মেহেদির রঙ গাঢ় করার কৌশল

ঈদের সঙ্গে মেহেদির সম্পর্ক সেই আদ্যিকালের। ঈদের আগের দিন মেহেদি নিয়ে ছোটাছুটি শিশু থেকে শুরু করে বড়রাও করে। বাসায় যে সবচেয়ে ভালো মেহেদি দেয় তার কাছেই ভিড় লেগে থাকে। ঈদের আমেজের সিংহভাগ জুড়েই থাকে মেহেদি এবং হাতে তার গাঢ় রঙের চিন্তা।
ছবি: মেহেদি বাই আরউইন

ঈদের সঙ্গে মেহেদির সম্পর্ক সেই আদ্যিকালের। ঈদের আগের দিন মেহেদি নিয়ে ছোটাছুটি শিশু থেকে শুরু করে বড়রাও করে। বাসায় যে সবচেয়ে ভালো মেহেদি দেয় তার কাছেই ভিড় লেগে থাকে। ঈদের আমেজের সিংহভাগ জুড়েই থাকে মেহেদি এবং হাতে তার গাঢ় রঙের চিন্তা।

মেহেদি তো আমরা মোটামুটি সবাই দেই। তবে অনেক বিষয় অজানা থাকে বলে মেহেদির আশানুরূপ রঙ পাওয়া যায় না। ফলে কষ্ট করে মেহেদি দিলেও ঈদের দিন তা স্পষ্ট দেখা যায় না। তাই কিছু বিষয় মাথায় রাখলে মেহেদির রঙ পাবেন গাঢ় লাল।

মেহেদি নির্বাচন

মেহেদি নির্বাচন করার সময় প্রাকৃতিক উপাদান সমৃদ্ধ মেহেদি নির্বাচন করতে হবে। তবে এ ধরনের মেহেদি প্রাকৃতিক উপাদান সমৃদ্ধ হওয়ার কারণে রঙ হতে সামান্য দেরি হয়। তবে সঠিকভাবে ব্যবহার করলে সেই রঙ টিকে থাকে পুরো ঈদের সপ্তাহ জুড়ে। মেহেদি মোটাদাগে টিউব ও কোন ২ ধরনের পাওয়া যায়। টিউব মেহেদি দিতে হাতে ব্যথা পেতে পারেন। তাই অবশ্যই কোন মেহেদি বাছাই করে নিন।

ছবি: মেহেদি বাই আরউইন

বাজারে অনেক ধরনের মেহেদি রয়েছে, যেগুলো ৫ মিনিটেই গাঢ় কালো রঙ হবে এরকম লেখা থাকে। তবে সে সব মেহেদি নির্বাচন করবেন না। হয়তো গাঢ় রঙ পাবেন কিন্তু সেই মেহেদিগুলো ক্ষতিকর রাসায়নিক পদার্থ দিয়ে তৈরি। যা ত্বকের জন্য অত্যন্ত ক্ষতিকর। ফলে তাড়াতাড়ি রঙ হবে এমন অ্যাকটিভ গোল্ড মেহেদি নির্বাচন থেকে বিরত থাকুন। 

মেহেদি দেবার সময় লক্ষ্য রাখতে হবে

বেশিরভাগ টিউব মেহেদি প্লাস্টিক কিংবা লোহার পিন দিয়ে আটকানো থাকে। সেই পিন খুলে অনেকটুকু মেহেদি ফেলে দিতে হবে। কেন না শুরুর দিকের মেহেদিটা খুব ড্রাই থাকে। ফলে সেই অংশ হাতের ওপরে ঠিকমতো বসে না এবং ভালো রঙ পাওয়া যায় না। মেহেদি ব্যবহার করা শেষ হয়ে গেলে আবার একই পিন দিয়ে আটকে রাখবেন এবং আবার ব্যবহার করার আগে কিছুটা মেহেদি শুরুর দিকে ফেলে দিবেন।

ছবি: মেহেদি বাই আরউইন

মেহেদি দিয়ে তাড়াতাড়ি শুকানোর জন্য ফ্যানের বাতাস বা কোনো তাপ ব্যবহার করা যাবে না। স্বাভাবিক রুম টেম্পারেচারেই মেহেদি শুকাবেন। এতে মেহেদির ডাই বা কালার আপনার স্কিনে বসার জন্য পর্যাপ্ত সময় পাবে। 

মেহেদি দেওয়ার পর তা যত সময় ত্বকে লেগে থাকবে ঠিক তত বেশি গাঢ় রঙ পাওয়া যাবে।
 
মেহেদি উঠানোর পরে ৩-৪ ঘণ্টা পানি ব্যবহার করবেন না। কেন না ডাই রিলিজ প্রসেসে পানি বাঁধার সৃষ্টি করে। সেজন্য রাতে মেহেদি দিলে ডাই রিলিজ হওয়া পর্যাপ্ত সময় পাওয়া যায়।

টনিক ব্যবহার

মেহেদি শুকানোর পরে উঠানোর আগে এক প্রকার টনিক ব্যবহার করে থাকেন মেহেদি আর্টিস্টরা। এক চামচ নারিকেল তেলের সঙ্গে এক চামচ লেবুর রস মিলিয়ে সেটি টনিক হিসেবে ব্যবহার করে থাকেন। মেহেদির থেকে সবটুকু ডাই রিলিজ হতে এই টনিক সাহায্য করে। সেই সঙ্গে নারিকেল তেলের জন্য মেহেদি পানির সংস্পর্শেও আসে না। তাই গাঢ় রঙ পেতে অবশ্যই ব্যবহার করুন এই টনিক।

লক্ষ্য রাখুন

• মেহেদি লাগানোর সময় হাতে অবশ্যই টিস্যু রাখবেন। যাতে করে বার বার কোনের মাথা মুছে নিতে পারেন।
 
• মেহেদি ডিজাইন নির্বাচন করার সময় নেগেটিভ বা রিভার্স স্টাইল ডিজাইন পছন্দ করবেন। এতে রঙ খুবই গাঢ় হবে।
 

Comments

The Daily Star  | English
How a war in the Middle East could impact South Asia

How a war in the Middle East could impact South Asia

The impact of a widening of the Gaza war would be especially severe for South Asian nations

12h ago