ক্রিকেট

ভারতের ড্রেসিংরুমে নিউজিল্যান্ডের রোমাঞ্চকর জয় উদযাপন!

টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে উঠতে সমীকরণটা নিজেদের হাতে আর ছিল না ভারতের। আহমেদাবাদে শেষ টেস্ট জিততে পারলে অন্য কোন দিকে তাকানো লাগত না। কিন্তু ব্যাটিং উইকেটে ম্যাচ ড্রয়ের দিকে এগুতে থাকায় নিউজিল্যান্ড-শ্রীলঙ্কা সিরিজ হয়ে যায় গুরুত্বপূর্ণ। শ্রীলঙ্কা যদি নিউজিল্যান্ডকে দুই টেস্টেই হারাত, তবে তারাই চলে যেত ফাইনালে। অর্থাৎ শ্রীলঙ্কা যেন না জেতে সেই কামনাই ছিল ভারতের।
Rahul Dravid

ভারত-অস্ট্রেলিয়ার আহমেদাবাদ টেস্টের শেষ দিনের তখন লাঞ্চ বিরতি। নিষ্প্রাণ ড্রয়ের দিকে ছুটে চলা টেস্টের মাঝে ভারতের ড্রেসিংরুম তখন সবার চোখ জায়ান্ট স্ক্রিনে। ক্রাইস্টচার্চে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে নিউজিল্যান্ডের রোমাঞ্চকর রান তাড়া দেখছিলেন তারা। শেষ বলের উত্তেজনায় কিউইরা জিতে গেলে উল্লাস ছড়িয়ে পড়ে ভারতীয়দের মধ্যেও! কারণটা আর কিছু না। নিউজিল্যান্ড জিতে যাওয়ায়, বলা ভালো শ্রীলঙ্কা না জেতায় বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে যে উঠে গেছে ভারত। কোচ রাহুল দ্রাবিড় তাই কৃতজ্ঞতাও জানালেন কিউইদের।

টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে উঠতে সমীকরণটা নিজেদের হাতে আর ছিল না ভারতের। আহমেদাবাদে শেষ টেস্ট জিততে পারলে অন্য কোন দিকে তাকানো লাগত না। কিন্তু ব্যাটিং উইকেটে ম্যাচ ড্রয়ের দিকে এগুতে থাকায় নিউজিল্যান্ড-শ্রীলঙ্কা সিরিজ হয়ে যায় গুরুত্বপূর্ণ। শ্রীলঙ্কা যদি নিউজিল্যান্ডকে দুই টেস্টেই হারাত, তবে তারাই চলে যেত ফাইনালে। অর্থাৎ শ্রীলঙ্কা যেন না জেতে সেই কামনাই ছিল ভারতের।

আহমেদাবাদ টেস্টের পর সমীকরণের এই দোলাচলে নিজেদের অবস্থার কথা জানান রাহুল, 'প্রথম দিন আহমেদাবাদে উইকেট দেখে মনে হয়েছে টস জেতাটা খুব গুরুত্বপূর্ণ। তারপর অস্ট্রেলিয়া যখন প্রথম দুদিন ব্যাট করে ফেলল, আমরা শ্রীলঙ্কা ও নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে টেস্টের ফলের দিকে তাকাতে বাধ্য হলাম।'

'আমরা খুব প্রতীক্ষা নিয়ে দেখছিলাম, আশা করছিলাম শ্রীলঙ্কা যেন না জেতে। বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ দুই বছর লম্বা সময় ধরে হয়। ৬টা টেস্ট সিরিজ খেলতে হয়। স্বাভাবিকভাবে অন্যদের উপর নির্ভর করা লাগে। একই সঙ্গে নিজেদের সেরা খেলাটা দিয়ে লড়াইটা জারি রাখতে হয়।'

বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের গত আসরের ফাইনালেও উঠেছিল ভারত। তবে নিউজিল্যান্ডের কাছে হারতে হয়েছিল তাদের। নিউজিল্যান্ডের কাছে ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে হেরে বিদায়ের ক্ষত আছে ভারতীয়দের। সেই নিউজিল্যান্ড এবার যেন দিল স্বস্তিও, রাহুল মজা করেই যেন তা মনে করলেন,  'ভালো ব্যাপার হচ্ছে এই নিউজিল্যান্ড, যারা কীনা আইসিসির বেশিরভাগ ইভেন্টে আমাদের বিদায় করে দেয়। আমাদের এবার সামান্য সহযোগিতা করল। তাদের প্রতি আমাদের কৃতজ্ঞতা।'

ক্রাইস্টচার্চে টেস্ট ক্রিকেটের রোমাঞ্চ, দোলাচল, রঙ বদলের সকল উত্তেজনা তৈরি হয়েছিল। এমনকি শেষ ওভারে তিনটি ফলই ছিল সম্ভব। শেষ ৫ ওভারে দরকার ছিল ৩৫ রান, শেষ ওভারে ৮। এই ফেইজে একাধিক উইকেট হারিয়ে নড়ে উঠেছিল কিউইরা। শেষ বলে দরকার ছিল এক রান। সেঞ্চুরি করা কেইন উইলিয়ামসন পরাস্ত হলেও অল্পের জন্য রান আউট থেকে বেঁচে যান।

নিজেদের টেস্টের নিউজিল্যান্ডের রান তাড়া রোমাঞ্চ ভরে উপভোগ করছিল ভারত,  'আমরা একটু চিন্তায় ছিলাম কারণ নিউজিল্যান্ড ড্রয়ের চেয়ে জেতার ঝুঁকিটা নিচ্ছিল। নিজেদের মধ্যে আলাপ করছিলাম।'

'পরে ভাবলাম নিউজিল্যান্ড অবশ্যই জেতার দিকে যাবে, ড্রয়ের জন্য না। এমনকি লাঞ্চের সময় আমরা শেষ ৫-৬ ওভার জায়ান্ট স্ক্রিনে দেখেছি, এবং সত্যিই রোমাঞ্চ অনুভব করেছি।

Comments

The Daily Star  | English

Heatwave: DU and JnU classes to be held virtually

DU exams to be held in person; JnU exams postponed till April 25

1h ago