সিনেমাটি দিয়ে আমরা ১৯৭১ সালে ফিরে গেছি: হৃদি হক

ড. ইনামুল হক ও লাকী ইনামের মেয়ে হৃদি হক। অভিনয় ও নাট্যপরিচালক হিসেবে সফলতার পরিচয় দিয়েছেন অনেক আগে। প্রথমবার চলচ্চিত্র পরিচালনা করেছেন তিনি। ‘১৯৭১ সেইসব দিন’ সিনেমাটি আগামী ১৮ আগস্ট মুক্তি পেতে যাচ্ছে।
হৃদি হক। ছবি: সংগৃহীত

ড. ইনামুল হক ও লাকী ইনামের মেয়ে হৃদি হক। অভিনয় ও নাট্যপরিচালক হিসেবে সফলতার পরিচয় দিয়েছেন অনেক আগে। প্রথমবার চলচ্চিত্র পরিচালনা করেছেন তিনি। '১৯৭১ সেইসব দিন' সিনেমাটি আগামী ১৮ আগস্ট মুক্তি পেতে যাচ্ছে।

নতুন চলচ্চিত্র মুক্তি এবং অন্যান্য বিষয় নিয়ে দ্য ডেইলি স্টারের সঙ্গে কথা বলেছেন হৃদি হক।

১৯৭১ সেইসব দিন চলচ্চিত্রের মূল বার্তা কী?

হৃদি হক: এটি মুক্তির গল্প। সিনেমাটি দিয়ে আমরা ১৯৭১ সালে ফিরে গেছি। মানুষের মুক্তির স্বাদ চিরন্তন। কেবল একাত্তরেই আটকে থাকবে গল্প তা-ও না, এটি এগিয়ে যাবার গল্পও। সব মিলিয়ে দর্শকরা দেখবেন মুক্তির গল্প।

ক্যারিয়ারের প্রথম চলচ্চিত্র পরিচালনায় এমন একটি গল্প বেছে নেওয়া কতটা কঠিন ছিল?

হৃদি হক: অনেক কঠিন ছিল। ভালো কাজের জন্য কঠিন কিছু বেছে নিতেই হয়। সিনেমাটির মূল গল্প বা মূল ভাবনা ড. ইনামুল হকের। এটা নিয়ে আমাদের দলের একটা নাটক ছিল। সেই ভাবনটা ঠিক রেখে চিত্রনাট্য করেছি। অনেক চরিত্র যোগ করেছি। ভীষণ সুন্দর একটি গল্প। আব্বা এই গল্পটি লিখেছিলেন দেশ স্বাধীনের পর পর।

কঠিন গল্পটি সিনেমার জন্য বেছে নেয়ার একটি বিশেষ কারণও ছিল। তা হচ্ছে- ১৯৭১ সালের গল্প চিরদিন রয়ে যাবে। এই গল্প মুছে যাবে না। ইতিহাস রয়ে যায়।

১৯৭১ সালকে পর্দায় তুলে আনতে কী কী করতে হয়েছে?

হৃদি হক: মূল কথা হচ্ছে সময়টাকে ধরতে হয়েছে। ৫২ বছর আগের পরিবেশ অন্যরকম ছিল। তখন মানুষের কথা বলার ধরণও একটু অন্যরকম ছিল। পোশাক, গেটআপ, মেকআপ, অন্যরকম ছিল। সবকিছুতে ফিরে যেতে হয়েছে সেই সময়ে। জার্নিটা অবশ্যই চ্যালেঞ্জিং। একটি দৃশ্য করেছি এক হাজারেরও বেশি মানুষ দিয়ে। এক হাজার থেকে দেড় হাজার মানুষ দিয়ে একটি দৃশ্য করার জন্য অনেক খাঁটতে হয়েছে। সবই করেছি ভালো একটি সিনেমার জন্য।

এটি তো অনুদানের চলচ্চিত্র?

হৃদি হক: হ্যাঁ। অনুদানটাকে আমরা সম্মান হিসেবে দেখছি। আসলে তো আরও অর্থ যোগ করতে হয়েছে। সিনেমা তো অনেক বড় বিষয়। আমাদের প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান 'টিকিট' এগিয়ে এসেছে। এরই মধ্যে আবার আব্বাকে (ইনামুল হক) হারালাম। তিনি নেই কিন্তু না থেকেও দূর থেকে শক্তি হিসেবে কাজ করছেন।

দর্শকদের কাছ থেকে কতটা প্রত্যাশা করছেন চলচ্চিত্রটি নিয়ে?

হৃদি হক: দেশের তরুণ দর্শকদের প্রতি আমরা বেশ আশাবাদী। তরুণরা ভালো গল্প পেলে হলমুখী হন। সাধারণ দর্শকরাও হন। বাংলাদেশের মানুষ প্রচণ্ডভাবে সংস্কতিমনা। বাঙালি সংস্কৃতিকে জড়িয়ে থাকা মানুষ ভালো সিনেমা দেখেন। '১৯৭১ সেইসব দিন' তারা দেখবেন এই বিশ্বাস আছে।

'যাচ্ছো কোথায়' শিরোনামের একটি গান মুক্তি পেয়েছে আপনার সিনেমার, কেমন সাড়া পেয়েছেন?

হৃদি হক: 'যাচ্ছো কোথায়' শিরোনামের গানটিতে কণ্ঠ দিয়েছেন কামরুজ্জামান রনি এবং ইশরাত এ্যানি। গানটির গীতিকার আমি। সুর ও সংগীত করেছেন ওপার বাংলার দেবজ্যোতি মিশ্র। সত্যি কথা বলতে গানটি মুক্তির পর অসংখ্য মানুষের প্রশংসা পাচ্ছি। সবাই প্রশংসা করছেন। এছাড়া একটি উর্দু গান মুক্তি পেয়েছে। এটার জন্যও প্রশংসা পাচ্ছি।

Comments

The Daily Star  | English

Response to Iran’s attack: Israel war cabinet weighing options

Israel yesterday faced pressure from allies to show restraint and avoid an escalation of conflict in the Middle East as it considered how to respond to Iran’s weekend missile and drone attack.

4h ago