রোমাঞ্চকর লড়াইয়ে ভারতকে ফের হারাল ওয়েস্ট ইন্ডিজ

পাঁচ ম্যাচ টি-টোয়েন্টি সিরিজে ২-০ ব্যবধানে এগিয়ে গেছে ক্যারিবিয়ানরা।
ছবি: এএফপি

ঝুলিতে ৬ উইকেট নিয়ে জয়ের জন্য ওয়েস্ট ইন্ডিজের চাহিদা তখন ২৭ রানের। বাকি ছিল ৩১ বল। অর্থাৎ ম্যাচের লাগাম তাদের হাতে। ভারত হাল ছেড়ে দেয়নি। পরের ১৩ বলের মধ্যে তারা আদায় করে নেয় ৪ উইকেট। এতে মোড় ঘুরে তাদের দিকে হেলে পড়ে ম্যাচ। তবে রোমাঞ্চ ছড়ানো লড়াইয়ে ক্যারিবিয়ানরাই শেষ হাসি হাসে আকিল হোসেন ও আলজারি জোসেফের ব্যাটিংয়ে।

রোববার রাতে গায়ানায় পাঁচ ম্যাচ সিরিজের নাটকীয় দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতে ২ উইকেটে জিতেছে স্বাগতিকরা।

টস জিতে আগে ব্যাটিংয়ে নেমে তিলক ভার্মার ফিফটিতে ৭ উইকেটে ১৫২ রান তোলে হার্দিক পান্ডিয়ার নেতৃত্বাধীন ভারত। জবাবে নিকোলাস পুরানের ঝড়ো হাফসেঞ্চুরিতে অনায়াস জয়ের পথেই হাঁটছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ। এরপর শেষদিকে পা হড়কানোর শঙ্কা জাগলেও ৭ বল বাকি থাকতে লক্ষ্য ছুঁয়ে ফেলে রভম্যান পাওয়েলের দল। ফলে সিরিজে ২-০ ব্যবধানে এগিয়ে গেছে তারা।

ধীরগতির উইকেটে বাকি ব্যাটাররা খাবি খেলেও পুরানের ব্যাট ছিল উত্তাল। ৪০ বলে ৬৭ রানের ইনিংসে তিনি মারেন ছয়টি চার ও চারটি ছক্কা। আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে দশম ফিফটিতে ম্যাচসেরার পুরস্কার জেতেন তিনি।

এক পর্যায়ে, ৪ উইকেটে ১২৬ থেকে অল্প সময়ের মধ্যে ৮ উইকেটে ১২৯ রানের দলে পরিণত হয় ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ভারতের সিরিজে ঘুরে দাঁড়ানোর সম্ভাবনা তৈরি হয়। তবে নবম উইকেটে দায়িত্বশীল ব্যাটিংয়ে ১৭ বলে অবিচ্ছিন্ন ২৬ রানের জুটি গড়েন আকিল ও জোসেফ। তারা আর কোনো বিপদ ঘটতে দেননি। আকিল দুটি চারে ১০ বলে ১৬ ও জোসেফ একটি ছক্কায় ৮ বলে ১০ রানে অপরাজিত থাকেন।

 

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

ভারত: ২০ ওভারে ১৫২/৭ (কিশান ২৭, গিল ৭, সুরিয়াকুমার ১, তিলক ৫১, স্যামসন ৭, হার্দিক ২৪, আকসার ১৪, বিষ্ণোই ৮*, আর্শদিপ ৬*; ম্যাককয় ০/২৫, আকিল ২/২৯, জোসেফ ২/২৮, হোল্ডার ০/২৯, শেফার্ড ২/২৮, মেয়ার্স ১/১২)

ওয়েস্ট ইন্ডিজ: ১৮.৫ ওভারে ১৫৫/৮ (কিং ০, মেয়ার্স ১৫, চার্লস ২, পুরান ৬৭, রভম্যান ২১, হেটমায়ার ২২, শেফার্ড ০, হোল্ডার ০, আকিল ১৬*, জোসেফ ১০*; পান্ডিয়া ৩/৩৫, আর্শদিপ ১/৩৪, মুকেশ ১/৩৫, বিষ্ণোই ০/৩১, চাহাল ২/১৯)।

Comments

The Daily Star  | English
IMF loan conditions

3rd Loan Tranche: IMF team to focus on four key areas

During its visit to Dhaka, the International Monetary Fund’s review mission will focus on Bangladesh’s foreign exchange reserves, inflation rate, banking sector, and revenue reforms.

8h ago