বিশ্বের সবচেয়ে ধনী ইলন মাস্ক, সম্পদ ৩০০ বিলিয়ন ডলার

মার্কিন ম্যাগাজিন ফোর্বস প্রকাশিত বিশ্বের সবচেয়ে ধনীদের তালিকার শীর্ষ স্থান অক্ষুণ্ণ রেখেছেন ইলন মাস্ক। এই তালিকার সর্বশেষ সংস্করণ অনুযায়ী, টেসলা ও স্পেস এক্সের মতো প্রতিষ্ঠানের প্রতিষ্ঠাতা ইলন মাস্কের মোট সম্পদের পরিমাণ এখন ৩০০ বিলিয়ন ডলার (প্রায় ২৫ লাখ ৫০ হাজার কোটি টাকা)। 
বিশ্বের সবচেয়ে ধনী ব্যক্তি ইলন মাস্ক। ফাইল ছবি: রয়টার্স

মার্কিন ম্যাগাজিন ফোর্বস প্রকাশিত বিশ্বের সবচেয়ে ধনীদের তালিকার শীর্ষ স্থান অক্ষুণ্ণ রেখেছেন ইলন মাস্ক। এই তালিকার সর্বশেষ সংস্করণ অনুযায়ী, টেসলা ও স্পেস এক্সের মতো প্রতিষ্ঠানের প্রতিষ্ঠাতা ইলন মাস্কের মোট সম্পদের পরিমাণ এখন ৩০০ বিলিয়ন ডলার (প্রায় ২৫ লাখ ৫০ হাজার কোটি টাকা)। 

সিএনএনের এক প্রতিবেদন অনুযায়ী, ৫০ বছর বয়সী মাস্কের সম্পদের পরিমাণ এই তালিকার দ্বিতীয় স্থানে থাকা অ্যামাজনের প্রতিষ্ঠাতা জেফ বেজোসের চেয়েও ১০০ বিলিয়ন ডলার বেশি। 

এছাড়াও, ইলন মাস্ক এখন কালজয়ী বিনিয়োগকারী ও বার্কশায়ার হ্যাথাওয়ের সিইও ওয়ারেন বাফেটের চেয়ে দ্বিগুণেরও বেশি সম্পদের মালিক। ১৯৪১ সালে বাফেট যখন বিনিয়োগ করা শুরু করেন, তখন তার বয়স ছিল মাত্র ১১ বছর। দীর্ঘদিন বিশ্বের সবচেয়ে ধনী ব্যক্তি হিসেবে পরিচিত ৯১ বছর বয়সী বাফেটের বর্তমান সম্পদের পরিমাণ 'মাত্র' ১২৫ বিলিয়ন ডলার।

মাইক্রোসফটের দুই সাবেক সিইও বিল গেটস (১৩৬ বিলিয়ন) ও স্টিভ বলমারের (১০০ বিলিয়ন) সমন্বিত সম্পদের চেয়েও ইলন মাস্কের সম্পদ বেশি। একই কথা বলা যায় গুগলের সহ-প্রতিষ্ঠাতা ল্যারি পেজ (১২০ বিলিয়ন) ও সের্গেই ব্রিনের (১১৫ বিলিয়ন) ক্ষেত্রেও।

বিশ্বব্যাংকের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, সম্পদের দিক দিয়ে মাস্ক তার জন্মস্থান দক্ষিণ আফ্রিকার মোট বার্ষিক দেশজ উৎপাদনের (৩৩৫ বিলিয়ন) চেয়ে মাত্র ৩৫ বিলিয়ন ডলার পিছিয়ে আছেন। ইলন মাস্কের সম্পদ কলম্বিয়া, ফিনল্যান্ড, পাকিস্তান, চিলি ও পর্তুগালের মতো দেশের জিডিপির চেয়ে বেশি।

ফোর্বসের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, মাস্ক সম্পদ আহরণের দিক দিয়ে নতুন সীমায় নিয়ে গেছেন নিজেকে। পৃথিবীর ইতিহাসে তিনিই সবচেয়ে ধনাঢ্য ব্যক্তি।

তবে অনেক ইতিহাস বিশেষজ্ঞরা যুক্তি দেন, ১৯ ও ২০ শতকের অন্যান্য মার্কিন শিল্পপতি, যেমন জন ডি. রকাফেলার ও অ্যান্ড্রু কার্নেগি, ১৩ শতকের মালি সাম্রাজ্যের শাসক মানসা মুসা ও রোমান অধিপতি জুলিয়াস সিজারের মতো মানুষদের হয়তো আরও অনেক বেশি সম্পদ ছিল, বিশেষত মূল্যস্ফীতির সঙ্গে সমন্বয় করার পর।

ফোর্বসের শীর্ষ ১০ ধনীর তালিকায় আছেন ইলন মাস্ক, জেফ বেজোস, বার্নার্ড আরনল্ট ও পরিবার, বিল গেটস, ওয়ারেন বাফেট, ল্যারি পেজ, ল্যারি এলিসন, সের্গেই ব্রিন, গৌতম আদানি ও পরিবার এবং মুকেশ আমবানি। তালিকার ১৩ নম্বর স্থানে আছেন ফেসবুকের কর্ণধার মার্ক জাকারবার্গ ও ৬১ নম্বর স্থানে আছেন আলিবাবার প্রতিষ্ঠাতা জ্যাক মা।

Comments

The Daily Star  | English
Wealth accumulation: Heaps of stocks expose Matiur’s wrongdoing

Wealth accumulation: Heaps of stocks expose Matiur’s wrongdoing

NBR official Md Matiur Rahman, who has come under the scanner amid controversy over his wealth, has made a big fortune through investments in the stock market, raising questions about the means he applied in the process.

15h ago