ফুটবল

ইব্রাহিমোভিচের ইতিহাস

বয়সটা তার ৪১ বছর, ৫ মাস, ১৫ দিন। এই বয়সে কয়জন খেলোয়াড় ফুটবল খেলে থাকেন? তাও আবার শীর্ষ তিন লিগের একটিতে। সেখানে খেলছেন ইতালিয়ান চ্যাম্পিয়নদের দলে। করছেন গোলও।

অধিনায়কের আর্মব্যান্ড পরেই আগের দিন মাঠে নেমেছিলেন জ্লাতান ইব্রাহিমোভিচ। কিন্তু নতুন শুরুতে দলকে জেতাতে পারেননি। তাতে জটিল হয়ে উঠেছে স্কুদেত্তো ধরে রাখার সমীকরণ। তবে নিজে নতুন এক ইতিহাস গড়েছেন এ সুইডিস তারকা। সিরিআর ইতিহাসে সবচেয়ে বেশি বয়স্ক গোলদাতা হওয়ার রেকর্ড গড়েছেন তিনি।

শনিবার রাতে দাকিয়া অ্যারেনায় ইতালিয়ান শীর্ষ লিগ সিরিআর ম্যাচে উদিনিসের কাছে ৩-১ গোলের ব্যবধানে হারে এসি মিলান। ম্যাচের প্রায় শুরুতেই পিছিয়ে পড়ার পর প্রথমার্ধের যোগ করা সময়ে স্পটকিক থেকে দলকে সমতায় ফিরিয়েছিলেন ইব্রাহিমোভিচ। তবে দুই মিনিট না যেতেই ফের পিছিয়ে পড়ে দলটি। আর শেষ দিকে হজম করে আরও একটি গোল।

হারের পরও আলোচনা হচ্ছে ইব্রার গোল নিয়ে। কারণ বয়সটা তার ৪১ বছর, ৫ মাস, ১৫ দিন। এই বয়সে কয়জন খেলোয়াড় ফুটবল খেলে থাকেন? তাও আবার শীর্ষ তিন লিগের একটিতে। সেখানে খেলছেন ইতালিয়ান চ্যাম্পিয়নদের দলে। করছেন গোলও।

সিরিআয় সবচেয়ে বেশি বয়সে গোল দেওয়ার পুরনো রেকর্ডটি ছিল আলেসান্দ্রো 'বিলি' কস্তাকুর্তার। মজার ব্যাপার ২০০৭ সালের মে মাসে উদিনিসের হয়ে মিলানের পরাজয়ের সময় পেনাল্টি থেকেই তিনি গোলটি করেছিলেন। যদিও সে ম্যাচটি ছিল সান সিরোতে।

বরাবর মজার চরিত্র ইব্রা ইতিহাস গড়ার পরও ছিলেন স্বাভাবিক মুডেই। যেমন রেকর্ড প্রসঙ্গে বলেন, 'সে চাইলে রেকর্ড রাখতে পারেন, আমি এই রেকর্ড চাই না।'

এরপরই প্রশ্নের উত্তরে বলেন, 'আমি এই ক্লাবের ইতিহাসে থাকতে পেরে গর্বিত, কারণ এটি দারুণ ইতিহাসের একটি দুর্দান্ত ক্লাব। এখানে খেলোয়াড়রা বিস্ময়কর সব কাজ করেছে এবং সেখানে আমার নাম থাকা আমার কাছে অনেক কিছু।'

তবে গোল করেও ম্যাচ জেতাতে না পেরে হতাশ ইব্রা, 'এই গোলটি পয়েন্ট আনতে পারেনি, যা আমি চেয়েছিলাম। আমিও অধিনায়ক হতে পেরে গর্বিত, কিন্তু খেলাটি আমরা যেভাবে চেয়েছিলাম সেভাবে হয়নি।'

Comments