অধরা শিরোপায় চুমু আঁকলেন মেসি

এবার আর না পাওয়ার ব্যথায় পুড়তে হয়নি মেসিকে।
messi_champion
ছবি: টুইটার

বর্ণাঢ্য ক্যারিয়ারে ক্লাব পর্যায়ে অজস্র সাফল্য উপভোগ করেছেন লিওনেল মেসি। তবে একটি অতৃপ্তি রয়ে গিয়েছিল তার। জাতীয় দল আর্জেন্টিনার জার্সিতে কোনো শিরোপা ছিল না রেকর্ড ছয়বারের ব্যালন ডি’অর জয়ী তারকার। সেই আক্ষেপ তার ঘুচল। তাও আবার চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ব্রাজিলের মাঠে, ব্রাজিলকেই হারিয়ে।

রবিবার সকালে কোপা আমেরিকার ফাইনালে বিখ্যাত মারাকানা স্টেডিয়ামে স্বাগতিকদের ১-০ গোলে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে আর্জেন্টিনা। ২৮ বছরের অপেক্ষা শেষে কোনো প্রতিযোগিতায় শিরোপা জেতার স্বাদ পেয়েছে তারা।

দেশের হয়ে এর আগে চারটি ফাইনাল খেলেছিলেন ৩৪ বছর বয়সী মেসি। কোপা আমেরিকায় ২০০৭, ২০১৫ ও ২০১৬ সালে এবং বিশ্বকাপে ২০১৪ সালে। তবে কোনোবারই শেষ হাসি হাসতে পারেননি তিনি। প্রতিবারই হারের হতাশা নিয়ে মাঠ ছাড়তে হয়েছিল তাকে।

তবে এবার আর না পাওয়ার ব্যথায় পুড়তে হয়নি মেসিকে। আর্জেন্টিনার শিরোপা জয়ের পথে তিনি রাখেন অসামান্য অবদান। পুরো আসরে খেলে নিজে চারটি গোল করার পাশাপাশি সতীর্থদের আরও পাঁচটি গোলে অবদান রাখেন তিনি। চারটি ম্যাচে হন ম্যাচসেরা। এতে যৌথভাবে আসরের সেরা ফুটবলারের পুরস্কার ও সর্বোচ্চ গোলদাতা পুরস্কার- দুটিই বগলদাবা করেছেন তিনি।

আগে যে পাঁচবার কোপা আয়োজন করেছিল ব্রাজিল, প্রতিবারই তারা শিরোপা নিজেদের ঘরে রেখে দিয়েছিল। ঘরের মাটিতে এই আসরে শেষবার তারা হেরেছিল ১৯৭৫ সালে, পেরুর বিপক্ষে। সেলেসাওদের সেই অপ্রতিরোধ্য যাত্রায় এবার ইতি টেনেছে আর্জেন্টিনা। মেসির অধিনায়কত্বে তারা গড়েছে ইতিহাস।

মেসি সর্বকালের সেরা ফুটবলার কিনা সেই বিতর্কের অবসান হয়তো ঘটবে না কোপা আমেরিকার শিরোপা দিয়ে। বিশ্বকাপ ছোঁয়া যে এখনও বাকি! তবে এই আলোচনায় তার যে শূন্যতা ছিল, সেটা পূরণ হয়েছে। তার অর্জনের মুকুটে যোগ হয়েছে আর্জেন্টিনার হয়ে শিরোপা জেতার রঙিন পালক।

Comments

The Daily Star  | English

Create right conditions for Rohingya repatriation: G7

Foreign ministers from the Group of Seven (G7) countries have stressed the need to create conditions for the voluntary, safe, dignified, and sustainable return of all Rohingya refugees and displaced persons to Myanmar

2h ago