টেস্ট অভিষেকের মতই অনুভূতি হচ্ছে কামিন্সের

মাস খানেক আগেও টিম পেইনের অধীনে আরেকটি অ্যাশেজ খেলার প্রস্তুতিতেই ছিলেন প্যাট কামিন্স। কিন্তু বদলে যাওয়া বাস্তবতায় অনেকটা আকস্মিকভাবেই টেস্ট অধিনায়কের দায়িত্ব পেয়ে যান তিনি
Pat Cummins
ছবি: ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া

মাস খানেক আগেও টিম পেইনের অধীনে আরেকটি অ্যাশেজ খেলার প্রস্তুতিতেই ছিলেন প্যাট কামিন্স। কিন্তু বদলে যাওয়া বাস্তবতায় অনেকটা আকস্মিকভাবেই টেস্ট অধিনায়কের দায়িত্ব পেয়ে যান তিনি। টেস্ট র‍্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষ এই পেসারের ভেতর তাই খেলা করছে অন্যরকম অনুভূতি। ৩৪ টেস্ট খেলেও তার মনে হচ্ছে দাঁড়িয়ে আছেন অভিষেকের দোরগোড়ায়।

টেস্ট অধিনায়কের পদটা দিতে অনেক কঠোর প্রক্রিয়ার মধ্যে দিয়ে যায় ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া। তবে গত দুই দফাতেই তাদের এই সিদ্ধান্ত নিতে হয়েছে বিব্রতকর ঘটনায় হুট করেই। বল টেম্পারিং কেলেঙ্কারিতে আচমকাই অধিনায়কত্ব দিতে হয়েছিল পেইনকে। নানান প্রতিকূলতা সামলে যিনি থিতু হচ্ছিলেন তখনই আবার ধাক্কা। এবার সহকর্মীকে পাঠানো পুরনো অশ্লীল বার্তার জেরে দায়িত্ব ছাড়তে হয় পেইনকে। ক্রিকেট থেকেও দূরে সরে যেতে হয় তাকে।

প্রক্রিয়া অনুসরণ করে তাই সহ-অধিনায়ক কামিন্সকেই দেওয়া হয় দায়িত্ব। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে অ্যাশেজের প্রথম টেস্টে নামার আগে মঙ্গলবার সংবাদ সম্মেলনে কামিন্স জানান তিনি কতটা রোমাঞ্চিত,  'যখন আমার অভিষেক হয়, যখন ব্যাগি গ্রিন ক্যাপ পাই তখনকার মতোই লাগছে। ডোনান্ড ব্র্যাডম্যান, রিচি বেনোদের সঙ্গে ইতিহাসে জায়গা পাওয়ার কথা ভাবলে শিহরণ জাগে।'

'এটা ভিন্ন একটা ধাপ। অস্ট্রেলিয়ার ৪৭তম পুরুষ টেস্ট অধিনায়ক হিসেবে দায়িত্ব নিচ্ছি। পেইনি (টিম পেইন), স্মিথি (স্টিভ স্মিথ), রিকি পন্টিং, মাইকেল ক্লার্ক, স্টিভ ওয়াহ- এরকম কিংবদন্তির উত্তরসূরি হচ্ছে যাদের খেলা দেখে বেড়ে উঠেছি।'

ব্রিসবেনের গ্যাবায় ক্যারিয়ারে নতুন এক ধাপ শুরু করার আগে পূর্বসূরি অধিনায়কদের ইতিবাচক দিকগুলো নিজের ভেতর নিতে চান কামিন্স,   'বিভিন্ন অধিনায়কের বিভিন্ন কিছু নেওয়া যায়। ২০১৯ সালে অ্যাশেজে স্টিভ ওয়াহ আমাদের সঙ্গে ছিলেন (মেন্টর হিসেবে)। তিনি সেরা, জানতেন কীভাবে সব কিছু সহজ রাখতে হয়। বিশেষ করে ক্রিকেটপ্রেমীদের জন্য দেখার বিষয় ছিল কঠিন পরিস্থিতিকেও তিনি কীভাবে একদম সহজ করে সামলাতেন।'

'যখন আমি বল করতে যেতাম মাইকেল ক্লার্ক আমাদের ১০ ফুট উঁচু করে ফেলত। আমি দুর্দান্ত আত্মবিশ্বাস পেতাম।'

'রিকি পটিং ছিলেন দারুণ এক মানুষ, স্টিভ স্মিথ সামনে থেকে নেতৃত্ব দিত। পেইনিও খুব ভাল মানুষ। তাদের সবার থেকে সেরা জিনিসগুলোই নিতে চাইব।'

বুধবার বাংলাদেশ সময় সকাল ৬টায় ইংল্যান্ডের বিপক্ষে এবারের অ্যাশেজের প্রথম টেস্টে নামবে কামিন্সের অস্ট্রেলিয়া।

Comments

The Daily Star  | English

Create right conditions for Rohingya repatriation: G7

Foreign ministers from the Group of Seven (G7) countries have stressed the need to create conditions for the voluntary, safe, dignified, and sustainable return of all Rohingya refugees and displaced persons to Myanmar

1h ago