আর্থিক অনিয়ম নিয়ে ইউজিসির প্রতিবেদন, মেয়াদের আগেই দায়িত্ব ছাড়লেন জবি রেজিস্ট্রার

ওহিদুজ্জামান ‘পারিবারিক কারণ’ উল্লেখ করে পদত্যাগপত্র জমা দিয়েছেন, যা গতকাল বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ গ্রহণ করেছে।
jagannath-university-logo-1.jpg

মেয়াদ শেষ হওয়ার তিন মাস আগেই দায়িত্ব ছেড়েছেন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার মো. ওহিদুজ্জামান। নিয়ম লঙ্ঘন করে এই কর্মকর্তাকে দ্বিতীয় গ্রেডে বেতন দিয়ে সরকারের বেতন স্কেলের ব্যত্যয় ঘটানোর পাশাপাশি আর্থিক ক্ষতি করা হয়েছে বলে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের (ইউজিসি) এক পর্যবেক্ষণে উঠে আসার পরই দায়িত্ব ছাড়েন তিনি।

বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার অফিস সূত্রে জানা গেছে, ওহিদুজ্জামান 'পারিবারিক কারণ' উল্লেখ করে পদত্যাগপত্র জমা দিয়েছেন, যা গতকাল বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ গ্রহণ করেছে।

এর আগে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের (ইউজিসি) এক প্রতিবেদনে বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার মো. ওহিদুজ্জামানের বিষয়ে একটি সুনির্দিষ্ট অসঙ্গতির বিষয়ে তুলে ধরা হয়। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, তার বেতন দ্বিতীয় গ্রেডে দেওয়া হচ্ছে, যা তার প্রাপ্যের চেয়ে বেশি। জাতীয় বেতন স্কেল অনুযায়ী জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের মতো স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠানগুলো শুধুমাত্র তৃতীয় গ্রেডে সর্বোচ্চ বেতন দিতে পারে।

এ জন্য জাতীয় বেতন স্কেল অনুযায়ী বেতন পুনর্নির্ধারণ করে অতিরিক্ত টাকা আদায় করে বিশ্ববিদ্যালয়ের কোষাগারে জমার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে বলেছে ইউজিসি। এর মধ্যেই পদত্যাগ করলেন মো. ওহিদুজ্জামান।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক সাদেকা হালিম দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, 'ইউজিসি রিপোর্ট আসার আগেই অনেকদিন ধরে তিনি আমার সাথে তার পদত্যাগ নিয়ে আলোচনা করছেন।'

অতিরিক্ত অর্থ ফেরত দেওয়ার বিষয়ে তিনি বলেন, 'আমরা বিষয়টি পুঙ্খানুপুঙ্খভাবে দেখব। ইউজিসি রিপোর্টের সত্যতা পেলে আমরা সে অনুযায়ী সমাধান করব।'

মো. ওহিদুজ্জামান ২০০৯ সালের ১৫ অক্টোবর বিশ্ববিদ্যালয়টির রেজিস্ট্রার হিসেবে যোগদান করেন। ২০২৩ সালের ১৪ জুন তিনি এক বছরের জন্য চুক্তির ভিত্তিতে রেজিস্ট্রার নিযুক্ত হন।

Comments

The Daily Star  | English

Schools to remain shut till April 27 due to heatwave

The government has decided to keep all schools shut from April 21 to 27 due to heatwave sweeping over the country

2h ago