ফুটবল
সাফ অনূর্ধ্ব-২০ নারী চ্যাম্পিয়নশিপ

ভুটানকে গুঁড়িয়ে ফাইনালে বাংলাদেশের মেয়েরা

ড্র হলেই চলত বাংলাদেশের। মিলে যেত শিরোপা নির্ধারণী মঞ্চে খেলার টিকিট। তবে সেই অনায়াস পথে হাঁটল না লাল-সবুজ জার্সিধারীরা। দাপুটে ফুটবলের পসরা সাজিয়ে তারা করল গোল উৎসব।
ছবি: বাফুফে

ড্র হলেই চলত বাংলাদেশের। মিলে যেত শিরোপা নির্ধারণী মঞ্চে খেলার টিকিট। তবে সেই অনায়াস পথে হাঁটল না লাল-সবুজ জার্সিধারীরা। দাপুটে ফুটবলের পসরা সাজিয়ে তারা করল গোল উৎসব। ভুটানকে গুঁড়িয়ে তারা উঠল সাফ অনূর্ধ্ব-২০ নারী চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে।

মঙ্গলবার কমলাপুরের বীরশ্রেষ্ঠ শহীদ সিপাহী মোস্তফা কামাল স্টেডিয়ামে রাউন্ড রবিন লিগে নিজেদের শেষ ম্যাচে সহজ প্রতিপক্ষের বিপরীতে ৫-০ গোলে জিতেছে বাংলাদেশ। দলের পক্ষে হ্যাটট্রিক করেন অধিনায়ক শামসুন্নাহার জুনিয়র। জোড়া গোল করেন আকলিমা খাতুন।

দিনের আগের ম্যাচে চমক দেখিয়ে ভারতকে ৩-১ গোলে হারিয়ে ফাইনাল নিশ্চিত করে নেপাল। তাদের বিপক্ষে আগামী বৃহস্পতিবার খেলতে নামবে বাংলাদেশ। আসরে দুই দলের আগের দেখায় স্বাগতিকরা জিতেছিল ৩-১ গোলে।

পয়েন্ট তালিকার শীর্ষে থেকে ফাইনাল খেলার ছাড়পত্র পেল গোলাম রব্বানি ছোটনের শিষ্যরা। তিন ম্যাচে দুই জয় ও এক ড্রয়ে তাদের পয়েন্ট ৭। ৬ পয়েন্ট অর্জন দুইয়ে থাকা নেপালের। ভারত তিন ম্যাচে ৪ পয়েন্ট নিয়ে ছিটকে গেছে আসর থেকে। তলানিতে থাকা ভুটানের নামের পাশে কোনো পয়েন্ট নেই। তাদের বিদায় নিশ্চিত হয়ে গিয়েছিল আগেই।

বেশকিছু সুযোগ হাতছাড়া করার পর ২২তম মিনিটে লিড পায় বাংলাদেশ। দলের পক্ষে প্রথম গোল করার পর দ্বিতীয়ার্ধে আকলিমা আরেকবার লক্ষ্যভেদ করেন। ওই গোলটি আসে ৬০তম মিনিটে।

প্রথমার্ধ শেষে ২-০ গোলে এগিয়ে ছিল বাংলাদেশ। ৩০তম মিনিটে ব্যবধান বাড়ান শামসুন্নাহার। বিরতির পর আরও দুবার জালের ঠিকানা খুঁজে নেন তিনি। ৫৩তম মিনিটে ম্যাচে নিজের দ্বিতীয় গোলের স্বাদ নেওয়ার পর ৬১তম মিনিটে হ্যাটট্রিক পূরণ করেন।

বাংলাদেশের জয়ের ব্যবধান হতে পারত আরও বড়। সুযোগ নষ্টের মহড়া তো ছিলই। সঙ্গে যোগ হয় পেনাল্টি মিসের আক্ষেপ। ২৫তম মিনিটে স্পট-কিক লক্ষ্য রাখতে পারেননি শাহেদা আক্তার রিপা। শামসুন্নাহার ডি-বক্সে ফাউলের শিকার হওয়ায় রেফারি বাজিয়েছিলেন পেনাল্টির বাঁশি।

Comments

The Daily Star  | English

Last-minute purchase: Cattle markets attract crowd but sales still low

Even though the cattle markets in Dhaka and Chattogram are abuzz with people on the last day before Eid-ul-Azha, not many of them are purchasing sacrificial animals as prices of cattle are still quite high compared to last year

7h ago