তরুণদের নিয়ে এই সিরিজ জয়টা মাশরাফির দৃষ্টিতে আলাদা

এক ম্যাচ বাকি থাকতেই টি-টোয়েন্টি সিরিজ নিজেদের পকেটে পুরেছে বাংলাদেশ। চট্টগ্রাম জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে আগের ম্যাচে ৬ উইকেটে জিতেছিল স্বাগতিকরা।
মাশরাফি বিন মর্তুজা। ফাইল ছবি

ঘরের মাটিতে ২০২১ সালে অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ডকে টি-টোয়েন্টি সিরিজ হারিয়েছিল বাংলাদেশ। তবে ওই অর্জনগুলোর তুলনায় ইংল্যান্ডের বিপক্ষে এবারের সিরিজ জয়ে উল্লেখযোগ্য পরিবর্তন দেখতে পাচ্ছেন মাশরাফি বিন মর্তুজা। তার মতে, বাংলাদেশ টি-টোয়েন্টি দলকে ঢেলে সাজানোর কাজটা দারুণভাবে শুরু করেছেন কোচ চন্ডিকা হাথুরুসিংহে ও অধিনায়ক সাকিব আল হাসান।

রোববার মিরপুর শেরে বাংলা স্টেডিয়ামে তিন ম্যাচ সিরিজের দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতে ৪ উইকেটে জিতেছে বাংলাদেশ। আগে ব্যাট করে অফ স্পিনার মেহেদী হাসান মিরাজের ঘূর্ণিপাকে পড়ে ১১৭ রানে অলআউট হয় ইংল্যান্ড। জবাবে নাজমুল হোসেন শান্তর হার না মানা দায়িত্বশীল ইনিংসে ৭ বল হাতে রেখে জয় নিশ্চিত করে সাকিবের দল।

এই জয়ে এক ম্যাচ বাকি থাকতেই টি-টোয়েন্টি সিরিজ নিজেদের পকেটে পুরেছে বাংলাদেশ। চট্টগ্রাম জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে আগের ম্যাচে ৬ উইকেটে জিতেছিল স্বাগতিকরা।

ম্যাচ শেষ হওয়ার পরপরই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে নিজের স্বীকৃত পেজে সিরিজ জয়ের অনুভূতি জানান মাশরাফি। বাংলাদেশের সাবেক অধিনায়কের মতে, তরুণদের নিয়ে গড়া দল হওয়ায় এবারের অর্জনের মাহাত্ম্য আলাদা। তিনি লিখেন, 'অস্ট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ড, এবার ইংল্যান্ড। দেশের মাঠে বড় তিনটি দলকে টি-টোয়েন্টি সিরিজে হারাল বাংলাদেশ।

তবে এই জয়টা একটু আলাদা। কারণ, তরুণদের নিয়ে যেভাবে দলটা গড়েছে, সেটা এক কথায় অসাধারণ। টি-টোয়েন্টি দলকে ঢেলে সাজানো দরকার ছিল, হাথুরুসিংহে ও সাকিব দারুণভাবে সেই কাজটা করেছে। ভালো উইকেটে এই দলটারও কঠিন সময় আসবে, কিন্তু সবার ধৈর্য রাখা জরুরী।

তরুণদেরকে এই ফরম্যাটে খেলার সুযোগ করে দিতে হবে এবং এর মধ্য দিয়েই আস্তে আস্তে দারুণ একটা দল হবে ইনশাআল্লাহ। অনেক দেরিতে হলেও এই পরিবর্তনটা টি-টোয়েন্টিতে খুব প্রয়োজন ছিল। যদিও এটা একান্তই আমার মতামত।

শান্ত "ইউ বিউটি ম্যান", মিরাজ অসাধারণ, পুরো বোলিং ইউনিট দারুণ। অভিনন্দন বাংলাদেশ।'

Comments

The Daily Star  | English

Submarine cable breakdown disrupts Bangladesh internet

It will take at least 2 to 3 days to resume the connection

1h ago