টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে বাংলাদেশের সুযোগ দেখছেন সাকিব

আসন্ন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও ওয়েস্ট ইন্ডিজ বিশ্বকাপে বাংলাদেশের ভালো সুযোগ দেখছেন অধিনায়ক সাকিব আল হাসান।

ওয়ানডে সংস্করণে যেভাবে এগিয়েছে বাংলাদেশ, সে তুলনায় আগাতে পারেনি টেস্ট ও টি-টোয়েন্টিতে। বিশেষকরে ক্রিকেটের সংক্ষিপ্ততম সংস্করণের বিশ্বকাপে বরাবরই ভোগান্তিতে পড়েছে বাংলাদেশ। কোনো আসরেই প্রত্যাশার ছিটেফোঁটাও পূরণ করতে পারেনি টাইগাররা। তবে আসন্ন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও ওয়েস্ট ইন্ডিজ বিশ্বকাপে বাংলাদেশের ভালো সুযোগ দেখছেন অধিনায়ক সাকিব আল হাসান।

অস্ট্রেলিয়ায় অনুষ্ঠিত সবশেষ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ভরাডুবির পর ঘরের মাঠে টানা তিনটি সিরিজ জিতে নিয়েছে বাংলাদেশ। এই সংস্করণে এমন সাফল্যই আশা দেখাচ্ছে সাকিবকে। বিশেষকরে বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ইংল্যান্ডকে ৩-০ ব্যবধানে হোয়াইটওয়াশ করা। সবশেষ নিউজিল্যান্ডের মাঠ থেকে ১-১ ব্যবধানে সিরিজ ড্র করে ফিরেছে টাইগাররা।

তবে দ্বিপাক্ষিক সিরিজে অবশ্য এর আগেও ভালো ফলাফল ছিল বাংলাদেশের। ২০২১ সালে সংযুক্ত আরব আমিরাতে অনুষ্ঠিত বিশ্বকাপে যাওয়ার আগেও টানা তিনটি টি-টোয়েন্টি সিরিজ জিতেছিল বাংলাদেশ। কিন্তু বিশ্বকাপে ভরাডুবি হয় টাইগারদের।

বরাবরের মতো এবারও তাই ভালো কিছুর প্রত্যাশা নিয়েই বাংলাদেশ বিশ্বকাপে খেলতে যাবে বলে জানান সাকিব, 'প্রতিবারই তো বেশি প্রত্যাশা থাকে। এবারও তাই থাকবে।'

তবে সাম্প্রতিক সময়ের পারফরম্যান্স আশা দেখাচ্ছে অধিনায়ককে, 'যেহেতু টি-টোয়েন্টি সংস্করণ আমরা শেষ এক বছর আমরা খুব ভালো খেলেছি। দলটা এখন ভারসাম্যপূর্ণ আছে, ছন্দেও আছে। সবাই ভালো খেলছে। নিউজিল্যান্ডেও ভালো খেলেছে। প্রত্যাশা তো বেশি থাকবেই। খেলা হবে যুক্তরাষ্ট্র ও ওয়েস্ট ইন্ডিজে। যেখানে হয়তো আমাদের ক্রিকেটটা বেশি মানানসই হবে। তো আমাদের সুযোগ আছে।'

এদিকে ভারতে অনুষ্ঠিত ওয়ানডে বিশ্বকাপের শেষে আঙুলে চোট পাওয়ায় অনেক দিন থেকেই মাঠে নেই সাকিব। তবে চোট কাটিয়ে অনুশীলনে ফিরেছেন তিনি। আজ মিরপুরে বোলিং করতে দেখা গিয়েছে তাকে। নিজের চোটের অবস্থা জানিয়ে বলেন, 'অনুশীলন শুরু করেছি। আরও কিছু দিন সময় লাগবে। বোলিং আঙুল যেহেতু, স্বাভাবিকভাবেই সময় লাগবে। তবে উন্নতি হচ্ছে ভালোই।'

এবার অবশ্য বাংলাদেশের জাতীয় নির্বাচনে অংশ নিয়েছেন সাকিব। জয়ও পেয়েছেন। তবে এরপর এক দিন না যেতেই ফিরেছেন অনুশীলনে। মূলত বিপিএলকে সামনে রেখেই দ্রুত অনুশীলনে ফিরেছেন বলে জানান তিনি, 'বিপিএল শুরু হচ্ছে। প্রস্তুতি নিতে হবে। প্রায় আড়াই মাসের মতো হয়েছে মাঠের বাইরে। কোনো ফিটনেসের কাজ করতে পারিনি, স্কিলের কাজ করতে পারিনি। স্বাভাবিকভাবেই তৈরি হওয়ার জন্য সময় লাগবে। এজন্য আর সময় নষ্ট করতে চাইনি।'

Comments

The Daily Star  | English

Raids on hospitals countrywide from Feb 27: health minister

There will be zero tolerance for child deaths due to hospital authorities' negligence, he says

34m ago