খুলনায় ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ১১

খুলনা নগরীতে করোনা চিকিৎসা দেওয়া পাঁচটি হাসপাতালে গত ২৪ ঘণ্টায় ১১ জনের মৃত্যু হয়েছে।
করোনা উপসর্গ নিয়ে বাগেরহাটের ফকিরহাট থেকে আসা আয়েশা বেগমকে ২০০ শয্যা বিশিষ্ট করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সিটি স্ক্যান করার জন্য তাকে নেওয়া হচ্ছে হাসপাতালের বাইরে। এরপর নেওয়া হয় করোনা পরীক্ষার জন্য নমুনা। ২৪ জুলাই ২০২১। ছবি: স্টার

খুলনা নগরীতে করোনা চিকিৎসা দেওয়া পাঁচটি হাসপাতালে গত ২৪ ঘণ্টায় ১১ জনের মৃত্যু হয়েছে।

গতকাল শনিবার সকাল ৮টা থেকে আজ সকাল ৮টা পর্যন্ত হাসপাতালের করোনা ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তাদের মৃত্যু হয়।

খুলনা মেডিকেল কলেজ (খুমেক) হাসপাতালের আওতাভুক্ত করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতালের ফোকাল পারসন ডা. সুহাস রঞ্জন হালদার দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, 'গত ২৪ ঘণ্টায় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় পাঁচ জনের মৃত্যু হয়েছে। তাদের সবাই করোনা পজিটিভ ছিলেন।'

২০০ শয্যার এই হাসপাতালে আজ সকাল ৮টা পর্যন্ত ১১০ জন রোগী ভর্তি ছিলেন। তাদের মধ্যে রেড জোনে ৩৯ জন, ইয়েলো জোনে ৩৮ জন, এইচডিইউতে ১৩ জন এবং আইসিইউতে ২০ জন চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

খুলনা জেনারেল হাসপাতালের করোনা ইউনিটের মুখপাত্র ডা. কাজী আবু রাশেদ বলেন, 'গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা ইউনিটে একজনের মৃত্যু হয়েছে। বর্তমানে ৮০ শয্যার এই হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন ৩৫ জন।'

খুলনার শহীদ শেখ আবু নাসের বিশেষায়িত হাসপাতালের করোনা ইউনিটের মুখপাত্র ডা. প্রকাশ চন্দ্র দেবনাথ জানান, ২৪ ঘণ্টায় হাসপাতালের ৪৫ শয্যার করোনা ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় দুজনের মৃত্যু হয়েছে। বর্তমানে হাসপাতালের করোনা ইউনিটে ৪৫ জন রোগী ভর্তি রয়েছেন। তাদের মধ্যে ১০ জন আইসিইউতে চিকিৎসাধীন।

গাজী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের স্বত্বাধিকারী গাজী মিজানুর রহমান জানান, ২৪ ঘণ্টায় হাসপাতালের করোনা ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিন জনের মৃত্যু হয়েছে। বর্তমানে হাসপাতালের ১৫০ শয্যার করোনা ইউনিটে ৭৬ জন রোগী ভর্তি রয়েছেন। এর মধ্যে আইসিইউতে নয় জন এবং এইচডিইউতে ১০ জন চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

করোনা চিকিৎসায় নতুন যোগ হওয়া খুলনা সিটি মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে গত ২৪ ঘণ্টায় কোনো মৃত্যু হয়নি। হাসপাতালের ৮৭ শয্যার করোনা ইউনিটে বর্তমানে ৬৮ ভর্তি আছেন। এরমধ্যে আইসিইউতে সাত জন এবং এইচডিইউতে চার জন।

Comments