৬ চ্যালেঞ্জের মুখে পড়বে বাংলাদেশের অর্থনীতি: ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক ফোরাম

গত ১০ জানুয়ারি প্রকাশিত ‘গ্লোবাল রিস্কস রিপোর্ট ২০২৪’ এ ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক ফোরাম এই তথ্য জানিয়েছে।
ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক ফোরাম, ডাব্লিউইএফ, বাংলাদেশের অর্থনীতি, বাংলাদেশের অর্থনীতির চ্যালেঞ্জ,
রয়টার্স ফাইল ফটো

ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক ফোরামের (ডাব্লিউইএফ) এক জরিপে বলা হয়েছে, আগামী দুই বছরে জ্বালানি ঘাটতি, মূল্যস্ফীতি, অর্থনৈতিক মন্দা, বৈষম্য, সরকারি ঋণ ও বেকারত্ব- এই ছয়টি চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি হবে বাংলাদেশের অর্থনীতি।

গত ১০ জানুয়ারি প্রকাশিত 'গ্লোবাল রিস্কস রিপোর্ট ২০২৪' এ ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক ফোরাম এই তথ্য জানিয়েছে। দেশের ৭১টি ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের শীর্ষ নির্বাহীদের নিয়ে করা জরিপের ভিত্তিতে এই প্রতিবেদনটি তৈরি করা হয়েছে।

২০২৩ সালে এই মতামত জরিপ পরিচালনা করে বাংলাদেশের বেসরকারি গবেষণা প্রতিষ্ঠান সেন্টার ফর পলিসি ডায়ালগ (সিপিডি)।

২০২৩ সালের প্রতিবেদনে উল্লিখিত চ্যালেঞ্জগুলো ছিল- উচ্চ মূল্যস্ফীতি, ঋণ সংকট, উচ্চ পণ্য মূল্যের ধাক্কা, মানবসৃষ্ট পরিবেশগত ক্ষতি ও সম্পদের জন্য ভূরাজনৈতিক প্রতিযোগিতা।

এ বছর ব্যবসায়ীরা মনে করছেন জ্বালানি ঘাটতিই হবে বাংলাদেশের প্রধান চ্যালেঞ্জ, যা আগের বছর তাদের জন্য উদ্বেগের বিষয় ছিল না।

এ বছরের প্রতিবেদনে ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক ফোরাম আগামী দুই বছরে বাংলাদেশসহ ১০০টিরও বেশি দেশের জন্য মারাত্মক কিছু ঝুঁকি চিহ্নিত করেছে।

পরবর্তী দুই বছরে, বিশ্বের ব্যবসায়ীরা ভুল ও অপতথ্য সবচেয়ে গুরুতর বৈশ্বিক ঝুঁকি হিসেবে বিবেচনা করেছেন। এরপর আছে আবহাওয়ার চরমভাবাপন্নতা, সামাজিক বিভেদ, সাইবার নিরাপত্তাহীনতা, অভ্যন্তরীণ সশস্ত্র সংঘাত।

Comments

The Daily Star  | English

Lucky’s sources of income, wealth don’t add up

Laila Kaniz Lucky is the upazila parishad chairman from Raypura upazila of Narshingdi and a retired teacher of a government college.

1h ago