খোঁপায় তারার ফুল

উৎসব অনুষ্ঠানে খোঁপায় ফুল ছাড়া বাঙালি নারীর সাজ থেকে যায় অসম্পূর্ণ। যেকোনো উৎসবে খোঁপায় ফুল পরা চাই। সে হোক কাঁচা ফুল কিংবা কাগজের। খোঁপায় ফুল পরাটাই মূল।

উৎসব অনুষ্ঠানে খোঁপায় ফুল ছাড়া বাঙালি নারীর সাজ থেকে যায় অসম্পূর্ণ। যেকোনো উৎসবে খোঁপায় ফুল পরা চাই। সে হোক কাঁচা ফুল কিংবা কাগজের। খোঁপায় ফুল পরাটাই মূল।

আগে দেখা যেত সবাই কাঁচা ফুলই বেশি পছন্দ করত। তবে এখন কাঁচা ফুলের মতো অবিকল দেখতে কাগজের ফুল পাওয়া যাচ্ছে হাতের কাছেই। একই ফুল বেশ কয়েকবার ব্যবহার করা যায় বিধায় কাগজের ফুলের চাহিদা দিন দিন বেড়েই চলেছে।

উৎসবের দিন সবাই সেজেগুঁজে পরিপাটি হয়ে ঘর থেকে বের হয়। শাড়ি, চুড়ি, গহনার সঙ্গে চুলের সাজ। শাড়ির সঙ্গে সবচেয়ে বেশি মানিয়ে যায় সিম্পল খোঁপা। হাত দিয়ে পেঁচিয়ে মায়েদের যেভাবে খোঁপা করতে দেখেছি ছোটবেলায়, তেমনই খোঁপা কালের চক্রে ঘুরে এসেছে আবার। ছোটবেলায় মাকে দেখতাম লম্বা চুল পেঁচিয়ে সুন্দর করে খোঁপা করে ফেলতেন। বিস্ময়ে চোখ চড়কগাছ হয়ে যেত। কীভাবে সম্ভব? এটাও অনেক চেষ্টা পর একসময় পেরে ওঠা গেল।

তখন মায়েদের সেই খোঁপা চোখে লেগে থাকার পেছনে মূল কারণ ছিল ফুল। বারান্দার নয়নতারা গাছ থেকে দুটো ফুল এনে মা গুঁজে দিতেন তার খোঁপায়। কী সুন্দর সেই দৃশ্য। এখনকার দিনে খুব একটা ঘরেই থাকা হয় না মেয়েদের।

ঘরে থাকলেও যান্ত্রিক জীবনে খুব পরিপাটি করে খোঁপায় ফুল দেয়ার সময় সেজেগুঁজে থাকাটা হয়তো হয়ে ওঠে না। বাহ্? কিন্তু তাই বলে বিশেষ দিনগুলোতে খোঁপায় ফুল ছাড়া ভাবাই যায় না।

কাঠগোলাপ, বেলি, গাজরা, গাঁদা, নয়নতারা, গ্লাডিওলাস, রজনীগন্ধা, জারবেরা, গোলাপ এবং আরও বিভিন্ন ধরনের ফুল পরে মেয়েরা উৎসব-অনুষ্ঠানে। কাঁচা ফুল তো আছে। যেকোনো ফুলের দোকানেই মিলবে দেখা। তবে কাগজের ফুল কোথায় পাই?

আজকাল অনলাইন বাজারে কাগজের ফুলের গহনার হিড়িক লেগে আছে। ফেসবুকে বসে ১০-১৫ মিনিট সার্চ করলেই পেয়ে যাবেন অনেক কাগজের বা প্লাস্টিকের ফুলের অনলাইন শপ। প্লাস্টিকের গাজরা বা প্লাস্টিক ফুলের তৈরি টিয়ারাও পরতে পারেন চুলে।

যাদের চুল ছোট বা যারা চুল খোলা রাখতে পছন্দ করেন, তাদের জন্য টিয়ারা সহায়ক হতে পারে। আর হাল ফ্যাশনের দিক থেকেও টিয়ারা বা ফ্লাওয়ার ব্যান্ড একশতে একশ। অনলাইন পেজগুলোতে এসব ফুলের টিয়ারা, খোঁপা অবশ্যই খুঁজে পাবেন। তবে যদি অগত্যাই কিনে নেওয়া সম্ভব না হয়, সেজন্য হাতের কাছে যা আছে তা দিয়ে নিজেই তৈরি করে নিতে পারেন টিয়ারা অথবা খোঁপায় গোঁজার ফুল বা ফুলের মালা।

আমাদের সবার ঘরেই কিছু না কিছু কৃত্রিম ফুল থাকে। টিয়ারা বানানোর জন্য সেসব ফুল-লতাপাতা ব্যবহার করতে পারেন। আর সঙ্গে লাগবে কিছু পুঁতি। পুরনো পুঁতির মালা থেকে ৮-১০টি পুঁতি খুলে নিতে পারেন আপনার টিয়ারার জন্য। আরেকটি জিনিস, যা ঘরের কাছে দোকানে পেয়ে যাবেন, তাহলো ফিতা। সোনালি রঙের ফিতা হলে বেশি ভালো হয়। ছোট ছোট ফুল ও লতাপাতাগুলো এক গজ ফিতার মাঝামাঝি অংশে গ্লুগান দিয়ে বসিয়ে নিতে পারেন। আপনারা পছন্দমতো ফুল আর লতাপাতাগুলোর মেলবন্ধন করে গ্লু দিয়ে ফিতার সঙ্গে আটকে দিন। তারপর পুঁতিগুলোও নিজের পছন্দমতো ফুল ও পাতার ওপর বসান। গ্লু শুকিয়ে এলে মাথায় হেয়ার ব্যান্ডের মতো করে ফিতাটি পরে নিন। তারপর যতটুকু অতিরিক্ত ফিতা থেকে যায়, তা কেটে ফেলুন। হয়ে গেল আপনার নিজ হাতে তৈরি টিয়ারা বা ফ্লাওয়ার ব্যান্ড।

কৃত্রিম ফুল হওয়ার সুবিধার্থে এটা বেশ কয়েকবার ব্যবহার করতে পারবেন। এভাবে ঘরে বসেই আপনি বানিয়ে নিতে পারবেন আপনার খোঁপায় বা চুলে পরার ফুল।

Comments

The Daily Star  | English

Govt may go for quota reforms

The government is considering a “logical reform” in the quota system in the public service, but it will not take any initiative to that end or give any assurances until the matter is resolved by the Supreme Court.

1d ago