রোহিঙ্গা গণহত্যা: ২১-২৮ ফেব্রুয়ারি আইসিজের গণশুনানি

মিয়ানমারে রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর ওপর সংঘঠিত গণহত্যা মামলায় আগামী ২১ থেকে ২৮ ফেব্রুয়ারি জাতিসংঘের প্রধান বিচার বিভাগীয় সংস্থা আন্তর্জাতিক বিচার আদালতে গণশুনানি অনুষ্ঠিত হবে। 
ছবি: সংগৃহীত

মিয়ানমারে রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর ওপর সংঘঠিত গণহত্যা মামলায় আগামী ২১ থেকে ২৮ ফেব্রুয়ারি জাতিসংঘের প্রধান বিচার বিভাগীয় সংস্থা আন্তর্জাতিক বিচার আদালতে গণশুনানি অনুষ্ঠিত হবে।

নেদারল্যান্ডসের হেগভিত্তিক আদালত আজ বুধবার এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, মিয়ানমারের প্রাথমিক আপত্তির ওপর এই শুনানি অনুষ্ঠিত হবে।

তবে বর্তমান কোভিড-১৯ মহামারির পরিপ্রেক্ষিতে হাইব্রিড ফর্মেটে শুনানি অনুষ্ঠিত হবে। আদালতের কিছু সদস্য গ্রেট হল অফ জাস্টিসে উপস্থিত থেকে এবং বাকিরা ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে বিচারিক কার্যক্রমে অংশ নেবেন বলে আশা করা হচ্ছে।

মামলার দুই পক্ষের প্রতিনিধিরা সরাসরি অথবা ভিডিও লিঙ্কের মাধ্যমে অংশগ্রহণ করবেন।

রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে গণহত্যা বন্ধ বা দোষীদের শাস্তি দিতে ব্যর্থ হওয়ায় গাম্বিয়া ২০১৯ সালের নভেম্বর মাসে আইসিজেতে মিয়ানমারের বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করে। 

মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে নিপীড়নের শিকার হয়ে প্রায় ১০ লাখ রোহিঙ্গা এখন বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছেন। মিয়ানমারে সামরিক দমন-পীড়নের ফলে ২০১৭ সালে বাংলাদেশে সবচেয়ে বেশি সংখ্যক রোহিঙ্গা প্রবেশ করে। জাতিসংঘ যাকে 'গণহত্যার অভিপ্রায়' বলে অভিহিত করেছে।

মামলায় প্রাথমিক শুনানির পর আইসিজে তাদের দাবিগুলো যথেষ্ঠ শক্তিশালী বলে মনে করে এবং রাখাইন রাজ্যে গণহত্যা বন্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য মিয়ানমারকে নির্দেশ দেয়।

২০২০ সালের ২৩ অক্টোবর গাম্বিয়া মিয়ানমারের বিরুদ্ধে মামলায় ৫০০-পৃষ্ঠারও বেশি একটি স্মারক দাখিল করে। যেখানে দেখানো হয় কীভাবে তৎকালীন মিয়ানমার সরকার রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে গণহত্যা চালিয়েছে।

স্মারকটিতে গাম্বিয়ার মামলার সমর্থনে ৫ হাজার পৃষ্ঠারও বেশি সহায়ক উপাদান সংযোজন করা হয়।

 

Comments

The Daily Star  | English

How Lucky got so lucky!

Laila Kaniz Lucky is the upazila parishad chairman of Narsingdi’s Raipura and a retired teacher of a government college.

5h ago