ঢাকা-রাজশাহী মহাসড়কে অবরোধ, রাবিতে শিক্ষকদের মিছিল

ঢাকার জিগাতলায় শিক্ষার্থীদের ওপর ছাত্রলীগ ও পুলিশের হামলার প্রতিবাদ ও নিরাপদ সড়কের দাবিতে ঢাকা-রাজশাহী মহাসড়ক অবরোধ করে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় (রাবি) ও রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (রুয়েট) কয়েকশো শিক্ষার্থী। পাশাপাশি শনিবারের হামলার প্রতিবাদে ক্যাম্পাসে মৌন মিছিল করেছেন রাবি শিক্ষকরা।
নিরাপদ সড়কের দাবিতে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের ওপর নিপীড়নের প্রতিবাদে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষকদের মৌন মিছিল। ছবি: আরাফাত রহমান

ঢাকার জিগাতলায় শিক্ষার্থীদের ওপর ছাত্রলীগ ও পুলিশের হামলার প্রতিবাদ ও নিরাপদ সড়কের দাবিতে ঢাকা-রাজশাহী মহাসড়ক অবরোধ করে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় (রাবি) ও রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (রুয়েট) কয়েকশো শিক্ষার্থী। পাশাপাশি শনিবারের হামলার প্রতিবাদে ক্যাম্পাসে মৌন মিছিল করেছেন রাবি শিক্ষকরা।

দেশজুড়ে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের সঙ্গে সংহতি জানিয়ে ও নিরাপদ সড়কের দাবিতে আজ রোববার সকাল ১১টার দিকে তালাইমারি মোড়ে জড়ো হয়ে রাস্তা অবরোধ করেন শিক্ষার্থীরা। ঘটনাস্থলে উপস্থিত দ্য ডেইলি স্টারের স্টাফ করেসপন্ডেন্ট জানান, অবরোধ চলাকালে শুধুমাত্র এম্বুলেন্স ও জরুরি যানবাহনকে ছেড়ে দেন শিক্ষার্থীরা।

অন্যদিকে সকালে ক্যাম্পাসে মানববন্ধন করেন রাবি শিক্ষার্থীরা। এসময় ছাত্র আন্দোলনে সংহতি জানিয়ে ‘নিপীড়নের বিরুদ্ধে শিক্ষকবৃন্দ’ ব্যানারে শিক্ষকদের একটি মৌন মিছিল ক্যাম্পাস প্রদক্ষিণ করে। গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের শিক্ষক সেলিম রেজা নিউটন, কাজী মামুন হায়দার, আব্দুল্লাহ আল মামুন, ইংরেজি বিভাগের আবাদুল্লাহ আল মামুন, বাংলা বিভাগের সৌভিক রেজা ও নাট্যকলা বিভাগের কাজী সুসমিন আফসানা মিছিলে উপস্থিত ছিলেন। বিভিন্ন বিভাগের শতাধিক শিক্ষার্থীও মিছিলে ছিলেন।

শিক্ষার্থী নিপীড়নের প্রতিবাদ ও নিরাপদ সড়কের দাবিতে তালাইমারি মোড়ে রাবি ও রুয়েট শিক্ষার্থীদের অবরোধ। ছবি: আনোয়ার আলী

গত ২৯ জুলাই থেকে ঢাকায় ছাত্র বিক্ষোভ শুরু হওয়ার পর এ নিয়ে রাজশাহীতে তৃতীয় দিনের মতো বিক্ষোভ দেখাল ছাত্ররা।

Comments

The Daily Star  | English

Over 37 lakh people affected due to Cyclone Remal: minister

At least 37,58,096 people in 19 districts of the coastal region of the country have been affected by Cyclone Remal, State Minister for Disaster Management and Relief Mohibbur Rahman said today

38m ago