আবু ইভানকা, আমরা তোমাকে ভালোবাসি!

এক মিসাইল হামলাতেই কেটে গেল আরবদের ট্রাম্প বিরোধিতার রেশ। সিরিয়ার বিমানঘাঁটিতে সামরিক আক্রমণ চালিয়ে আরব জাহানে হিরো বনে গেছেন তিনি। ‘আবু ইভানকা’ হয়েছে তাঁর উপাধি। অর্থাৎ ‘ইভানকার পিতা’। উল্লেখ্য, ট্রাম্পের এক কন্যার নাম ইভানকা।
Trump
ফটোশপ করে ট্রাম্পের মাথায় বসিয়ে দেওয়া হয়েছে তুর্কি ফেজ। ছবি: সংগৃহীত

এক মিসাইল হামলাতেই কেটে গেল আরবদের ট্রাম্প বিরোধিতার রেশ। সিরিয়ার বিমানঘাঁটিতে সামরিক আক্রমণ চালিয়ে আরব জাহানে হিরো বনে গেছেন তিনি। ‘আবু ইভানকা’ হয়েছে তাঁর উপাধি। অর্থাৎ ‘ইভানকার পিতা’। উল্লেখ্য, ট্রাম্পের এক কন্যার নাম ইভানকা।

আরবীয় সংস্কৃতিতে কাউকে শ্রদ্ধা জানানোর জন্য এমন শব্দ-যুগল ব্যবহার করা হয়। যেমন, ফিলিস্তিনের রাষ্ট্রপতিকে ডাকা হয় ‘আবু মাজেন’ বলে।

গত মঙ্গলবার সিরিয়ার সরকারি বাহিনীর সন্দেহভাজন রাসায়নিক হামলায় দেশটির ইদলিব প্রদেশে ৩০ শিশুসহ ৮৬জন মারা যায়। আহত হয় শত শত নাগরিক। এর প্রতিশোধ হিসেবে শুক্রবার সরকারি বাহিনীর এক ঘাঁটিতে মিসাইল হামলা চালায় যুক্তরাষ্ট্র। হামলার জন্য অনুমতি দেন স্বয়ং ট্রাম্প বা ‘আবু ইভানকা’।

বিগত ছয় বছরের এই গৃহযুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্র সবসময়ই সিরিয়ার স্বৈরশাসক বাশার আল আসাদের বিরুদ্ধে অবস্থান নিলেও সে দেশটিতে সরাসরি আক্রমণ এই প্রথম। তাই, বাশার-বিরোধী আরবরা সাধুবাদ জানিয়েছেন ট্রাম্পকে।

অনেকে আরেকটু বাড়িয়ে ট্রাম্পকে সম্বোধন করছেন ‘আবু ইভানকা আল আমরিকি’ বলে। শুধু তাতেই থামেননি উচ্ছ্বসিত জনতা। ফটোশপ করে ট্রাম্পের মাথায় বসিয়ে দেওয়া হয়েছে তুর্কি ফেজ। আরবিতে লেখা হয়েছে ‘আমরা তোমাকে ভালোবাসি’।

বাশারবিরোধীদের দখলে থাকা সিরিয়ার একটি এলাকা থেকে নাজিম হাসান নামে একজন লিখেছেন, “পাশ্চাত্যে তোমরা ট্রাম্পকে ঘৃণা করতে পারো। তবে জেনে রেখো, ওবামা আমাদের জন্যে যা করতে পারেননি তিনি তাই করেছেন।”

আলেপ্পো শহর থেকে সাত বছর বয়সী বানা আল আবেদ টুইটারে লিখেছেন, “আমি একজন সিরীয় শিশু। বাশার ও পুতিনের হাতে নির্যাতিত। আমার লোকদের বিরুদ্ধে ডোনাল্ড ট্রাম্পের আক্রমণকে আমি স্বাগত জানাই।”

 

তথ্যসূত্র: দ্য টেলিগ্রাফ

Comments