গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদ পুলিশের বাধায় পণ্ড

গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে বাম দলগুলোর জ্বালানি মন্ত্রণালয় ঘেরাও কর্মসূচি পুলিশের বাধায় পণ্ড হয়ে গেছে। মিছিল নিয়ে জ্বালানি মন্ত্রণালয়ের দিকে যাওয়ার সময় ঢাকায় জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে আন্দোলনকারীদের ওপর কাঁদানে গ্যাস ও জল কামান ব্যবহার করে পুলিশ।
বাম দলগুলোর জ্বালানি মন্ত্রণালয় ঘেরাও কর্মসূচিতে জল কামান ও কাঁদানে গ্যাস দিয়ে পুলিশের বাধা। ছবি: আমরান হোসেন

গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে বাম দলগুলোর জ্বালানি মন্ত্রণালয় ঘেরাও কর্মসূচি পুলিশের বাধায় পণ্ড হয়ে গেছে। মিছিল নিয়ে জ্বালানি মন্ত্রণালয়ের দিকে যাওয়ার সময় ঢাকায় জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে আন্দোলনকারীদের ওপর কাঁদানে গ্যাস ও জল কামান ব্যবহার করে পুলিশ।

কয়েকটি বামপন্থি দলের সমন্বয়ে গঠিত গণতান্ত্রিক বাম মোর্চা গ্যাসের বর্ধিত মূল্য প্রত্যাহারের দাবিতে এই ঘেরাও কর্মসূচি দিয়েছিল।

শাহবাগ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবুল হাসান মিছিলে পুলিশের বাধার কথা জানিয়ে বলেন, আন্দোলনকারীদের ছত্রভঙ্গ করতে জলকামান ও কাঁদানে গ্যাস ব্যবহার করা হয়েছে। আন্দোলনকারীদের দিক থেকে পুলিশকে লক্ষ্য করে ইট-পাটকেল নিক্ষেপের অভিযোগ করেন তিনি।

গ্যাসের দাম বাড়ানোর প্রতিবাদে বেশ কিছুদিন থেকে আন্দোলন করছে বামপন্থি দলগুলো। ছবি: আমরান হোসেন

গণতান্ত্রিক বাম মোর্চার শরিক বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দল-বাসদ (মার্কসবাদী) এর কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য সাইফুজ্জামান সাকন দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, অন্তত ৫০ জন আন্দোলনকারী পুলিশের হাতে আহত হয়েছেন।

দুই দফায় গ্যাসের দাম বৃদ্ধির ঘোষণা দিয়েছে বাংলাদেশ সরকার। মার্চ ও জুনে দুই বারে ২২ শতাংশ মূল্যবৃদ্ধির নিন্দা জানিয়েছে বেশ কয়েকটি রাজনৈতিক দল। মূল্যবৃদ্ধির ঘোষণার পর থেকে বামপন্থি দলগুলো প্রতিবাদ কর্মসূচি পালন করছে।

বর্ধিত নতুন মূল্য অনুযায়ী আগামী মাস থেকে বাসা বাড়িতে আগামী মাস থেকে দুই বার্নারের চুলার জন্য ৮০০ টাকা ও এক বার্নারের জন্য ৬৫০ টাকা দিতে হবে। আগামী ১ জুন থেকে উভয় চুলার জন্য আরও ১৫০ টাকা করে বিল গুণতে হবে।

Click here to read the English version of this news

Comments