রমনার বটমূলে নববর্ষের আবাহন

সূর্য তার সময়েই উঠেছে, বাঙালি জেগেছে আগে। পরণে চাপিয়েছে লাল-সাদা বসন। পাড়ি দিয়েছে পথ, যেখানে সুরেলা আয়োজন ছিল অশ্বথ ছায়াবিথীতলে। কেউ জানে না কারণ, সবাই যাকে ডাকে- রমনা বটমূল।
দুই বছর পর আবারো ছায়ানটের আয়োজনে শুরু হয়েছে বর্ষবরণ অনুষ্ঠান। ছবি: প্রবীর দাশ

সূর্য তার সময়েই উঠেছে, বাঙালি জেগেছে আগে। পরণে চাপিয়েছে লাল-সাদা বসন। পাড়ি দিয়েছে পথ, যেখানে সুরেলা আয়োজন ছিল অশ্বথ ছায়াবিথীতলে। কেউ জানে না কারণ, সবাই যাকে ডাকে- রমনা বটমূল।

করোনা মহামারির কারণে দুই বছর বিরতির পর আবারো দেশের ঐতিহ্যবাহী সাংস্কৃতিক সংগঠন ছায়ানটের আয়োজনে শুরু হয়েছে বর্ষবরণের আবাহনের এ অনুষ্ঠান।

পবিত্র রমজান মাসেও উৎসবপ্রিয় মানুষ প্রতিবারের মতো এবারো প্রাণের টানে ছুটে এসেছেন এই আয়োজনে৷

আজ বৃহস্পতিবার বাংলা নববর্ষের প্রথম ভোরের মিষ্টি রোদে শিল্পী শ্রাবন্তী ধরের কণ্ঠে রাগালাপের মধ্য দিয়ে শুরু হয় এ আয়োজন৷ তিনি পরিবেশন করেন রাগ রামকেলী।

ছবি: প্রবীর দাশ

রাগের উত্থান-পতনের মাঝে তন্ময় হয়ে পড়েন শ্রোতারা। কণ্ঠ আর যন্ত্রের সুর শেষে যখন চোখ মেলেন, তখন তাদের পাশের ভিড় যেন বেড়েছে আরও কয়েকগুণ। বরাবরের মতোই মূল মঞ্চে বসেছেন ছায়ানট বিদ্যায়তনের নানা বর্ষের শিল্পীরা। সংখ্যায় তারা ৮৫ জন।

শিল্পীদের কণ্ঠে প্রথমেই গীত হয় রবীন্দ্রসংগীত 'মন, জাগ মঙ্গললোকে'। এর বাইরে ছায়ানট বিদ্যায়তনের শিক্ষকরা রয়েছেন একক ও দ্বৈত পরিবেশনা নিয়ে৷

অনুষ্ঠানে পঞ্চকবির গান ছাড়াও থাকছে লোকগান, ব্রতচারীদের গান ৷

ছায়ানট সভাপতি সনজীদা খাতুনের বর্ষবরণের বক্তব্য দিয়ে শেষ হবে এ আয়োজন৷

Comments

The Daily Star  | English

A feminist approach to climate solutions

Feminist approaches offer significant opportunities for driving positive change.

4h ago