'ফেভারিট তকমার ফাঁদে' পড়তে চান না মেসি

টানা ৩৫ ম্যাচ অপরাজিত। স্বাভাবিকভাবেই তাদের নিয়ে একটু বেশিই আলোচনা হচ্ছে। যে কেউই তাদের রাখছেন ফেভারিটের তালিকায়। তবে এ তকমায় বিশ্বাস করছেন না আর্জেন্টিনার অধিনায়ক লিওনেল মেসি।

টানা ৩৫ ম্যাচ অপরাজিত। স্বাভাবিকভাবেই তাদের নিয়ে একটু বেশিই আলোচনা হচ্ছে। যে কেউই তাদের রাখছেন ফেভারিটের তালিকায়। তবে এ তকমায় বিশ্বাস করছেন না আর্জেন্টিনার অধিনায়ক লিওনেল মেসি। ৩৬ বছর পর ফের বিশ্বকাপ জিততে চাইলে 'ফেভারিট তকমার ফাঁদে' না পড়ার আহ্বান তিনি জানিয়েছেন সতীর্থদের।

২৮ বছরের শিরোপা খরা গত বছরই কাটিয়েছে আর্জেন্টিনা। এরপর এ বছর ফাইনালিসিমাও জিতে নিয়েছে দলটি। এবার পালা বিশ্বকাপ উঁচিয়ে ধরার অপেক্ষা ঘোচানোর। কিংবদন্তি দিয়েগো ম্যারাডোনার জাদুকরী নৈপুণ্যে সবশেষ ১৯৮৬ সালে বিশ্বকাপ জিতেছিল আর্জেন্টিনা। আর লম্বা সময় ধরে অধরা স্বপ্ন বাস্তবায়ন করতে ধাপে ধাপে এগিয়ে যাওয়ার কথা বলেছেন মেসি।

পরিসংখ্যান বলে, ফেভারিট দল বেশির ভাগ সময় বিশ্বকাপ জিততে পারে না। আগের ২১টি বিশ্বকাপে কেবল আটবারই ফেভারিট দল বিশ্বকাপ জিতে নিয়েছে। এক অর্থে, প্রতি তিন বিশ্বকাপে একবার। মূলত, ফেভারিট হওয়ার চাপ কাটিয়ে উঠতে না পেরেই গুঁড়িয়ে গেছে অনেক দল।

আর প্রসঙ্গ যখন ফেভারিটের, তখন আর্জেন্টিনার ইতিহাস খুব একটা সমৃদ্ধ নয়। এর আগে চারবার সেরা দল হিসেবে বিশ্বকাপে খেলেছে আর্জেন্টাইনরা। বিস্ময়করভাবে সেখানে তিনবারই তাদের বিদায় নিতে হয়েছে প্রথম রাউন্ড থেকেই। কেবল ১৯৩০ সালে ফাইনাল পর্যন্ত যেতে পেরেছিল তারা।

সম্প্রতি ইউনিভার্সো ভালদানোকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে মেসি বলেছেন, 'আমরা বিশ্বকাপে যাচ্ছি ভালো ফর্মে থেকে। কিন্তু আমরা এই প্রচারের ফাঁদে পা দিতে পারি না যে আমরা ফেভারিট ও জিতব। আমাদের বাস্তববাদী হতে হবে এবং ধাপে ধাপে যেতে হবে।'

বিশ্বকাপে কাজটা বেশ কঠিন হবে বলে মনে করেন আর্জেন্টাইন অধিনায়ক, 'বর্তমানে সব জাতীয় দলের বিপক্ষেই খেলা কঠিন। প্রতিটি দলকে (বিশ্বকাপে) হারানো কঠিন হবে।'

'ইউরোপীয় দলের বিপক্ষে আমাদের বেশি খেলা হয়নি, যদিও তারাও আমাদের বিপক্ষে খেলতে পছন্দ করে না। দক্ষিণ আমেরিকার দলের বিপক্ষে খেলাটাও কঠিন।'

বর্তমান চ্যাম্পিয়ন ফ্রান্সকেই ফেভারিট হিসেবে দেখছেন মেসি, 'ফ্রান্স ভালো দল। তাদের কিছু খেলোয়াড় ইনজুরিতে পড়েছে, কিন্তু তাদের দলে অনেক সম্ভাবনাময় খেলোয়াড় রয়েছে। তাদের সেরা মানের সব খেলোয়াড় এবং একজন কোচ (দিদিয়ের দেশম) আছেন, যারা (লম্বা সময় ধরে) প্রায় একই দলে আছে এবং এরমধ্যেই শেষ বিশ্বকাপ জিতেছে।'

এছাড়া প্রতিবেশী ব্রাজিলেরও দারুণ সম্ভাবনা দেখছেন মেসি। বিশেষ করে। নেইমার, গ্যাব্রিয়েল জেসুস, ভিনিসিয়ুস জুনিয়র, রাফিনহা, রদ্রিগোদের নিয়ে গড়া দলটির আক্রমণভাগের জন্য তাদের এগিয়ে রাখছেন সাবেক বার্সেলোনা তারকা, 'ব্রাজিলের কাছে অনেক মানসম্পন্ন খেলোয়াড় রয়েছে, বিশেষ করে, অ্যাটাকিং থার্ডে, তারা যে কাউকেই হারাতে পারে। তাদের ভালো নম্বর নাইন আছে। নেইমার রয়েছে।'

দারুণ কিছু করতে নিজেদের ভালো শুরুর দিকে মনোযোগী মেসি, 'আমাদের একটি ভালো দল আছে এবং খেলোয়াড়রাও ভালো ফর্মে আছে। জিওর (জিওভান্নি লো সেলসো) চোট আমাদের জন্য দুর্ভাগ্যজনক। কারণ, সে আমাদের জন্য খুব গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড়, কিন্তু অন্যরা এসেছে। আমরা লড়াই করতে যাচ্ছি। এটাই হলো মূল ব্যাপার। তবে প্রথমে আমাদেরকে উদ্বোধনী খেলা (২২ নভেম্বর সৌদি আরবের বিপক্ষে) জেতার দিকে মনোনিবেশ করতে হবে।'

Comments