ভারতের যত হ্যাটট্রিক

​কলকাতার ইডেন গ্রার্ডেনসে অস্ট্রেলিয়াকে ৫০ রানে পরাজিত করে পাঁচ ম্যাচের সিরিজে ২-০ লিড নিয়েছে ভারত। পুরো ম্যাচেই টিম ইন্ডিয়ার পারফরমেন্সের দিক থেকে যত চমক ছিল তার মধ্যে সেরা ছিল কুলদীপ যাদবের হ্যাটট্রিকটি। ৩৩তম ওভারের ওই হ্যাটট্রিক বদলে দেয় ম্যাচের সমীকরণ। মাঠ থেকে একে একে বিদায় নেন ম্যাথু ওয়েড, অ্যাশটন অ্যাগার ও প্যাট কামিন্স।
ভারতীয়দের মধ্যে পঞ্চম বোলার হিসেবে হ্যাটট্রিক করার পর গতকাল কলকাতার ইডেন গার্ডেনসে কুলদীপের উদযাপন। ছবি: এএফপি

কলকাতার ইডেন গ্রার্ডেনসে অস্ট্রেলিয়াকে ৫০ রানে পরাজিত করে পাঁচ ম্যাচের সিরিজে ২-০ লিড নিয়েছে ভারত। পুরো ম্যাচেই টিম ইন্ডিয়ার পারফরমেন্সের দিক থেকে যত চমক ছিল তার মধ্যে সেরা ছিল কুলদীপ যাদবের হ্যাটট্রিকটি। ৩৩তম ওভারের ওই হ্যাটট্রিক বদলে দেয় ম্যাচের সমীকরণ। মাঠ থেকে একে একে বিদায় নেন ম্যাথু ওয়েড, অ্যাশটন অ্যাগার ও প্যাট কামিন্স।

এক দিনের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে এখন পর্যন্ত ৪৩ জন হ্যাটট্রিক করেছেন। এর মধ্যে ভারতীয়দের মধ্যে হ্যাটট্রিক করেছেন মাত্র তিনজন। সেই দিক থেকে ২২ বছরের কুলদীপের হ্যাটট্রিকের সাথে একদিনের আন্তর্জাতিকে ভারতেরও হ্যাটট্রিক হল।

তবে কুলদীপের হ্যাটট্রিকেও একটি বিশেষত্ব ছিল। তিন জনকে তিনভাবে অর্থাৎ বোল্ড, এলবিডব্লিউ ও কট বিহাইন্ডের মাধ্যমে আউট করেছেন তিনি। তার আগে মাত্র চারজনের এই কৃতিত্ব ছিল। চামিন্দা ভাস বাংলাদেশে বিপক্ষে ২০০৩ সালে, ফারজিভ মাহারুফ ভারতের বিপক্ষে ২০১০ সালে কাগিসো রাবাদা বাংলাদেশের বিপক্ষে ২০১৫ সালে ও জেমস ফকনার শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ২০১৬ সালে এভাবে হ্যাটট্রিক করেছেন। আর ইডেন গার্ডেনসেও তৃতীয় হ্যাটট্রিক এটি।

আইসিসি ক্রিকেট বিশ্বকাপে প্রথম হ্যাটট্রিক করেন ভারতের চেতন শর্মা

ঘটনাটা ১৯৮৬ সালের। সে বছর সংযুক্ত আরব আমিরাতের সার্জায় অস্ট্রাল-এশিয়া কাপের ফাইনাল ম্যাচে শেষ বলে চার রান ঠেকাতে পারেননি ভারতের চেতন শর্মা। ছয় মেরে শিরোপা ঘরে তুলেছিলেন জাভেদ মিয়াদাদ। এই খেলার পর ভারতীয় সমর্থকদের কাছে রাতারাতি খলনায়কে পরিণত হন চেতন শর্মা। তবে এর পরের বছরই বিশ্বকাপ ক্রিকেটের গ্রুপ পর্বে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ভারতীয়দের মধ্যে প্রথম হ্যাটট্রিক করে নিজের বদনাম ঘুচিয়েছিলেন তিনি। সেই সাথে বিশ্বকাপে প্রথম হ্যাটট্রিকের কৃতিত্ব ছিল এটি।

ভারতীয়দের মধ্যে এর পরের হ্যাটট্রিকের কৃতিত্ব কপিল দেবের। ১৯৯০-৯১ সালে এশিয়া কাপের ফাইনালে কলকাতার ইডেন গার্ডেনসে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে হ্যাটট্রিক করেন কপিল দেব। তবে আসানকা গুরুসিনহা, অরবিন্দ ডি সিলভা ও অর্জুনা রানাতুঙ্গা সে যাত্রায় ব্যাটিং বিপর্যয় থেকে শ্রীলঙ্কাকে কোনমতে রক্ষা করলেও ভারত খুব সহজেই ২০৫ রানের লক্ষে পৌঁছে যায়।

ভারতের এর পরের হ্যাটট্রিক আসে ২০০১ সালে ইডেন গার্ডেনসে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে। দুই ম্যাচের সিরিজে সেবার হরভজন সিংয়ের হ্যাটট্রিকের কল্যাণে সমতা এনেছিল ভারত।

আর চতুর্থ হ্যাটট্রিকটি ছিল পাকিস্তানের বিপক্ষে ২০০৬ সালে। ওই সিরিজে ইরফান পাঠান করাচিতে তৃতীয় ও শেষ টেস্টে হ্যাটট্রিক করে বসেন। এর আগের দুই ম্যাচ ছিল ফলাফল শূন্য। ইরফান পাঠানের সেই হ্যাটট্রিকের কল্যাণে সিরিজ জিতে নেয় ভারত।

Comments

The Daily Star  | English

Hiring begins with bribery

UN independent experts say Bangladeshi workers pay up to 8 times for migration alone due to corruption of Malaysia ministries, Bangladesh mission and syndicates

1h ago