মালয়েশিয়ায় পৃথক অভিযানে ৮৫ বাংলাদেশি আটক

বৈধ কাগজপত্র না থাকায় এবং অভিবাসন আইন লঙ্ঘনের দায়ে তাদের আটক করা হয়েছে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে।
ছবি: সংগৃহীত

মালয়েশিয়ায় পৃথক অভিযানে ৮৫ বাংলাদেশিকে আটক করেছে অভিবাসন বিভাগ। বৈধ কাগজপত্র না থাকায় এবং অভিবাসন আইন লঙ্ঘনের দায়ে তাদের আটক করা হয়েছে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে।

২৫ জানুয়ারি বৃহস্পতিবার জোহর রাজ্যের ইমিগ্রেশন পরিচালক বাহারউদ্দিন তাহির এক বিবৃতিতে বলেছেন, ২৪ জানুয়ারি রাজ্যের সেনাই এলাকায় বেশ কয়েকটি কারখানায় অপারেশন মাহির নামের এই অভিযানে সঠিক ভ্রমণ নথি বা কর্মসংস্থানের অনুমতি নেই এমন বিদেশি কর্মীদের আটক করা হয়েছে।

অভিযানে ২০ থেকে ৪৭ বছর বয়সী ৬৯ বাংলাদেশি পুরুষ, ৭ ভারতীয় পুরুষ, ৪ শ্রীলঙ্কার পুরুষ এবং এক মিয়ানমারের দম্পতিকে আটক করা হয়েছে।

বুধবার স্থানীয় সময় সকাল ১১টায় জোহর ইমিগ্রেশন বিভাগের ১০০ জন এনফোর্সমেন্ট কর্মকর্তার সমন্বয়ে এ অভিযান শুরু হয়। সেনাইয়ের একটি উপাদান কারখানায় অভিযান চালানো হয়। অভিযান চলাকালীন সময়ে এনফোর্সমেন্ট অফিসাররা ৩২৮ বিদেশি নাগরিকের কাগজপত্র চেক করেন।

বাহারউদ্দিন বলেন, 'বৈধ পাসপোর্ট বা ওয়ার্ক পারমিট না থাকায় এবং অতিরিক্ত অবস্থান করার কারণে আটককৃত শ্রমিকদের অভিবাসন আইন ১৯৫৯/৬৩ (অ্যাক্ট ১৫৫) এর ধারা ৬(১)(সি) এবং ধারা ১৫(১)(সি) লঙ্ঘন করা হয়েছে। আটকরা, ইমিগ্রেশন রেগুলেশন ১৯৬৩ এর রেগুলেশন ৩৯(বি) এর অধীনে তাদের পাসপোর্টের শর্তাবলী লঙ্ঘন করেছে।'

তিনি আরও জানান, বুধবার স্থানীয় সময় বিকেল ৩টা ৫০ মিনিটের দিকে সেনাইয়ের বেশ কয়েকটি খাদ্য ও বিভিন্ন প্রাঙ্গণে একইরকম অভিযান চালায় অভিবাসন বিভাগ।

ওই অভিযানে এনফোর্সমেন্ট অফিসাররা ১১০ জন বিদেশির কাগজপত্র চেক করার পর অভিবাসন অপরাধে ৪০ জন বিদেশিকে আটক করা হয়।

আটকদের মধ্যে ইন্দোনেশিয়ার ৯ জন পুরুষ ও ১০ জন নারী, মিয়ানমারের ২ জন পুরুষ ও ৯ জন নারী, ৬ জন বাংলাদেশি, ২ জন পাকিস্তানি, একজন নেপালি ও ১ জন ভারতের।

একইদিনে সেরেমবান এলাকায় স্থানীয় অভিবাসন বিভাগ অভিযান চালিয়ে ১১০ বিদেশিকে আটক করে। তাদের মধ্যে অন্তত ১০ বাংলাদেশি রয়েছেন।

রাজ্যের অভিবাসন বিভাগের পরিচালক কেনিথ তান আইক কিয়াং বলেছেন, নথিবিহীন বিদেশি শ্রমিকদের বিরুদ্ধে নিয়মিত অভিযান পরিচালনা করা হচ্ছে। অভিযানে আটককৃত ১১০ বিদেশির মধ্যে ৯১ জন পুরুষ।

অভিযানের পর তিনি বলেন, 'অভিবাসন আইন লঙ্ঘনের দায়ে অভিবাসী শ্রমিকদের আটক করা হয়েছে। তারা মেয়াদ শেষের পর অতিরিক্ত সময় ধরে অবস্থান এবং অবৈধভাবে প্রবেশ করেছেন।'

আটককৃতদের মধ্যে ৬৪ জনই মিয়ানমারের নাগরিক। ইন্দোনেশীয় ১৩, বাংলাদেশি ১০, ভারতীয় ৬, পাকিস্তানি ৯, শ্রীলঙ্কান ৬ এবং নেপালি ২ নাগরিকও রয়েছেন।

কেনিথ তান আইক কিয়াং বলেন, বেশিরভাগ বিদেশি ওই এলাকায় ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান ও নির্মাণ স্থাপনায় কাজ করতেন।

Comments

The Daily Star  | English

26,181 illegal structures evicted from river banks in 10 years: state minister

State Minister for Shipping Khalid Mahmud Chowdhury told parliament today that the BIWTA has taken initiatives to evict illegal structures along the border of the river ports and on the banks of the rivers

18m ago