খেলা

যেভাবে ইমরুলের সঙ্গে লেপটে গেল ‘পটু’ নাম

জাতীয় দলে অনেকেরই একটা করে ডাক নাম থাকে। ইমরুল কায়েসের ক্ষেত্রে সেটা হচ্ছে ‘পটু’। দল থেকে বারবার বাদ পড়েন, লড়াই করে আবার ফিরেও আসেন। তিনি কি তাহলে ফিরে আসার ‘পটু’। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ১৪৪ রানের ম্যাচ জেতানো ইনিংসের পর নিজের সঙ্গে লেপটে যাওয়া ‘পটু’ নামের পেছনের গল্প শোনালেন ইমরুল নিজেই।

জাতীয় দলে অনেকেরই একটা করে ডাক নাম থাকে। ইমরুল কায়েসের ক্ষেত্রে সেটা হচ্ছে ‘পটু’। দল থেকে বারবার বাদ পড়েন, লড়াই করে আবার ফিরেও আসেন। তিনি কি তাহলে ফিরে আসার ‘পটু’। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ১৪৪ রানের ম্যাচ জেতানো ইনিংসের পর নিজের সঙ্গে লেপটে যাওয়া ‘পটু’ নামের পেছনের গল্প শোনালেন ইমরুল নিজেই।

ইমরুলকে প্রায়ই অনেকে বাতিলের খাতায় ফেলে দেন। যখনই মনে করা হয় তাকে দিয়ে আর হচ্ছে না। তখনই কোন এক লড়াইয়ে জিতে টিকে যান তিনি। এই যে বারবার ফিরে আসা, এই কারণেই কি তিনি ‘পটু’। এই সাংবাদিকের এমন প্রশ্নের জবাবে এই ওপেনার জানালেন, এই নামটা তারই ছিল না, ‘পটু নামটা আসলে ভিক্টোরিয়ার (ভিক্টোরিয়া স্পোর্টিং ক্লাব) একজন অফিসিয়াল ছিল। আমাদের এক ক্রিকেটারকে আমি ডাকতাম এই নামটা বলে। ওই নামটা আমার দিকে কনভার্ট হয়ে গেছে। আমি জানি না কিভাবে আমার কাছে আসলো।(হাসি)’

যেভাবেই আসুক ‘পটু’ নামটা ইমরুলের সঙ্গে এবার মাননসই করে নেওয়া যায়। পটু মানে তো পারদর্শী। ব্যাটিংয়ের ধরনে খুব একটা জৌলুস নেই, চলনবলনেও সাদামাটা। তবে ব্যাট হাতে ফেরার গল্প লিখে তো তিনি ‘পটুই’।

 

 

Comments