এবার ‘রুজভেল্ট’ হবেন লিওনার্দো ডিক্যাপ্রিও

২০০৪ সালের “অ্যাভিয়েটর” যাঁরা দেখেছেন তাঁরা জানেন মার্কিন ব্যবসায়ী হোবার্ড হাগসের চরিত্রে কেমন দেখিয়েছিলো লিওনার্দো ডিক্যাপ্রিওকে। এরপর, ২০১১ সালে “জে এডগার” যাঁরা দেখেছেন তাঁরা দেখেছেন এফবিআইয়ের পরিচালক জে এডগার হুভারের চরিত্রে কেমন মানিয়েছিলো লিওকে। আর ২০১৩ সালের “দ্য ওলফ অব ওয়াল স্ট্রিট”-এ সেই “এডগার” হয়ে যান মার্কিন লেখক জর্ডান বেলফোর্ট।
leonardo dicaprio and theodore roosevelt
লিওনার্দো ডিক্যাপ্রিও ও থিওডর রুজভেল্ট। ছবি: সংগৃহীত

২০০৪ সালের “অ্যাভিয়েটর” যাঁরা দেখেছেন তাঁরা জানেন মার্কিন ব্যবসায়ী হোবার্ড হাগসের চরিত্রে কেমন দেখিয়েছিলো লিওনার্দো ডিক্যাপ্রিওকে। এরপর, ২০১১ সালে “জে এডগার” যাঁরা দেখেছেন তাঁরা দেখেছেন এফবিআইয়ের পরিচালক জে এডগার হুভারের চরিত্রে কেমন মানিয়েছিলো লিওকে। আর ২০১৩ সালের “দ্য ওলফ অব ওয়াল স্ট্রিট”-এ সেই “এডগার” হয়ে যান মার্কিন লেখক জর্ডান বেলফোর্ট।

“রোমিও” বয় ডিক্যাপ্রিও বিভিন্ন চরিত্রে নিজেকে খুব সহজেই মানিয়ে নিতে পারেন। ইতিহাসকেও তিনি জীবন্ত করে তোলেন তাঁর অভিনয় গুণে। বিভিন্ন জীবনীচিত্রে অভিনয়ের পর এবার তাঁকে দেখা যাবে যুক্তরাষ্ট্রের ২৬তম রাষ্ট্রপতি থিওডর রুজভেল্টের চরিত্রে। এ কাজে তিনি হাত মিলিয়েছেন পরিচালক মার্টিন স্কোরসেসের সঙ্গে।

গত ২৭ সেপ্টেম্বর প্রযোজনা সংস্থা প্যারামাউন্ট নিশ্চিত করে “রুজভেল্ট” ছবিতে মার্কিন রাষ্ট্রপতির চরিত্রে ডিক্যপ্রিওর অভিনয়ের বিষয়টি। তবে চিত্রনাট্য নিয়ে এখনো অনেক কথা বলার বাকি। কেননা, একজন প্রকৃতিবাদী হিসেবে রুজভেল্টের সুনাম রয়েছে। বলা হয়, তিনি ছিলেন আমেরিকার জাতীয় উদ্যান ও বন-জঙ্গলের রাষ্ট্রপতি।

এছাড়াও, ১৯০১ সালে ৪২ বছর বছরে যুক্তরাষ্ট্রের সর্বকনিষ্ঠ রাষ্ট্রপতি হওয়া রুজভেল্টের ছিলো জটিল চারিত্রিক বৈশিষ্ট্য। সেসব বিষয়গুলো ছবিতে কতটা গুরুত্ব পাবে এবং ডিক্যাপ্রিও নিজেকে কতটা মানিয়ে নিতে পারবেন নিউইয়র্কে জন্ম নেওয়া এই “কাউবয়” রাষ্ট্রপতির চরিত্রের সঙ্গে এখন সেসব নিয়ে চলবে আলোচনা।

তথ্যসূত্র: স্কাই নিউজ

Comments

The Daily Star  | English

Hiring begins with bribery

UN independent experts say Bangladeshi workers pay up to 8 times for migration alone due to corruption of Malaysia ministries, Bangladesh mission and syndicates

36m ago