ফুটবল

লেবাননের কাছে হেরে সাফ শুরু বাংলাদেশের

প্রায় ৮০ মিনিট পর্যন্ত বারপোস্ট আগলে রাখার পর রক্ষণভাগের একটি ভুলেই পাল্টে যায় সব।

প্রায় ৮০ মিনিট পর্যন্ত জমাট রক্ষণে বারপোস্ট অক্ষত রাখতে পারলো বাংলাদেশ। কিন্তু এরপর সেই রক্ষণভাগই করে বসল বড় একটি ভুল। সেই ভুলেই কাল হলো বাংলাদেশের। গোল হজম করে তারা। এরপর অলআউট খেলতে গিয়ে শেষ দিকে গোল হজম করে আরও একটি। ফলে আরও একটি হতাশার গল্পই লিখল লাল-সবুজের প্রতিনিধিরা। 

বৃহস্পতিবার বেঙ্গালুরুর শ্রী কান্তিরাভা স্টেডিয়ামে সাফ চ্যাম্পিয়নশিপে 'বি' গ্রুপে নিজেদের প্রথম ম্যাচে লেবাননের কাছে ২-০ গোলের ব্যবধানে হেরে যায় বাংলাদেশ। লেবাননের হয়ে একটি করে গোল করেছেন হাসান মাতুক ও খলিল বাদের।

তবে শক্তি ও সামর্থ্যে বাংলাদেশের চেয়ে ঢের এগিয়ে লেবানন। র‍্যাঙ্কিংয়েও তাদের অবস্থান ৯৩ ধাপ উপরে। কিন্তু মাঠে খুব একটা পিছিয়ে ছিল না বাংলাদেশ। দ্বিতীয়ার্ধে সমান তালেই চলছিল লড়াই। এ অর্ধে দারুণ কিছু সুযোগও তৈরি করে তারা। ফয়সাল আহেমদ ফাহিম তো একবার প্রতিপক্ষ গোলরক্ষককে একাও পেয়ে গিয়েছিলেন। কিন্তু শেষ রক্ষা করতে পারেননি জামাল ভুঁইয়ারা।

ম্যাচে এদিন সাবধানতার সঙ্গেই শুরু করে দুই পক্ষ। ১৬তম মিনিটে বলার মতো প্রথম আক্রমণ করে লেবানন। তবে আলী আল হাজের শট লক্ষ্যভ্রষ্ট হয় বারপোস্ট ঘেঁষে। পাঁচ মিনিট পর ভালো সুযোগ পায় বাংলাদেশও। ডান প্রান্ত থেকে সুমন রেজার উদ্দেশ্যে ফাহিমের ক্রস গোলরক্ষক আলি সাবেহ লাফিয়ে না আটকে দিলে বিপদ হয়নি লেবাননের।

৩৫তম মিনিটে দারুণ এক সেভ করেন বাংলাদেশের গোলরক্ষক আনিসুর রহমান জিকো। কর্নার থেকে উড়ে আসা বলে ফাঁকায় পেয়ে যান খলিল। ভালো শটও নিয়েছিলেন। তবে তার শট ঝাঁপিয়ে ঠেকান জিকো। সাত মিনিট পর তপু বর্মণের বাড়ানো বল ফাহিমের নেওয়া কোণাকোণি শট কর্নারের বিনিময়ে ঠেকান লেবানন গোলরক্ষক।

তবে ম্যাচের সেরা সুযোগটা এদিন পেয়েছিল বাংলাদেশই। ৬০তম মিনিটে হৃদয়ের লম্বা পাস থেকে গোলরক্ষককের একা পেয়ে যান ফাহিম। বল নিয়ন্ত্রণেও নিয়েছিলেন। কিন্তু শেষ পর্যন্ত গোলরক্ষক বরাবর শট নিলে নষ্ট হয় সে সুযোগ।

সে সুযোগ নষ্ট হলেও এ সময়ে বল নিয়ন্ত্রণে রেখে দারুণ ফুটবল খেলতে থাকে বাংলাদেশ। কিন্তু ধারার বিপরীতে ৮০তম মিনিটে গোল হজম করে বসে তারা। সোহেল রানা বল ক্লিয়ার করতে গেলে প্রতিপক্ষ এক খেলোয়াড়ের পায়ে চলে যায় তারিক কাজীর পায়ে। কিন্তু বল নিয়ন্ত্রণে রাখতে পারেনি। বল ধরে ফাঁকায় থাকা হাসানকে পাস দেন কারিম দারউচ। বাকি কাজটা সহজেই করেন হাসান।

৮৯তম মিনিটে খলিলের হেড আটকে দেন জিকো। ম্যাচের যোগ করা সময়ে ব্যবধান দ্বিগুণ করে লেবানন। পাল্টা আক্রমণ থেকে করিম দারবিশের পাস থেকে ফাঁকা পোস্টে আলতো টোকায় বল জালে পাঠান খলিল। ফলে ম্যাচ থেকে ছিটকে পড়ে বাংলাদেশ।

আগামী রোববার নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে মালদ্বীপের মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ। বাংলাদেশ সময় চারটায় মাঠে গড়াবে ম্যাচটি।

Comments

The Daily Star  | English
Inflation in Bangladesh

Economy in for a double whammy

With inflation edging towards double digits and quarterly GDP growth nearly halving year on year, pressure on consumers is mounting and experts are pointing at even darker clouds.

7h ago