সম্পাদকীয়

সম্পাদকীয় লড়াই হবে দক্ষ আর অদক্ষরে

বাংলাভাষী দশে ববিচেনায় যদি ধরি তাহলে বাংলাদশে এবং ভারতরে কলকাতা। কন্তিু জনসংখ্যার নরিখিে যদি দখে,ি তাহলে এই দুই জায়গায় মলিে যা দাঁড়ায় তা পৃথবিীর কোনো কোনো দশেরে জনসংখ্যা থকেওে বশিাল।

 বাংলাভাষী দশে ববিচেনায় যদি ধরি তাহলে বাংলাদশে এবং ভারতরে কলকাতা। কন্তিু জনসংখ্যার নরিখিে যদি দখে,ি তাহলে এই দুই জায়গায় মলিে যা দাঁড়ায় তা পৃথবিীর কোনো কোনো দশেরে জনসংখ্যা থকেওে বশিাল। সাম্প্রতকিকালে বাংলাদশে ও কলকাতায় ছবি বণ্টনরে নয়িম-কানুন এবং বধিনিষিধে নয়িে পক্ষ-েবপিক্ষে নানারকমরে বর্তিক চলছ।ে সুষ্ঠু বণ্টন আদৌ হবে কনিা তা নয়িে সংশ্লষ্টি র্কতৃপক্ষরে অনকেরেই সন্দহে আছ।ে তারপরও আমরা মনে করি দ্রুত এই বর্তিকরে সমাধান হয়ে একটা সুষ্ঠু নয়িম-কানুনরে ভতের দয়িে সমানভাবে দু’দশেরে ছবি আদান-প্রদান হওয়া উচতি। এই বর্তিকরে মাঝখান থকেে যটো হয়ছে,ে বাংলাদশে এবং কলকাতার যৌথ প্রযোজনার কছিু ছবি এবং বাংলাদশেরে কয়কেজন নায়কিা ভারতরে ছবতিে ইতোমধ্যে তাদরে একটা নজিস্ব অবস্থান গড়ে তুলছেনে, যটো অবশ্যই একটা পজটেভি দকি। দু’দশেরে ছবরি আদান-প্রদানে এটা একটা বড় ভূমকিা পালন করছে বলে আমার বশ্বিাস। এর সংখ্যা যত বৃদ্ধি পাব,ে তাতে করে দু’দশেইে তাদরে ছবরি অবস্থান আরো সুদৃঢ় হব।ে বাংলাদশেরে যে নায়কিারা ইতোমধ্যে দৃঢ় অবস্থানে আছনে তাদরে জন্য আনন্দধারার পক্ষ থকেে শুভচ্ছো এবং আগামীতওে আরো অনকেে সংযুক্ত হবনে বলে আমাদরে বশ্বিাস। এর মধ্যে অবশ্যই কউে এগয়িে থাকবনে, কউে কছিুটা পছিয়িে পড়বনে- এ প্রতযিোগতিা খারাপ নয়। আনন্দধারার পাঠকরে জন্য এবাররে ঈদসংখ্যা গত সংখ্যার থকেে একটু আলাদা করইে সাজানো হয়ছে।ে বরাবররে মতো অবশ্যই আপনারা আপনাদরে মতামত আমাদরে জানাবনে। পাঠককে আনন্দ দয়োই আনন্দধারার উদ্দশ্যে। বগিত বশিষে সংখ্যাগুলোতে আমরা র্কাটুনস্টি সাদাতরে তুলতিে এবং জাহদি আকবররে ছড়ায় ছড়াটুন ছপেছে,ি যা পাঠক খুবই আনন্দরে সঙ্গে গ্রহণ করছেনে। সইে ধারাবাহকিতায় এই সময়রে প্রধান কছিু তারকার ছড়াটুন ছাপলাম আপনাদরে জন্য। আর ঈদরে সব আয়োজন তো রইলই।

 

Comments

The Daily Star  | English
remittances received in February

Remittance hits eight-month high

In February, migrants sent home $2.16 billion, up 39% year-on-year

3h ago