কিন্তু সাথে পেনাল্টির সিদ্ধান্ত নিয়ে নিজের অসন্তোষও ব্যক্ত করেছেন, ‘আমরা ভালোই খেলছিলাম, কিন্তু ওই পেনাল্টির সিদ্ধান্তটা আমাদের জন্য পরিস্থিতিকে কঠিন করে দিয়েছিল। ওই সিদ্ধান্তের পর আমাদের ফিরে আসাটা কঠিন হয়ে পড়েছিল।’  

আরও পড়ুন ঃ ফ্রান্স কোথায়, বিশ্বকাপ তো জিতল আফ্রিকা!

তবে আর্জেন্টাইন রেফারি নেস্তর পিতানাকে সরাসরি দোষারোপ না করলেও নিজের অসন্তুষ্টি গোপন করেননি ৫১ বছর বয়সী ক্রোয়াট কোচ, ‘পেনাল্টির বিষয়ে শুধু আমি একটা কথাই বলব, বিশ্বকাপ ফাইনালের মতো মঞ্চে আপনি এরকম সিদ্ধান্ত দিতে পারেন না।’

তবে ফাইনালে জিততে না পারলেও মাথা উঁচু করেই বিদায় নিচ্ছে ক্রোয়েশিয়া, এমনটাই বলছেন গোল্ডেন বল জয়ী ক্রোয়েশিয়া অধিনায়ক লুকা মদ্রিচ, ‘আমাদের কোন আফসোস নেই, কারণ ম্যাচের বেশিরভাগ সময় আমরাই ভালো খেলেছি। কিন্তু দুর্ভাগ্যবশত দুটো গোল খেয়েছি আমরা। শিরোপা জিতে ফ্রান্স উৎসব করবে ঠিকই, তবে আমরাও আমাদের মাথা উঁচু রাখতে পারি। আবেগটা একটু নিয়ন্ত্রণে আসলে পরে আমরা আরও পরিষ্কারভাবে বিশ্লেষণ করতে বসব।’

আরও পড়ুন ঃ গোলে শট না নিয়েই বিশ্বকাপ জেতার অংশ

Comments