আলোক স্বল্পতায় আগেভাগে শেষ প্রথম দিনের খেলা

নির্ধারিত সময়ের এক ঘণ্টা আগেই দিনের সমাপ্তি ঘোষণা করলেন দুই আম্পায়ার।
ছবি: ফিরোজ আহমেদ

বৃষ্টির বাগড়ায় দ্বিতীয় সেশনে ২৫ মিনিট খেলা হয়নি। তারপরও দুই সেশন মিলিয়ে ৫৭ ওভার খেলা হয়েছিল। কিন্তু চা-বিরতির পর আলোক স্বল্পতায় আর খেলা হলো না। নির্ধারিত সময়ের এক ঘণ্টা আগেই দিনের সমাপ্তি ঘোষণা করলেন দুই আম্পায়ার।

শনিবার মিরপুরে বাংলাদেশের বিপক্ষে দ্বিতীয় টেস্টের প্রথম দিনে টস জিতে ব্যাটিংয়ে নেমে ৫৭ ওভারে ২ উইকেটে ১৬১ রান তুলেছে পাকিস্তান। বিকাল ৪টা ৬ মিনিটে মাঠ পর্যবেক্ষণ করে দিনের খেলার সমাপ্তি ঘোষণা করেন দুই আম্পায়ার শরফুদৌল্লাহ সৈকত ও মাইকেল গফ।

বাবর-আজহারের জুটিতে হতাশার সেশন

ওপেনাররা ভাল শুরুর পর তাইজুল ইসলামের জোড়া আঘাতে খেলায় ফিরেছিল বাংলাদেশ। প্রথম সেশনে ম্যাচ ছিল সমতায়। দ্বিতীয় সেশনে বাংলাদেশকে হতাশ করলেন বাবর আজম-আজহার আলি। বৃষ্টি বিঘ্নিত সেশনে কোন উইকেটই পেল না বাংলাদেশ।

শনিবার মিরপুর টেস্টের চা-বিরতি পর্যন্ত ২ উইকেটে ১৬১ রান তুলেছে পাকিস্তান। দ্বিতীয় সেশনে খেলা হয়েছে ২৬ ওভার। তাতে কোন উইকেট না হারিয়ে পাকিস্তান যোগ করেছে ৮৩ রান। ৯৯ বলে ৬০ রান নিয়ে ক্রিজে আছেন বাবর। ১১২ বলে ৩৬ রান করে ক্রিজে আছেন আজহার। তৃতীয় উইকেটে তাদের জুটিতে এসে গেছে ৯১ রান। চা-বিরতির পেরিয়ে গেলেও  আলোক স্বল্পতায় বন্ধ রয়েছে খেলা। 

প্রথম সেশনে উইকেট নেওয়ার পরিস্থিতি এলেও দ্বিতীয় সেশনে তেমন অবস্থা তৈরি করতে পারেনি বাংলাদেশ। সময় নিয়ে থিতু হয়ে খেলা এগিয়ে নেন বাবর-আজহার। বাবর ছিলেন একটু বেশি আগ্রাসী, আজহার হেঁটেছেন সতর্ক পথে। 

এর আগে টস জিতে ভালো শুরু পায় পাকিস্তান। দুই ওপেনার আবিদ আলি ও আব্দুল্লাহ শফিক প্রথম ঘন্টা পার করে দেন অনায়াসে। সকালে ঘূর্ণিঝড় জাওয়াদের প্রভাবে আকাশ ছিল মেঘলা। তাতে বোলিং পেয়ে শুরুতে সেটা কাজে লাগানোর একটা বড় সুযোগ ছিল বাংলাদেশের। প্রথম ওভারেই সে আভাস দিয়েছিলেন ইবাদত হোসেন। তবে আলগা বল করে চাপ সরিয়ে দেন সৈয়দ খালেদ আহমদ। উদ্বোধনী জুটিতে আবারও ভাল শুরু পেয়ে যায় পাকিস্তান।

আগের টেস্টে দুই ইনিংসেই ঝলক দেখানো আবিদ আলি ছিলেন সাবলীল, নিয়ন্ত্রিত। আব্দুল্লাহ শফিকও হয়ে গিয়েছিলেন থিতু। সাকিব আল হাসান এসেও তাদের আলগা করতে পারেননি। প্রথম ঘণ্টায় কোন সুযোগই দেননি তারা।

প্রথম ঘণ্টার পার হয়ে যাওয়ার পর সাফল্য ধরা দেয় বাংলাদেশের। আগের ম্যাচে বাংলাদেশের বোলিং হিরো তাইজুল ইসলাম ভেতরে ঢোকা এক ডেলিভারিতে বোকা বানান শফিককে। পাকিস্তানের ওপেনারের ব্যাট-প্যাডের মধ্যে ফাঁক ছিল বিস্তর। এরমাঝ দিয়ে বল ভেঙ্গে দেয় স্টাম্প। ১৯তম ওভারে গিয়ে ৫৯ রানে প্রথম উইকেট হারায় সফরকারীরা। এরপরের খানিকটা সময় দারুণ বল করতে থাকেন তিনি।আজহার আলিকেও ফিরিয়ে দেওয়ার কাছে চলে গিয়েছিলেন। তবে কট বিহাইন্ডের আবেদন রিভিউ নিয়েও সফল হয়নি বাংলাদেশ। পরের ওভারেই আসে সবচেয়ে বড় উইকেট। আগের ম্যাচে পাকিস্তানের ব্যাটিং হিরো আবিদকে ছেঁটে ফেলেন তাইজুল। তার সোজা বল কাট করতে গিয়ে প্লেইড অন হয়ে যান আবিদ।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

পাকিস্তান প্রথম ইনিংস: ৫৭ ওভার ১৬১/২ (আবিদ ৩৯, শফিক ২৫, আজহার ৬০*, বাবর ৩৬*; ইবাদত ০/২৮, খালেদ ০/১৯, সাকিব ০/৩৩, তাইজুল ২/৪৯, মিরাজ ০/৩১)।

Comments

The Daily Star  | English

Corruption, zero-sum politics and democratic decline

Governments that score low in corruption indexes are more prone to use force and violence to control and suppress dissensions and protests.

4h ago