বিনোদন

এবারের ব্লেন্ডারস চয়েস-দ্য ডেইলি স্টার ওটিটি অ্যাওয়ার্ড পেলেন যারা

অনুষ্ঠানে ওটিটিতে সেরা অভিনয়শিল্পী, সেরা সংগীতশিল্পী, সেরা চলচ্চিত্র, সেরা পরিচালকসহ ২২ ক্যাটাগরি এবং ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মের সেরা কনটেন্ট ক্রিয়েটরসহ মোট ২৮ ক্যাটাগরিতে সেরাদের পুরস্কার দেওয়া হয়। 
দ্বিতীয় ব্লেন্ডারস চয়েস-দ্য ডেইলি স্টার ওটিটি অ্যাওয়ার্ডসের পুরস্কারপ্রাপ্তরা। ছবি: স্টার

দেশের ওটিটি ও ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মের সেরা শিল্পী, কলাকুশলী ও কনটেন্ট নির্মাতাদের স্বীকৃতি দিতে অনুষ্ঠিত হলো ব্লেন্ডারস চয়েস-দ্য ডেইলি স্টার ওটিটি অ্যান্ড ডিজিটাল কনটেন্ট অ্যাওয়ার্ডসের দ্বিতীয় আসর।

গতকাল শনিবার সন্ধ্যায় বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রের হল অব ফেম মিলনায়তনে ব্লেন্ডারস চয়েস-দ্য ডেইলি স্টার ওটিটি অ্যান্ড ডিজিটাল কনটেন্ট অ্যাওয়ার্ডস ২০২২ অনুষ্ঠিত হয়। 

অনুষ্ঠানে ওটিটিতে সেরা অভিনয়শিল্পী, সেরা সংগীতশিল্পী, সেরা চলচ্চিত্র, সেরা পরিচালকসহ ২২ ক্যাটাগরি এবং ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মের সেরা কনটেন্ট ক্রিয়েটরসহ মোট ২৮ ক্যাটাগরিতে সেরাদের পুরস্কার দেওয়া হয়। 

অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত অতিথিরা। ছবি: স্টার

অনুষ্ঠানে ইস্পাহানি টি লিমিটেডের মহাব্যবস্থাপক ওমর হান্নান এবং দ্য ডেইলি স্টার সম্পাদক ও প্রকাশক মাহফুজ আনাম উপস্থিত ছিলেন।

পপুলার বিভাগের সেরা অভিনয়শিল্পী (পুরুষ) আফরান নিশো (রেডরাম), সেরা অভিনয়শিল্পী (নারী) মেহজাবীন চৌধুরী (রেডরাম)। ক্রিটিকস বিভাগের সেরা অভিনয়শিল্পী (পুরুষ) চঞ্চল চৌধুরী (কারাগার) ও সেরা অভিনয়শিল্পী (নারী)  তাসনিয়া ফারিণ (কারাগার)। 

বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব রামেন্দু মজুমদার, সংগীতশিল্পী খুরশীদ আলম, রুনা লায়লা, রফিকুল আলম, ফাহমিদা নবী, সামিনা চৌধুরী, অভিনয়শিল্পী সুবর্ণা মুস্তাফা, শহীদুজ্জামান সেলিম, গিয়াস উদ্দিন সেলিম, গীতিকার আসিফ ইকবাল, পরিচালক চয়নিকা চৌধুরী, নাট্যকার বৃন্দাবন দাস। 

অনুষ্ঠানে নাচ ও গান পরিবেশনা করেন সোহানা সাবা, তাসনিয়া ফারিণ ও হৃদি শেখ। গান পরিবেশন করেন প্রীতম হাসান, সন্ধি ও মাশা ইসলাম। 

অনুষ্ঠানের রেড কার্পেট পর্ব উপস্থাপনা করেন ইয়াশ রোহান ও সারাহ আলম। পুরো অনুষ্ঠান উপস্থাপনায় ছিলেন নাজিবা বাশার, আইশা খান, রাফসান সাবাব ও আমিন হান্নান চৌধুরী।

এ আয়োজনে আরও উপস্থিত ছিলেন কণ্ঠশিল্পী কনকচাঁপা, মঈনুল ইসলাম খান, জেফার, কর্ণিয়া, পরিচালক শিহাব শাহীন, অনিমেষ আইচ, অভিনেত্রী শবনম ফারিয়া, ফারিয়া শাহরিন, আশনা হাবিব ভাবনা, ওয়াহিদা মল্লিক জলি, অঞ্জনা, অরুণা বিশ্বাস, রোকেয়া প্রাচী, বিজরী বরকতউল্লাহ, তানভিন সুইটি, শাহনাজ খুশী, সারিকা রুনা খান, জান্নাতুল ঐশী, নৃত্যশিল্পী পূজা সেনগুপ্তা, শ্রাবন্য তৌহিদা, মুহিন, কাজী শুভ, গীতিকবি সোমেশ্বর অলি, লুৎফর হাসান, রবিউল ইসলাম জীবন, জাহিদ নিরব প্রমুখ।

ব্লেন্ডারস চয়েস-দ্য ডেইলি স্টার ওটিটি অ্যান্ড ডিজিটাল কনটেন্ট অ্যাওয়ার্ডসের দ্বিতীয় আসরে যারা পুরস্কার পেলেন-

পপুলার ক্যাটাগরি

সেরা অভিনয়শিল্পী (পুরুষ) আফরান নিশো (রেডরাম), সেরা অভিনয়শিল্পী (নারী) মেহজাবীন চৌধুরী (রেডরাম), খল চরিত্রে সেরা অভিনেতা নাসির উদ্দিন খান (সিন্ডিকেট), সেরা পার্শ্ব অভিনয়শিল্পী (পুরুষ) ইন্তেখাব দিনার (কারাগার), সেরা পার্শ্ব অভিনয়শিল্পী (নারী) সালহা খানম নাদিয়া (রেডরাম), সেরা পরিচালক (সিরিজ) সৈয়দ আহমেদ শাওকি (কারাগার), সেরা পরিচালক (সিনেমা) ভিকি জাহেদ (রেডরাম), সেরা সিনেমাটোগ্রাফার বরকত হোসাইন (কারাগার), সেরা সিরিজ কারাগার, সেরা সিনেমা রেডরাম, সেরা সম্পাদনা নুহাশ হুমায়ূন ও ফুয়াদ সৌরভ (পেট কাটা ষ), সেরা চিত্রনাট্যকার নেয়ামত উল্যাহ (কারাগার), সেরা মেকআপ আর্টিস্ট আতিয়া রহমান (কারাগার)।

ক্রিটিকস ক্যাটাগরি

সেরা অভিনয়শিল্পী (পুরুষ) চঞ্চল চৌধুরী (কারাগার), সেরা অভিনয়শিল্পী (নারী) তাসনিয়া ফারিণ (কারাগার), সেরা পরিচালক মোহাম্মদ তাওকীর ইসলাম (শাটিকাপ), সেরা সিরিজ (শাটিকাপ)।

সংগীত

সেরা সংগীত পরিচালক ইমন চৌধুরী (টেকা পাখি-দুই দিনের দুনিয়া), সেরা সংগীতশিল্পী মাশা ইসলাম (টেকা পাখি), সেরা ব্যাকগ্রাউন্ড স্কোর রুসলান রেহমান (কারাগার), সেরা গীতিকার খৈয়াম সানু সন্ধি (কথা ছিল-সিন্ডিকেট)

ইন্ডিভিজ্যুয়াল কনটেন্ট

সেরা কনটেন্ট ক্রিয়েটর (শিক্ষা) এনায়েত চৌধুরী (কেন সবাই ২০২৩ সালে দুর্ভিক্ষ ও মহামন্দা হওয়ার ভয় করছে), সেরা কনটেন্ট ক্রিয়েটর (বিনোদন/কমেডি) আরএনএআর (দ্য মাইটি চেয়ার), সেরা কনটেন্ট ক্রিয়েটর (খেলাধুলা) নয়ন অ্যান্ড অন (ফুটবলের সুপারহিরোদের সঙ্গে দেখা), সেরা কনটেন্ট ক্রিয়েটর (শিশু) শামীমা শ্রাবণী (টুনটুনি), সেরা কনটেন্ট ক্রিয়েটর (ট্রাভেল) নাদির অন দ্য গো–বাংলা (২ দেশকে ভাগ করেছে এই মরুভূমি), সেরা কনটেন্ট ক্রিয়েটর (ফুড অ্যান্ড রেসিপি) রাফসান দ্য ছোটভাই (মালয়েশিয়ায় বিশ্বের সবচেয়ে ব্যয়বহুল স্টেক)।

বিশেষ স্বীকৃতি 

দর্শকের পছন্দের জনপ্রিয় ডিজিটাল মিডিয়া ড্রামা 'পেট কাটা ষ'।

 

Comments