মাকে হাসপাতালে ফেলে গেলো ছেলে

ভারতের বিশিষ্ট কোরিওগ্রাফার এবং ১৯৭০ দশকের জনপ্রিয় “পাকিজা” ছবির একজন অভিনেত্রী গীতা কাপুরকে হাসপাতালে ফেলে পালালো তাঁর ছেলে রাজা।
Geeta Kapoor
ভারতের বিশিষ্ট কোরিওগ্রাফার এবং ১৯৭০ দশকের জনপ্রিয় “পাকিজা” ছবির একজন অভিনেত্রী গীতা কাপুর। ছবি: সংগৃহীত

ভারতের বিশিষ্ট কোরিওগ্রাফার এবং ১৯৭০ দশকের জনপ্রিয় “পাকিজা” ছবির একজন অভিনেত্রী গীতা কাপুরকে হাসপাতালে ফেলে পালালো তাঁর ছেলে রাজা।

খবরে প্রকাশ, রক্তচাপ কমে যাওয়ায় মুম্বাইয়ের এসআরভি হাসপাতালে ভর্তি করা হয় গীতা কাপুরকে। তাঁর ছেলে চিকিৎসার বিল দেওয়ার জন্য এটিএম বুথ থেকে টাকা তোলার কথা বলে হাসপাতাল থেকে বের হয়ে যায়, কিন্তু আর ফিরে আসেনি।

গীতার শারীরিক অবস্থা নাজুক হওয়ায় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ তাঁর চিকিৎসা চালিয়ে যান। পরে সেখান থেকে যোগাযোগ করা হলে গীতার ছেলে রাজা ফোন ধরেননি এবং মেয়ে পূজা “ভুল নাম্বার” বলে ফোন কেটে দেন।

ভারতীয় গণমাধ্যমকে গীতা বলেন, ছেলে রাজা তাঁকে প্রায়ই মারধর করতো এবং ঘরে তালাবন্ধ করে রাখতো। শুধু তাই নয়, গীতাকে খাবার দেওয়া হতো চারদিনে একবার।

ছেলের ইচ্ছা অনুযায়ী বৃদ্ধাশ্রমে যেতে রাজি না হওয়ায় তাঁকে এমন অত্যাচার করা হতো বলে তিনি গণমাধ্যমকে জানান। ঠিক মতো খাবার দেওয়া হতো না বলেই তাঁর শারীরিক অবস্থার অবনতি হয়েছে বলেও তিনি উল্লেখ করেন।

এদিকে, পুলিশ নেমেছে গীতার পরিবারের সদস্যদের খোঁজে। আর রাজা ইতোমধ্যেই বাড়ি বদলিয়ে নিয়েছে।

এমতাবস্থায়, ভারতের চলচ্চিত্র সার্টিফিকেশন বোর্ডের সদস্য অশোক পণ্ডিত হাসপাতালের বিল পরিশোধ করে দিয়েছেন। সংবাদমাধ্যমকে তিনি বলেন, “খবরের কাগজে পড়লাম হাসপাতালে একজন গীতা কাপুরকে তাঁর ছেলে-মেয়েরা ফেলে রেখে গেছে। আমি জানতাম না যে তিনিই ‘পাকিজার’ গীতা কাপুর।”

Comments