ম্যাজিক বাউলিয়ানা ২০২২-এর গ্র্যান্ড ফিনালেতে জয়ী শফিউল বাদশা

ম্যাজিক বাউলিয়ানার চতুর্থ আসরে প্রথম স্থান অর্জন করেছেন ঢাকার শফিউল বাদশা। প্রতিযোগিতায় দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থান অধিকার করেছেন যথাক্রমে নেত্রকোণার ফকির চান এবং ব্রাহ্মণবাড়িয়ার অর্ণব ভট্টাচার্য্য।

ম্যাজিক বাউলিয়ানার চতুর্থ আসরে প্রথম স্থান অর্জন করেছেন ঢাকার শফিউল বাদশা। প্রতিযোগিতায় দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থান অধিকার করেছেন যথাক্রমে নেত্রকোণার ফকির চান এবং ব্রাহ্মণবাড়িয়ার অর্ণব ভট্টাচার্য্য।

এছাড়াও বাকি সেরা ছয়ে আছেন জামালপুরের সাইফুল ইসলাম, কুষ্টিয়ার অর্পা খন্দকার চাঁদনী এবং জয়পুরহাটের ঐশী রাণী দৃষ্টি। প্রথম স্থান অর্জনকারী শফিউল বাদশা পেয়েছেন ৫ লাখ টাকা। দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থান অর্জনকারী যথাক্রমে পেয়েছেন ৩ লাখ ও ২ লাখ টাকা।

সবচেয়ে বড় বাউল গানের রিয়েলিটি শো 'ম্যাজিক বাউলিয়ানা ২০২২'-এর গ্র্যান্ড ফিনালে উপলক্ষে রাজধানীর হোটেল প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁওয়ের বলরুমে আয়োজন করা হয় ঝলমলে এক অনুষ্ঠানের। সান ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে ও স্কয়ার টয়লেট্রিজ লিমিটেডের পৃষ্ঠপোষকতায় অনুষ্ঠানটি মাছরাঙা টেলিভিশনে সম্প্রচার হয়। 'ম্যাজিক বাউলিয়ানা ২০২২'-এর ওয়ারড্রোব পার্টনার হিসেবে ছিল দেশাল।

সারা দেশের ৫০ হাজারেরও বেশি প্রতিযোগীকে নিয়ে গত ৭ বছর ধরে এই প্রতিযোগিতা হয়েছে। তাল-সুর-লয়, উচ্চারণ এবং গায়কী- এই পাঁচটি বিষয়ে মার্কিং করে বিচারকগণ সেরা প্রতিযোগীকে নির্বাচিত করেন। বিচারক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন লোকগানের শিল্পী বাউল শফি মণ্ডল, শাহনাজ বেলী এবং আরিফ দেওয়ান।

ভবিষ্যৎ প্রজন্মের সঙ্গে বাউল গানের সংযোগ আরও দৃঢ় করতে আর্কাইভ হিসেবে 'ম্যাজিক বাউলিয়ানায় পরিবেশিত লোকগানের শুদ্ধ সংকলন-১' বইটির মোড়ক উন্মোচন করেন বিশেষ অতিথি প্রখ্যাত সংগীত শিল্পী রুনা লায়লা, স্কয়ার টয়লেট্রিজ লিমিটেডের হেড অব অপারেশনস মালিক মোহাম্মদ সাঈদ এবং বইটির গবেষক ও সম্পাদক বাংলা একাডেমির উপপরিচালক তপন বাগচী।

অনুষ্ঠানে নৃত্য পরিবেশন করেন জনপ্রিয় মডেল ও নৃত্যশিল্পী সাদিয়া ইসলাম মৌ। সেরা ৬ প্রতিযোগীর সঙ্গে গান পরিবেশন করেন অভিনেতা চঞ্চল চৌধুরী। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন স্কয়ার টয়লেট্রিজ লিমিটেড, মিডিয়াকম, সান কমিউনিকেশনস ও স্কয়ার গ্রুপের অন্যান্য কর্মকর্তারা।

Comments

The Daily Star  | English

The bond behind the fried chicken stall in front of Charukala

For over two decades, a business built on mutual trust and respect between two people from different faiths has thrived in front of Dhaka University's Faculty of Fine Arts

7h ago