ক্রিকেট

জাতীয় লিগে জিতেছে রংপুর-ঢাকা মেট্রো

জাতীয় ক্রিকেট লিগের তৃতীয় দিনে এসে নিষ্পত্তি হয়েছে দুটি ম্যাচের। প্রথম স্তরের ম্যাচে ঢাকা বিভাগকে ৩ উইকেটে হারিয়েছে রংপুর বিভাগ। আর দ্বিতীয় স্তরের ম্যাচ সিলেট বিভাগকে ৪ উইকেটে হারিয়েছে ঢাকা মেট্রো।

জাতীয় ক্রিকেট লিগের তৃতীয় দিনে এসে নিষ্পত্তি হয়েছে দুটি ম্যাচের। প্রথম স্তরের ম্যাচে ঢাকা বিভাগকে ৩ উইকেটে হারিয়েছে রংপুর বিভাগ। আর দ্বিতীয় স্তরের ম্যাচ সিলেট বিভাগকে ৪ উইকেটে হারিয়েছে ঢাকা মেট্রো।

বগুড়ার শহীদ চান্দু স্টেডিয়ামে ঢাকার দেওয়া ২১১ রানের লক্ষ্যে ব্যাটিংয়ে নেমে আগের দিনই ৩ উইকেটে ৯৮ রান করেছিল রংপুর। এদিন আরও চারটি উইকেট হারিয়ে লক্ষ্যে পৌঁছায় দলটি। সোহরাওয়ার্দী শুভ ৭২ রান করেন। আকবর আলী অপরাজিত থাকেন ৪০ রানে। নাসির হোসেনের ব্যাট থেকে আসে ২৬ রান। ঢাকার হয়ে সালাহউদ্দিন শাকিল ৩টি ও হোসেন আলী ২টি উইকেট পান।

সাভারের বিকেএসপিতে খুলনার দেওয়া ২০০ রানের লক্ষ্যে আগের দিন ২ উইকেটে ৪৮ রান করেছিল মেট্রো। এদিন আরও চারটি উইকেট হারিয়ে জয় নিশ্চিত করতে দলটি। যদিও দলীয় ১০০ রানের মধ্যেই তাদের ছয়টি উইকেট হারিয়ে জয়ের সম্ভাবনা তৈরি করেছিল খুলনা। তবে শামসুর রহমান শুভ ও শরিফুল্লাহর দৃঢ়তায় জয় পায় তারা। সপ্তম উইকেটে অবিচ্ছিন্ন ১০২ রানের জুটি গড়েন তারা। শামসুর ৬৫ ও শরিফুল্লাহ ৫৫ রানে অপরাজিত থাকেন। খুলনার পক্ষে ৬১ রানের খরচায় ৫টি উইকেট নেন সেখ মেহেদী হাসান।

প্রথম স্তরের অপর ম্যাচে সিলেট আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে স্বাগতিকদের বিপক্ষে ফলোঅনে পড়ে তৃতীয় দিন শেষে ১৫৬ রানে পিছিয়ে আছে চট্টগ্রাম বিভাগ। প্রথম ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে আগের দিন ১ উইকেট হারিয়ে ৯৮ রান তুলেছিল দলটি। কিন্তু এদিন নাবিল সামাদের ঘূর্ণি ও আবু জায়েদ রাহীর তোপে পড়ে ২৩৭ রানে গুটিয়ে যায় তারা। পারভেজ ইমন ৯২ ও পিনাক ঘোষ ৫৮ রান করেন। সিলেটের নাবিল ৫টি ও রাহী ৪টি উইকেট পান।

ফলোঅনে পড়ে দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে অবশ্য কোনো উইকেট না হারিয়েই ৮৮ রান তুলেছে চট্টগ্রাম। পিনাক ৫৭ ও জসীমউদ্দিন ২৫ রানে ব্যাট করছেন।

খুলনার শেখ আবু নাসের স্টেডিয়ামে রাজশাহী বিভাগের বিপক্ষে ১৭৮ রানে পিছিয়ে আছে বরিশাল বিভাগ। ৭৯ রানে আগের দিনই দুই উইকেট হারানো বরিশাল এদিন তাদের প্রথম ইনিংসে ২৭৩ রানে গুটিয়ে যায়। মূলত নাহিদ রানার তোপে দাঁড়াতে পারেনি তারা। একাই পাঁচ উইকেট নেন এ পেসার। ২টি উইকেট পান শফিকুল ইসলাম। সানজামুল ইসলাম পান ৩টি উইকেট। বরিশালের হয়ে সর্বোচ্চ ৭২ রান করেন সোহাগ গাজী। আবু সায়েম ৬০ ও সালমান হোসেন ৫৩ ও মঈন খান ৪৯ রানের ইনিংস খেলেন।

ফলোঅনে পরে দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে মোহাম্মদ আশরাফুলের উইকেট হারিয়ে ৫৭ রান করেছে বরিশাল। আবু সায়েম ৩১ ও ফজলে মাহমুদ ৪ রানে ব্যাটিংয়ে আছেন।

Comments

The Daily Star  | English

Coastal villagers shifted to LPG from Sundarbans firewood

'The gas cylinder has made my life easy. The smoke and the tension of collecting firewood have gone away'

1h ago