ইভিএম বিতর্ক: বৈঠক থেকে বেরিয়ে গেলেন নির্বাচন কমিশনার মাহবুব

আগামী জাতীয় নির্বাচনে ইলেক্ট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) ব্যবহারের বিরোধিতা করেছেন একজন নির্বাচন কমিশনার। তিনি বলেছেন, এই এক কারণেই জাতীয় নির্বাচন বিতর্কিত হয়ে পড়তে পারে। ‘নোট অব ডিসেন্ট’ দিয়ে আজ নির্বাচন কমিশনের বৈঠক থেকে বেরিয়ে যান মাহবুব তালুকদার।
 সিটি করপোরেশন নির্বাচন
ফাইল ছবি

আগামী জাতীয় নির্বাচনে ইলেক্ট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) ব্যবহারের বিরোধিতা করেছেন একজন নির্বাচন কমিশনার। তিনি বলেছেন, এই এক কারণেই জাতীয় নির্বাচন বিতর্কিত হয়ে পড়তে পারে। ‘নোট অব ডিসেন্ট’ দিয়ে আজ নির্বাচন কমিশনের বৈঠক থেকে বেরিয়ে যান মাহবুব তালুকদার।

জাতীয় নির্বাচনে ইভিএম ব্যবহার করতে হলে গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশ (আরপিও) পরিবর্তন করতে হবে। এ নিয়েই আজ আগারগাঁওয়ে নির্বাচন ভবনে বৈঠক ছিল। নিজের ভিন্নমতের কথা লিখিতভাবে জানিয়ে দিয়ে বৈঠক থেকে বেরিয়ে যান তিনি।

গত মঙ্গলবার নির্বাচন কমিশন থেকে জানানো হয়, সারাদেশে ৩০০ আসনের মধ্যে ১০০ আসনে ইভিএম ব্যবহারের পরিকল্পনা করছেন তারা। কমিশনের সচিব হেলালউদ্দিন আহমেদ ইভিএম ব্যবহারে ইসির এই পরিকল্পনার কথা জানান।

জাতীয় নির্বাচনে ইভিএম ব্যবহার নিয়ে তীব্র আপত্তি রয়েছে বিএনপিসহ সরকারের বাইরে থাকা বেশিরভাগ রাজনৈতিক দলের। ইসির সঙ্গে সংলাপসহ বাইরের বিভিন্ন আলোচনায় ইভিএমের বিরুদ্ধে তাদের অবস্থানের কথাও তুলে ধরেছেন।

অন্যদিকে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগসহ সরকারের শরিক পাঁচটি দল এর পক্ষে রয়েছে।

নির্বাচন ভবনে আজ সকাল ১১টা ১০মিনিটে প্রধান নির্বাচন কমিশনার কেএম নুরুল হুদার সভাপতিত্বে বৈঠকটি শুরু হয়। এর ২০ মিনিটের মাথায় নোট অব ডিসেন্ট দিয়ে নিজের অবস্থান পরিষ্কার করেন কমিশনার মাহবুব তালুকদার। তার নোট অব ডিসেন্টের একটি কপি দ্য ডেইলি স্টারের হাতে এসেছে। এতে তিনি বলেছেন, আরপিও সংশোধনের যে উদ্যোগ নির্বাচন কমিশন নিয়েছে তার সঙ্গে তিনি দ্বিমত পোষণ করছেন।

তিনি আরও লিখেছেন, প্রযুক্তি ব্যবহারের বিরোধী নন তিনি। কিন্তু এই প্রযুক্তি ব্যবহার করাতে দুদিক থেকে ঘাটতি রয়েছে। প্রথমমত এই প্রযুক্তি ব্যবহারের উপযোগী জনবলের ঘাটতি রয়েছে। দ্বিতীয়ত, জনগণও এর ওপর আস্থাহীন।

আরপিও সংশোধন নিয়ে নির্বাচন কমিশনের সভা তিনটা পর্যন্ত মুলতবি রাখা হয়েছে।

Comments

The Daily Star  | English

Armed BCL men attack protesters at DMCH emergency dept

Clashes broke out between Bangladesh Chhatra League activists and students protesting the quota system in government jobs today at the Dhaka University campus. Over 50 students were injured in the violence that started around 3:00pm

33m ago